পরবর্তী সংবাদ
সংবাদ সংক্ষেপঅনলাইনভিত্তিক
ফুড ডেলিভারি
য়বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ডেস্ক

ঐঁহমৎুঘধশর.পড়স ু বাংলাদেশের সর্বপ্রথম অনলাইনভিত্তিক ফুড ডেলিভারি সিস্টেম যার মাধ্যমে খাদ্যপ্রেমীরা ঘরে বসেই অর্ডার করতে পারেন নিজ শহরের এক্সক্লুসিভ রেস্টুরেন্টগুলো থেকে দারম্নণ সব খাবার। নিত্যদিনের কর্মব্যস্ত্মতা এবং অন্যান্য কাজের মধ্যে পছন্দের খাবারগুলো খাদ্যপ্রেমীদের দ্বারপ্রান্ত্মে আমাদের সেবা পৌঁছিয়ে দেয়ার লক্ষ্যে ঐঁহমৎুঘধশর-র উদ্যমী দল অনবরত কাজ করে যাচ্ছে।
শুধু তাই নয়, ঐঁহমৎুঘধশর.পড়স হচ্ছে শতভাগ দেশীয় প্রতিষ্ঠান, যেটা কাস্টমারদের সামনে বিভিন্ন রেস্টুরেন্টের দেশি-বিদেশি খাবারের তালিকাগুলো তুলে ধরে এবং সময়ানুযায়ী সঠিক খাবারের নির্বাচনের ক্ষেত্রে সহায়তা প্রদান করে। এক কথায়, সেরা রেস্টুরেন্টগুলোর খাবার সম্পর্কিত যাবতীয় অনুসন্ধানের সমাধান দিতে ঐঁহমৎুঘধশর রয়েছে সবচেয়ে এগিয়ে।
ফুড ডেলিভারি চ্যানেল হিসেবে, ২০১৩ সাল থেকে ঐঁহমৎুঘধশর.পড়স একাগ্রভাবে তার মূল্যবান কাস্টমারদের সেবা প্রদান করে যাচ্ছে এবং এই সুদীর্ঘ সময়ে ঐঁহমৎুঘধশর-র তালিকাভুক্ত হয়েছে বিভিন্ন শহরের ৯০০-এরও বেশি রেস্টুরেন্ট। তালিকাভুক্ত রেস্টুরেন্টগুলো সর্বোচ্চ পরিচ্ছন্নতা বজায় রেখে এবং স্বাস্থ্যসম্মত উপায়ে খাদ্যপ্রেমীদের জন্য প্রস্তুত করছে কাঙ্ক্ষিত খাবারটি, যেগুলো আমাদের সুদক্ষ ডেলিভারি টিম দ্বারা পৌঁছে যাচ্ছে প্রিয় কাস্টমাদের বাসা, অফিস বা অন্য কোনো নির্ধারিত স্থানে।
স্বাস্থ্যসম্মত ও পরিচ্ছন্নতাকে অগ্রাধিকার দিয়ে, সময়ানুবর্তিতার সঙ্গে তালিকাভুক্ত রেস্ত্মোরাঁগুলো থেকে পছন্দের খাবারগুলো আমাদের খাদ্যপ্রেমীদের দোর গোড়ায় পৌঁছিয়ে দেয়াই ঐঁহমৎুঘধশর-র প্রধান লক্ষ্য।

পিকাবোর ই-কমার্সে
রেভ অ্যান্টিভাইরাস
য়বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ডেস্ক


