বাঘারপাড়ায় উন্নয়নমেলায় অংশ নিলেন না ইউপি চেয়ারম্যানরাযশোর প্রতিনিধি যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলায় উন্নয়ন মেলার অনুষ্ঠানে ৯ জন ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের কেউই অংশ নেননি। বৃহস্পতিবার উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে পরিষদ চত্বরে তিন দিনব্যাপী এই মেলার উদ্বোধন করা হয়। তবে চেয়ারম্যানরা কেন এই অনুষ্ঠানে অংশ নেননি, এর সদুত্তর দেননি কেউই।
সূত্র জানায়, প্রতিটি জেলা-উপজেলা পর্যায়ে তিন দিনব্যাপী উন্নয়ন মেলার উদ্বোধন হয়েছে বৃহস্পতিবার। বর্তমান সরকারের গত ৯ বছরের উন্নয়ন কর্মযজ্ঞ সামনে তুলে ধরাই এই মেলার প্রধান উদ্দেশ্য। অথচ বাঘারপাড়া উপজেলায় আয়োজিত উন্নয়ন মেলায় ৯ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের কেউই অংশ নেননি।
স্থানীয় সূত্র জানিয়েছে, বাঘারপাড়ার ৯টি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানই সরকার দলীয়। এর মধ্যে অনেকেই আছেন আওয়ামী লীগের দায়িত্বশীল পদে। তবে রাজনৈতিক বিরোধ থাকায় ৯ জনের ছয়জনই স্থানীয় সংসদ সদস্যের বিপরীত মেরম্নতে রাজনীতি করেন। এ কারণে যে অনুষ্ঠানে সংসদ সদস্য থাকেন, সেই অনুষ্ঠানে এই ছয় ইউপি চেয়ারম্যান যান না। স্থানীয় সংসদ সদস্য থাকলে বাকি তিন ইউপি চেয়ারম্যান উপস্থিত থাকেন। কিন্তু এদিন এই তিন ইউপি চেয়ারম্যানও অনুপস্থিত ছিলেন।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ইউপি চেয়ারম্যান জানান, 'সবাই জানে এমপি যেখানে থাকেন, আমরা সেখানে উপস্থিত হই না। এ ছাড়া প্রশাসনের সঙ্গে চেয়ারম্যানদের ভালো সম্পর্ক যাচ্ছে না। যে কারণে উন্নয়ন মেলায় কেউই অংশ নেননি'।
তবে ধলগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সুবাস দেবনাথ অভিরাম মেলায় অংশ না নেয়ার বিষয়ে বলেন, 'শরীর ভালো না। আর শীতের কারণে যেতে পারিনি।'
দরাজহাট ইউপি চেয়ারম্যান আইয়ুব হোসেন বাবলু বলেন, মেলায় যাওয়ার জন্য বাড়ি থেকে বের হয়েছিলেন। কিন্তু কুয়াশার কারণে আবার বাড়ি ফিরে যেতে বাধ্য হন।
তবে তিনি স্বীকার করেন, স্থানীয় সংসদ সদস্যের অনুষ্ঠানে ছয় ইউপি চেয়ারম্যান যান না, তিনিসহ তিন ইউপি চেয়ারম্যান অনুষ্ঠানে অংশ নেন। কিন্তু এদিন কেউই কেন যায়নি, সেটা তিনি বলতে পারেন না। তিনি কুয়াশা ও শারীরিক অসুস্থতার কারণে যাননি। আর উপজেলা চেয়ারম্যান ও প্রশাসনও তাদের সঙ্গে বিরূপ আচরণ করে বলে দাবি করে তিনি বলেন, এ জন্যও কেউ কেউ অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত থাকতে পারেন।
তবে বাঘারপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহনাজ বেগম জানান, তিনি সবাইকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। প্রস্তুতি সভার রেজুলেশনও সব চেয়ারম্যানকে দেয়া হয়েছে। এরপরও কেন তারা আসলেন, না তা বোধগম্য নয়।
 
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
স্বদেশ -এর আরো সংবাদ
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin
close