প্রকাশিত সংবাদের একাংশের প্রতিবাদজাতীয় দৈনিকসহ বিভিন্ন দৈনিক ও সাপ্তাহিক পত্রিকায় মনোহরগঞ্জে পুলিশের উপর হামলা প্রকাশিত সংবাদের একাংশের প্রতিবাদ জানাই। প্রকাশিত সংবাদে একাংশে প্রকাশিত হয় মাদকবিরোধী অভিযানকালে উপজেলা ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মো. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে পুলিশের উপর হামলা চালানো হয়। মূলত ওই দিন পুলিশ মাদকবিরোধী অভিযানে মনোহরগঞ্জ বাজার খোদাইভিটা থেকে একজনকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়, পরে তাকে ছেড়ে দেয়। আমি ব্যক্তিগত কাজে থানায় যাই এবং এ ঘটনা জানতে পারি। আমি থানায় থাকা অবস্থায় পুলিশের অভিযানস্থলে রেখে যাওয়া মোটরসাইকেল নিতে আসলে কে বা কারা তাদের উপর হামলা চালায়। আমি এর কিছুই জানি না। আমি ব্যক্তিগতভাবে এর নিন্দা জানাই এবং এর শাস্ত্মি দাবি করছি। যখন আমাদের নেতৃত্বে উপজেলা ছাত্রলীগ সুসংগঠিত তখন অতি উৎসাহী কতিপয় ব্যক্তি প্রিয় সাংবাদিক ভাইদের মিথ্যা তথ্য দিয়ে আমার বিরম্নদ্ধে সংবাদ পরিবেশন করে, আমি আমার বিরম্নদ্ধে প্রকাশিত ওই সংবাদের নিন্দা জানাই। আমি হলফ করে বলতে পারি নিজে কখনো ধুমপান করিনি এবং মাদকের সঙ্গে জড়িত ছিলাম না। আমি সর্বদা মাদকের বিরম্নদ্ধে সোচ্চার ছিলাম এবং মাদকের বিরম্নদ্ধে সর্বদা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে সহযোগিতা করে আসছি।
মো. কামাল হোসেন
উপজেলা ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক
মনোহরগঞ্জ, কুমিলস্না।
 
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
প্রথম পাতা -এর আরো সংবাদ
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin
close