অনলাইন মার্কেটপেস্নস পিকাবো.কমের ই-কমার্সে যুক্ত থেকে কাজ করছে বাংলাদেশি অ্যান্টিভাইরাস উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান রেভ সিস্টেম। রেভ সিস্টেম উৎপাদিত অ্যান্টিভাইরাস পণ্যটি পিকাবো.কমের বেশকিছু পণ্যের সাথে ফ্রি পাওয়া যাচ্ছে। যেমন এসার ও আসুস ব্র্যান্ডের বেশকিছু ল্যাপটপ এবং ডেস্কটপের সাথে রেভ অ্যান্টিভাইরাস ফ্রি পাওয়া যাচ্ছে। পিকাবো.কম বাংলাদেশের অনলাইনমার্কেটপেস্নসে একটি ভালো অবস্থান নিয়েছে। এই মার্কেটপেস্নসে ক্রেতারা বিভিন্ন ধরনের ইলেকট্রনিক্স পণ্য সহজে কিনতে পারছে। এছাড়া লাইফস্টাইল বিষয়ক পণ্য, মোবাইল পণ্য, বিউটি পণ্য সহ নানারকম পণ্য পাওয়া যাচ্ছে এই মার্কেটপেস্নসে। অপরদিকে রেভ সিস্টেম বাংলাদেশি মাল্টিন্যাশনাল কোম্পানী হিসেবে বেশ ভালো করছে। রেভ অ্যান্টিভাইরাসের জনপ্রিয়তা সময়ের সাথে সাথে বেশ বাড়ছে।

শাওমির বিশেষ
সাফল্য
য়বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ডেস্ক


পাঁচ বছরের বেশি সময় ধরে ভারতের স্মার্টফোন বাজারে একক আধিপত্য ধরে রেখেছে স্যামসাং। দক্ষিণ কোরিয়াভিত্তিক প্রতিষ্ঠানটিকে হটিয়ে দেশটির স্মার্টফোন বাজারে দখল নিতে চায় শাওমি। এরই অংশ হিসেবে চীনভিত্তিক শাওমি ভারতে স্টোরের সংখ্যা বাড়ানোর পরিকল্পনা নিয়েছে। খবর রয়টার্স।
প্রায় তিন বছর হলো ভারতের স্মার্টফোন বাজারে প্রবেশ করেছে শাওমি। দামে সস্ত্মা ও উন্নত ফিচারের কারণে দেশটির গ্রাহক টানতে সফল হয় শাওমি। স্যামসাংকে টপকিয়ে ভারতের শীর্ষ স্মার্টফোন বিক্রেতা হতে চেষ্টা করছে চীনা প্রতিষ্ঠানটি। শাওমি ইন্ডিয়ার নির্বাহী ব্যবস্থাপক মানু কুমার জৈন এক সাক্ষাৎকারে বলেন, যদি ২০১৭ ও ২০১৮ সালের দিকে তাকান, তাহলে আপনারা দেখতে পাবেন অফলাইনের প্রতি আমরা বেশি জোর দিচ্ছি। আমাদের কৌশলের বড় ধরনের পরিবর্তন এটি। শাওমি কার্যক্রম শুরম্নর পর থেকে ব্যবসা জোরদারে অনলাইনে ডিভাইস বিক্রি করে আসছে।
গত বছরের মে মাসে অ্যাপল স্টোরের আদলে গড়া বিক্রয় ও গ্রাহক অভিজ্ঞতা কেন্দ্র 'মি হোম' চালু করে শাওমি। ভারতের এ ধরনের ১৭টি স্টোর রয়েছে প্রতিষ্ঠানটির।
মানু কুমার জৈন জানান, ২০১৯ সালের মাঝামাঝি সময়ে ভারতে ১০০টির মতো 'মি হোম' স্টোর চালুর পরিকল্পনা রয়েছে। শাওমির অন্যান্য পণ্য বিক্রির জন্য দেশটিতে আরও কিছু স্টোর চালুর কথা জানান তিনি। মানু কুমার জৈন বলেন, চলতি বছর নতুন মডেলের ছয় থেকে আটটি স্মার্টফোন উন্মোচন করবে শাওমি। গত বছরের চেয়ে চলতি বছর বেশিসংখ্যক স্মার্টফোন বাজারে আনবে প্রতিষ্ঠানটি।
 
পরবর্তী সংবাদ
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin
close