পরবর্তী সংবাদ
চা গবেষণায় বাংলাদেশ ও চীন সমঝোতা চুক্তিকৃষি ও সম্ভাবনা ডেস্ক চীনের মতো বাংলাদেশেও চা থেকে চকলেট, বিভিন্ন পানীয়, কেক, বিস্কুট ইত্যাদি প্রস্ত্মুত করা হবে। এ লক্ষ্যে বাংলাদেশ চা গবেষণা ইনস্টিটিউটের সঙ্গে চাইনিজ একাডেমি অব এগ্রিকালচারাল সায়েন্সের মধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে। ফলে একসঙ্গে চা নিয়ে গবেষণা করবে বাংলাদেশ ও চীন। গত মঙ্গলবার সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে এক সমঝোতা দুই দেশের মধ্যে এই চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। এতে বাংলাদেশ চা গবেষণা ইনস্টিটিউটের পরিচালক মোহাম্মদ আলী ও টি রিসার্চ ইনস্টিটিউট, চাইনিজ একাডেমি অব এগ্রিকালচারাল সায়েন্সের পরিচালক ইয়াজুন ইয়াং স্বাক্ষর করেন। এ সময় বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ ও বাণিজ্য সচিব শুভাশীষ বসু, বাংলাদেশ চা বোর্ডের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মো. সাফিনুল ইসলাম, এনডিসি উপস্থিত ছিলেন। সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের পর বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, আজ একটি নতুন দিগন্ত্ম উন্মোচিত হলো। সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর হওয়ায় দেশের চা গবেষকরা আরও সমৃদ্ধশালী হবেন। অনুষ্ঠানে জানানো হয়, পৃথিবীর সবচেয়ে বেশি জাতের এবং ধরনের চা চীনে প্রস্ত্মুত হয়ে থাকে। ফলে এ চুক্তির মাধ্যমে বাংলাদেশের চা উৎপাদনের ক্ষেত্রে ইতিবাচক পরিবর্তন ঘটবে। এতে অভ্যন্ত্মরীণ চা বাজারের সম্প্রসারণ ঘটবে এবং বিদেশে চা জাত পণ্যের রপ্তানির সুযোগ তৈরি হবে। এ ছাড়া সংকর জাতের চা গাছ উদ্ভাবন, চায়ের পোকামাকড় দমনের নতুন পদ্ধতি উদ্ভাবন, চা তৈরি, চায়ের প্রাণ রসায়ন, চায়ের গুণগতমান উন্নয়ন, আধুনিকায়ন সম্ভব হবে।

 
পরবর্তী সংবাদ
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin
close