ফতুলস্নায় বুড়িগঙ্গা নদীতে ট্রলার ডুবি:নিখোঁজ একনারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলায় ফতুলস্নার বুড়িগঙ্গা নদীতে ঘন কুয়াশায় লঞ্চের ধাক্কায় যাত্রীবাহী ট্রলার ডুবে যায়। ডুবে যাওয়া ট্রলারের চালকসহ আটজন যাত্রীদের উদ্ধার করতে পারলেও এখনো একজন যাত্রী নিখোঁজ রয়েছে। শুক্রবার ভোরে বক্তাবলী খেয়াঘাটে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
নিখোঁজ দুদু মিয়া (৫৫) ফতুলস্নার উত্তর নরসিংপুর এলাকার মৃত বাছির মিয়ার ছেলে।
প্রত্যক্ষদর্শী ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার ভোরে ঘন কুয়াশায় বুড়িগঙ্গা নদীর পূর্বপাড় হতে ৮-৯ জন যাত্রী নিয়ে বক্তাবলীর খেয়াঘাটের ট্রলারটি নদীর পশ্চিম পাড়ে রওনা হয়। ট্রলারটি নদীর মাঝপথে যাওয়ার পর ঢাকাগামী একটি লঞ্চ ধাক্কা দিলে সঙ্গে সঙ্গে ট্রলারটি ডুবে যায়। ট্রলারে থাকা যাত্রীরা হাউমাউ করে চিৎকার করলে নদীর পূর্বপাড়ে থাকা একটি ইটের ট্রলার দ্রম্নত ঘটনাস্থলে গিয়ে নারীসহ আটজন যাত্রীকে উদ্ধার করে। তবে এখনো দুদু মিয়া নামে একজন নিখোঁজ রয়েছে।
ট্রলার চালক ইদ্রিস আলী জানান, ভোরে ঘন কুয়াশার কারণে ঘাটের ট্রলারটি বেঁধে একটি চায়ের দোকানে বসে ছিলাম। তখন কয়েকজন যাত্রী জোড় করে ট্রলারটি ছাড়তে বলে। কুয়াশার মধ্যে ট্রলার ছেড়ে যাবে না এ কথা বলার পরও হুমকি ধামকি দিয়ে ট্রলারটি ছাড়তে বাধ্য করে। আর ট্রলারটি ৮-৯ জন যাত্রী নিয়ে ছেড়ে নদীর মাঝপথে যাওয়ার পর ঢাকাগামী একটি লঞ্চ লাইট না মেরে এবং কোনো হর্ন না বাজিয়ে ট্রলারের মাঝামাঝি এসে সজোড়ে ধাক্কা দেয়ার সঙ্গে ট্রলারটি ডুবে যায়।
তিনি আরও বলেন, ট্রলারটি ডুবে যাওয়ার পর মৃতু্য নিশ্চিত মনে করে আলস্নাহকে ডাকতে শুরম্ন করলাম এবং হাউমাউ করে কান্নাকাটি করতে থাকি। হঠাৎ দেখি একটি ট্রলার নিয়ে কয়েকজন লোক এসে আমাদের উদ্ধার করে।
 
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
স্বদেশ -এর আরো সংবাদ
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin
close