বাবা-মায়ের জন্য ভালোবাসাতানিয়া তন্বী বাবা-মাকে ভালোবাসতে আমাদের দিন লাগে না, এটা যেমন সত্যি, তেমনি এটাও সত্যি যে, সারাজীবন আমাদের যত্ন নিতে নিতে কাটিয়ে দেয়া মানুষটিকে জড়িয়ে ধরে 'ভালোবাসি'ও বলা হয় না। মায়ের ভালোবাসা পেয়ে আমরা এমনই অভ্যস্ত্ম থাকি যে, তাকে আলাদা করে আর বলা হয় না তিনি আমাদের জীবনে কতটা গুরম্নত্বপূর্ণ। তার জন্য তৈরি রাখুন ভালোবাসার বিশেষ চমক। আর জানিয়ে দিন কতটা ভালোবাসেন বাবাকে!
মা-বাবার জন্য ভিন্ন কিছু করম্নন। বাজার থেকে কিনে উপহার তো সবাই দেবে। আপনি না হয় ব্যস্ত্ম জীবন থেকে কিছু সময় বের করে নিজের হাতেই কিছু তৈরি করম্নন মায়ের জন্য। আমরা আপনাকে দিচ্ছি কিছু অন্যরকম আইডিয়া-
ছবির ছন্দ : মায়ের পুরনো কোনো ছবি নিন, যেখানে আছে মা আর তার মা মানে আপনার নানি। একই পোজে আপনার আর আপনার মায়ের একটা ছবি তুলুন। হোক তা সাদা-কালো। এক দেয়ালে তিন প্রজন্মকে পাশাপাশি রাখুন। একইভাবে দাদা-বাবা আর ছেলের ছবি। দেখুন তাদের মুখ কেমন আনন্দে উজ্জ্বল হয়ে ওঠে।
গল্প বলা ডায়েরি : এমন একটা ডায়েরি করম্নন যার পাতায় পাতায় তুলে আনুন মা-বাবা আর আপনার স্মৃতি। ছোটবেলার ছবিগুলো যোগ করম্নন। তার সঙ্গে যোগ করম্নণ কিছু কবিতা কিংবা এমন কথা যা বলা হয়নি। যোগ করম্নন কিছু 'ধন্যবাদ', সেটাও নিশ্চয়ই বলা বাকি।
ম্যাজিক মগ : অনলাইন কেনাকাটায় ম্যাজিক মগ এখন সবার পরিচিতই বলা চলে। কালো রঙের হবে মগটি। কিন্তু আসলে আপনার আর বাবা-মায়ের ছবি লুকানো আছে মগের গায়ে। মা-বাবাকে নিয়েই যত্ন করে চা বা কফি বানিয়ে পরিবেশন করম্নন, তাদের সামনেই গরম তরল ঢালার সঙ্গে সঙ্গে ফুটে উঠবে ছবিটি। ভালোবাসা ভরা দুচোখ বিস্ময়ে ভরে যাবে তাদের।
ফটো বস্নাঙ্কেট : আপনার আর বাবা-মায়ের স্মৃতিবিজড়িত ছবিগুলো স্ক্রিনপ্রিন্ট করে বসিয়ে নিতে পারেন কাপড়ে। তারপর কাপড়টি দিয়ে তৈরি করম্নন বস্নাঙ্কেট। সঙ্গে জুড়ে দিতে পারেন মিষ্টি কোনো কবিতা।
কৃতজ্ঞতা দেয়াল : বাসার একটা দেয়াল নির্বাচন করম্নন। বড় একটা বোর্ড লাগান। তাতে বসান হাতে বানানো কার্ড। কার্ডে লিখুন মায়ের গুণগুলোর কথা, তাকে কতটা ভালোবাসেন তার কথা। এ ছাড়া বাবার পরিশ্রম আর তার আত্মত্যাগের কথা। ব্যক্তি হিসেবে তারা কতটা সুন্দর সেটা তুলে ধরম্নন। এই দেয়ালের আরেকটা মজা হলো, সারা বছরই যোগ করতে পারবেন নতুন কার্ড, নতুন ছবি।
বাবা-মায়েরা ভালোবাসার বিনিময়ে চান না কোনো কিছুই। আপনি যে তার জন্য ভেবেছেন, এতেই তিনি খুশি হবেন। তাই একটু সময় নিয়ে ভাবুন, আন্ত্মরিকতা দিয়ে ছোট্ট কিছুই না হয় করলেন!
 
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin
close