নতুন বছরে নতুন চিন্ত্মাকামাল লোহানী আরও একটি নতুন বছর এলো। পহেলা জানুয়ারি। আন্ত্মর্জাতিকভাবে এই দিনটি পালিত হয়। বাংলাদেশও ১ জানুয়ারি ইংরেজি নববর্ষ পালনে জাঁকজমকপূর্ণ প্রস্তুতি আনন্দানুষ্ঠান আয়োজন করে। আলোকসজ্জা উৎসব ও প্রীতি সমাবেশ আর সঙ্গীতানুষ্ঠানের আয়োজন করে। কার্ড পাঠান অসংখ্যজনের 'হ্যাপি নিউ ইয়ার' শুভেচ্ছা জানিয়ে। কিন্তু এদের পহেলা বৈশাখ যা আমাদের প্রকৃতি এবং উৎপাদনের সঙ্গে সম্পর্কিত, সেই বাংলার মানুষের চিরন্ত্মন, ঐতিহ্যবাহী বাংলা বছরের প্রথম দিনটিকে পালন করেন না, শুভেচ্ছাপত্র বিনিময়... বিস্তারিত
প্রাপ্তি-অপ্রাপ্তির বছর ২০১৭ড. আশরাফ আহমেদ প্রাপ্তি-অপ্রাপ্তির দোলাচলে কালের আবর্তে মহাকালের গর্ভে হারিয়ে গেল আরও একটি বছর। নতুন স্বপ্ন আর সম্ভাবনা নিয়ে যাত্রা শুরম্ন হবে নতুন বছরের। পুরনোকে বিদায় দিয়ে নতুনকে বরণ করে নেয়াই মানুষের সহজাত প্রবণতা। জাতীয় জীবনে অধিকাংশ কাজই খ্রিস্টীয় বর্ষপঞ্জি মনে করা হলেও খ্রিস্টীয় বর্ষ ঘটা করে পালন করা হয় না। তবে দেশের রাজনৈতিক, সামাজিক, অর্থনৈতিক, সাংস্কৃতিক, শিক্ষা ইত্যাদি নানা ক্ষেত্রে বছরটি কেমন গেল তার হিসাব-নিকাশ সবাই করে... বিস্তারিত
২০১৭ সালে আমরা যাদের হারিয়েছিমৃতু্য মানুষের এক অলঙ্ঘনীয় নিয়তি। কিছু মানুষ সূর্যের মতো উদিত হয়, তাদের মেধা-মনন আর সৃষ্টির কল্যাণে আলোকিত হয়ে ওঠে সমাজ-রাষ্ট্র। আবার চিরাচরিত নিয়মে তারা চলেও যান কালের অতলে। আলোকিত মানুষের মৃতু্যজনিত শূন্যতা কখনো পূরণ হয় না। ২০১৭ সালেও আমরা হারিয়েছি বেশ কয়েকজন গুণীকে, যারা নিজ নিজ কর্মক্ষেত্রে রেখে গেছেন গুরম্নত্বপূর্ণ অবদান। তবে কীর্তিমানের মৃতু্য নেই, তারা তাদের কর্ম ও সৃষ্টিতে আমাদের মাঝে জাগরূক থাকবেন- এটাই সান্ত্ম্বনা। প্রতিবেদন তৈরি করেছেন বীরেন মুখার্জীসুরঞ্জিত সেনগুপ্ত
আওয়ামী লীগের বর্ষীয়ান নেতা ও সংসদ সদস্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত ৫ ফেব্রম্নয়ারি রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃতু্যবরণ করেন। সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত আওয়ামী লীগের উপদেষ্টাম-লীর সদস্য ছিলেন। তিনি আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটিরও সভাপতি ছিলেন। বলাই বাহুল্য, বাংলাদেশের রাজনীতির ইতিহাসে সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত ছিলেন বর্ণাঢ্য একজন ব্যক্তিত্ব। তার বাচনভঙ্গি ও স্পষ্টবাদিতাসহ বিভিন্ন গুণের কারণেই সারাদেশের মানুষের কাছেই তিনি ব্যাপক পরিচিতও ছিলেন। সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত... বিস্তারিত
২০১৭ সালের কয়েকটি আলোচিত ঘটনাবিদায়ী বছরে বেশ কয়েকটি ঘটনা দেশ ও দেশের গ-ি ছাপিয়ে আন্ত্মর্জাতিক মহলে ব্যাপক আলোড়ন তোলে। এসব ঘটনায় যেমন দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হয়েছে, অন্যদিকে কিছু ঘটনা নেতিবাচক পরিস্থিতিরও জন্ম দিয়েছে। আলোচিত এসব ঘটনা থেকে উলেস্নখযোগ্য কয়েকটি সংক্ষিপ্ত পরিসরে যায়যায়দিনের পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো।রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ
মিয়ানমার সেনাবাহিনীর দমন-পীড়ন-নির্যাতনের মুখে ২০১৭ সালের ২৫ আগস্ট থেকে শুরম্ন করে বছরের শেষ পর্যন্ত্ম কয়েক লাখ রোহিঙ্গার অনুপ্রবেশ ঘটে বাংলাদেশে। মিয়ানমার সেনাবাহিনীর ব্যাপক ধ্বংসযজ্ঞের শিকার হয়ে প্রাণের ভয়ে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আন্ত্মর্জাতিক সম্প্রদায় বাংলাদেশের এই মানবিক ভূমিকার প্রশংসা করে। পাশাপাশি এ নিপীড়ন যে মিয়ানমারের দীর্ঘদিনের পরিকল্পনার ফসল, তাও আন্ত্মর্জাতিক মহলের আলোচনায় সামনে আসে। ... বিস্তারিত
ফিরে দেখা ২০১৭জানুয়ারি
১. সারা দেশে একযোগে বই উৎসব পালিত।
২. রাজধানীর গুলশান ডিএনসিসি মার্কেটে ভয়াবহ অগ্নিকা-ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির ঘটনা ঘটে। আগুন লাগার পর ফায়ার সার্ভিসের ২২টি ইউনিট এবং নৌবাহিনীর একটি ইউনিট ১৬ ঘণ্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়।
৫. মোহাম্মদপুরে বন্দুকযুদ্ধে দুর্র্ধর্ষ দুই জঙ্গি নিহত হয়। রাজধানীর গুলশানে জঙ্গি হামলার অন্যতম পরিকল্পনাকারী ও নির্দেশক নুরম্নল ইসলাম মারজান এবং নব্য জেএমবির... বিস্তারিত
 
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin