অনুশীলনে ফিরছেন মাশরাফি-তামিমরাক্রীড়া প্রতিবেদক দুই দিনের বিশ্রাম শেষ। ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজকে সামনে রেখে আজ থেকে আবার অনুশীলনে নেমে পড়ছেন মাশরাফি-তামিমরা। টানা দুই সপ্তাহ ঘাম ঝরিয়ে ক্রিকেটাররা কিছুটা ক্লান্ত্ম ছিল। তাই মূল সিরিজের আগে তাদের চাঙ্গা করতেই বৃহস্পতি এবং শুক্রবার কোনো অনুশীলন রাখেনি টিম ম্যানেজমেন্ট।
আগামী সোমবার জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে উদ্বোধনী ম্যাচ দিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজ শুরম্ন করবে বাংলাদেশ। ঘরের মাঠে লড়াই শুরম্ন হতে আর মাত্র একদিন বাকি। ইতোমধ্যে শুক্রবার রাতে কয়েক ভাগে ভাগ হয়ে জিম্বাবুয়ে দল ঢাকায় পৌঁছেছে। আজ শনিবার শ্রীলংকা দলের ক্রিকেটারদেরও পৌঁছানোর কথা। এদিকে, জিম্বাবুয়ে দল বিলম্বে পৌঁছানোর কারণে আজকের নির্ধারিত প্রস্তুতি ম্যাচটি বাতিল করা হয়েছে। তাতে কিছুটা ক্ষতি হয়েছে বাংলাদেশের চার ক্রিকেটার- এনামুল হক বিজয়, সাব্বির রহমান, আবুল হাসান রাজু আর মোহাম্মদ মিঠুনের। চারজনই ছিলেন বিসিবি একাদশে। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তাদের সুযোগ ছিল নিজেদের ঝালিয়ে নেয়ার।
টাইগাররা অবশ্য নিয়ম করেই কঠোর অনুশীলনে ঘাম ঝরাচ্ছে। গত ২৭ ডিসেম্বর থেকে শুরম্ন হয়ে বুধবার পর্যন্ত্ম ব্যস্ত্ম ছিল স্বাগতিকরা। ঘরের মাঠে আট বছর পর ত্রিদেশীয় সিরিজ। তাতে ফেভারিটের তকমা নিয়ে নামবে মাশরাফির দল। সেই লক্ষ্যেই মিরপুরে চলছে জোর প্রস্তুতি। আজ দুপুর থেকে সেই অনুশীলনের ধার বাড়ছে আরও। প্রথমে সপ্তাহ খানেক ফিটনেস অনুশীলন, তারপর ব্যাট-বলের অনুশীলন চলছে নিয়মিতই। খেলা হবে দিবা-রাত্রিতে। তবে পৌষ-মাঘের হিমশীতল আবহাওয়া কনকনে বাতাস ও ঘন কুয়াশা- এসবের সঙ্গে মানিয়ে নিতেই শেষ কয়েকদিন অনুশীলন হয়েছে দুপুর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত্ম।
টিম ম্যানেজমেন্টের মতে, আবহাওয়া, কুয়াশা ও শিবিরস্নাত আউটফিল্ড, সবকিছু মাথায় রেখেই প্রস্তুতি নেয়ার চেষ্টা চলছে। যদিও খেলা শুরম্ন হবে দুপুর ১২টায়। কিন্তু এক ইনিংস শেষেই শীত জেঁকে বসে। সন্ধ্যা নামতেই ঘন কুয়াশা পড়তে থাকে। সন্ধ্যার পর কুয়াশা আর শিশিরে ভিজে যায় আউট ফিল্ড। তাতে স্পিনারদের বল গ্রিপিংয়ে যেমন সমস্যা হয়, তেমনি ব্যাটসম্যানদেরও কিছু অস্বস্ত্মির মধ্যে পড়তে হয়। বল স্কিড করে, প্রত্যাশার চেয়ে বল জোরে চলে আসে, এটাও একটা প্রতিবন্ধকতা, এসব মাথায় রেখেই কয়েকদিন সন্ধ্যায় অনুশীলন চলেছে।
এবারের ত্রিদেশীয় ক্রিকেটে সাফল্য জরম্নরি টাইগারদের। প্রথম কারণ, দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে শেষ সিরিজের বিপর্যয় কাটিয়ে আবার আলোয় ফেরা। দ্বিতীয়ত ঘরের মাঠে ওয়ানডেতে সাফল্য অব্যাহত রাখা। আর সর্বোপরি কোচ চন্ডিকা হাথুরম্নসিংহেকে একটা বড় জবাব দেয়া- সব মিলিয়ে একটা অন্যরকম চ্যালেঞ্জ টাইগারদের সামনে।
 
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin
close