পরবর্তী সংবাদ
ঝলমলে হোক আপনার চুলরঙ বেরঙ ডেস্ক ফ্যাশন-সচেতন যে কেউ চুলে রং করাতে পারেন। চুলের রঙের কারণে চেহারার পুরো আদলই বদলে যায়। তবে অবশ্যই লক্ষ্য রাখতে হবে, যার চুলে রং করা হচ্ছে তার বয়স, গায়ের রং ও ব্যক্তিত্বের সঙ্গে রংটা মানাচ্ছে কিনা।
কিশোরীদের চপলতার সঙ্গে মিল রেখে চুলের জন্য বর্ণিল আর গাঢ় রং বেছে নেয়া যেতে পারে। আর এই বয়সের সঙ্গে খুব বেশি মানায় লাল, সবুজ, নীল, মেরম্নন, উজ্জ্বল সোনালি ও বাদামি রং। চাইলে সব কালো চুলের মধ্যে এক গোছা চুল নিয়ে একেক রং করা যায়। এতে দেখতে কিছুটা ভিন্নতা লাগে।
কৈশোর ছাপিয়ে তরম্নণী হয়ে উঠলে অনেকেই চান খুব উজ্জ্বল রঙের পরিবর্তে কিছুটা হালকা রং। এ ক্ষেত্রে পছন্দের তালিকায় বাদামি, ছাই, বস্নন্ড, কপার ও মেহগনি রং রাখা যেতে পারে। আবার চাইলে পুরো চুলেই হাইলাইট করতে পারেন। প্রৌঢ় হলেও বা কী যায় আসে! চুলে রঙের ছোঁয়া দিতে নেই বাধা। তবে এই সময়ে যেহেতু অনেকের চুলেই পাক ধরে, তাই চুলে রং করার সময় কিছুটা ভেবে নেয়া যেতে পারে। এই বয়সে বাদামি, সোনালি, হালকা মেরম্নন বা মেহেদির রং লাগিয়ে নিতে পারেন। আর যেহেতু কিছুদিন বাদেই চুল বড় হয়, তাই মাস অন্ত্মর চুলে আবার রং করতে হয়। নয় তো পাকা চুল বেরিয়ে যেতে পারে। এই বয়সে এমন রং ব্যবহার করা যেতে পারে, যা রাতের অনুষ্ঠানেও ভিন্নরকম দেখায়।

 
পরবর্তী সংবাদ
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin
close