ড্র ম্যাচেই ভারতের বিশ্ব রেকর্ডক্রীড়া ডেস্ক সেঞ্চুরির পর ধনাঞ্জয়া ডি সিলভার উদযাপন। তার ১১৯ রানের ইনিংসের সুবাদে ভারতের বিপক্ষে দিলিস্ন টেস্টে হার এড়াতে পেরেছে শ্রীলংকা -ওয়েবসাইটশ্রীলংকার বিপক্ষে সিরিজ জিতলেই বিশ্ব রেকর্ড ছোঁয়া হবে ভারতের। সেই হিসেবটা জেনেই লংকানদের বিপক্ষে দিলিস্নতে সিরিজের তৃতীয় এবং শেষ টেস্টে মাঠে নামেন বিরাট কোহলিরা। যদিও ধনাঞ্জয়া ডি সিলভার সেঞ্চুরির সুবাদে ফিরোজ শাহ কোটলায় জয় পায়নি তারা। তবে ১-০ ব্যবধানে সিরিজ ঠিকই জিতে নিয়েছে স্বাগতিকরা। আর তাতে রিকি পন্টিংয়ের অস্ট্রেলিয়ার গড়া টানা ৯টি টেস্ট সিরিজ জয়ের বিশ্ব রেকর্ড ছুঁয়েছে ভারত।
পন্টিংয়ের আমলে ক্রিকেটে সোনালি সময় পার করেছে অস্ট্রেলিয়া। সে সময় বিশ্ব ক্রিকেটের ইতিহাসে বিভিন্ন রেকর্ডে নাম লিখিয়েছিল দলটি। এরই অন্যতম ছিল টানা ৯টি টেস্ট সিরিজ জেতার বিশ্ব রেকর্ড। ২০০৫ সাল থেকে ২০০৮ সাল- এই সময়কালের মধ্যে এমন কীর্তি গড়ে পন্টিংয়ের অস্ট্রেলিয়া। তবে তাদের এই বিশ্ব রেকর্ডে ভাগ বসালো কোহলির ভারত।
শ্রীলংকার বিপক্ষে এই সিরিজসহ টানা ৯টি টেস্ট সিরিজ জিতল ভারত। এখন অপেক্ষা রেকর্ড ভাঙার। যে সুযোগটা দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে পাবেন কোহলিরা। শ্রীলংকার বিপক্ষে ওয়ানডে এবং টি২০ সিরিজ শেষে চলতি মাসেই দক্ষিণ আফ্রিকায় যাবেন তারা। সেখানে ফাফ ডু পেস্নসিসদের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টেস্ট খেলবে ভারত। আগামী ৩০ ডিসেম্বর থেকে শুরম্ন হতে যাওয়া ওই সিরিজ জিততে পারলেই এককভাবে রেকর্ডটা নিজেদের করে নেবে তারা।
ভারতের এমন রেকর্ডের দিনে অনেকটাই চাপা পড়েছে শ্রীলংকার ডি সিলভার হার না মানা ১১৯ রানের ইনিংস। কারণ ভারত সিরিজ জিতলেও দিলিস্ন টেস্টের পঞ্চম এবং শেষ দিনের নায়ক তো ছিলেন এই লংকান ব্যাটসম্যানই। যার ব্যাটে ভর করে আরেকটি টেস্ট পরাজয়ের হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে সফরকারীরা। যদিও দ্বিতীয় সেশনে পেশির চোট পেয়ে মাঠ ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন তিনি। তবে তার আগে দলকে লড়াইয়ের পথটা নিজের ব্যাটে ঠিকই দেখিয়েছেন এই ব্যাটসম্যান।
ভারতের ছুঁড়ে দেয়া ৪১০ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ৩ উইকেটে ৩১ রানে চতুর্থ দিন শেষ করেছিল শ্রীলংকা। তাই ফিরোজ শাহ কোটলায় পঞ্চম দিনে জয়ের জন্য ৭ উইকেট দূরে ছিল ভারত। কিন্তু দিনভর বোলিং করে লংকানদের কেবলমাত্র দুইটি উইকেটই খসাতে পেরেছে স্বাগতিকদের বোলাররা এবং দিন শেষে সফরকারীদের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৫ উইকেটে ২৯৯ রান। ফলস্বরূপ ড্রয়েই সমাপ্ত হয় দিলিস্ন টেস্ট।
পঞ্চম দিনের শুরম্নতেই ম্যাথুসকে (১) রান আউট করেন জাদেজা। পঞ্চম উইকেটে অধিনায়ক দিনেশ চান্দিমালের সঙ্গে ১১২ রানের জুটি গড়ে তুলে সেই ধাক্কা সামলে নেন সিলভা। চান্দিমালকে (৩৬) ক্লিন বোল্ট করে জুটি ভাঙেন অশ্বিন। তবে ম্যাচের বাকি সময়টা ছিল লংকান ব্যাটসম্যানদের। কারণ সফরকারীদের আর কোনো খেলোয়াড়কে সাজঘরে পাঠাতে পারেনি ভারতীয় বোলাররা। টেস্ট ক্যারিয়ারের তৃতীয় সেঞ্চুরি তুলে নেন সিলভা। পরে পেশির টানে তিনি মাঠ ছাড়লেও দিনের বাকি সময়টা অনায়াসেই পার করেন রোশেন সিলভা (৭৪) এবং নিরোশান ডিকওয়েলা (৪৪)।
 
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin