শিশু তামিমকে হত্যার কথা স্বীকার চাচীরবেড়া (পাবনা) সংবাদদাতা পাবনার বেড়ায় তামিম (৬) নামের এক শিশু ছাত্রকে শ্বাসরোধ ও গলাকেটে হত্যার কথা স্বীকার করেছেন তার চাচী আঞ্জুয়ারা। তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী শুক্রবার দুপুর সোয়া ১২টায় বেড়া মডেল থানা পুলিশ তাকে সঙ্গে নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে বাড়ির রান্নাঘর থেকে হত্যায় ব্যবহৃত অস্ত্র জব্দ করে।
বেড়া মডেল থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাফ্‌ফর হোসেন বলেন, অভিযুক্ত আঞ্জুয়ারা পুলিশের জিঞ্জাসাবাদে হত্যার কথা স্বীকার করেছেন।
আঞ্জুয়ারা স্বীকারোক্তিতে জানান, ১৬ ডিসেম্বর নিহত তামিমের বাবা মো. মুনসুর আমিনের সঙ্গে তার ঝগড়া হলে আমিন তার মুখে থুথু দিয়েছিলেন। এরই জেরে তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে পরিকল্পিতভাবে তামিমকে গলায় রশি দিয়ে শ্বাসরোধ ও একটি ধারালো অস্ত্র দিয়ে গলা কেটে হত্যা করেন।
উলেস্নখ্য, গত বুধবার বিকালে বেড়া উপজেলার চাকলা ইউনিয়নের খাকছারা চকপাড়া গ্রামের মো. মুনসুর আমিনের ছেলে মো. মাশরাফি মর্তুজা তামিম (৬) বাড়ির বাইরে খেলতে গেলে তার চাচী ডেকে নিয়ে তাকে হত্যা করে বাড়ির পাশের একটি খড়ের গাদায় লাশ ফেলে রাখে।
 
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
স্বদেশ -এর আরো সংবাদ
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin