ঈদের দিনে মজার খাবারউৎসব মানেই মজাদার সব খাবারের আয়োজন। ঈদের দিনের মজাদার খাবারের আয়োজনে থাকা চাই নতুন নতুন সব রেসিপি। আর রমজানের ঈদ মানেই বাহারি স্বাদের রসনা। ভোজনবিলাসীদের জন্য আজ থাকছে বেশ কিছু মজাদার খাবারের রেসিপি। ঈদের দিন কিংবা তারপর যেকোনো দিন আপনি বাসায় তৈরি করতে পারেন চমৎকার এই রেসিপিগুলো। রেসিপি পাঠিয়েছেন সামিয়া আফরোজম্যাকারনি সালাদ

উপকরণ : ম্যাকারনি ২৫০ গ্রাম, সেদ্ধ চিংড়ি মাছ ১০০ গ্রাম, সেদ্ধ ডিম ২টি, সেদ্ধ মুরগির মাংস (লবণ ও আদাবাটা দিয়ে), আধা কাপ, গাজর ৫০ গ্রাম, কাঁচা পেঁপে ৫০ গ্রাম, আলু ১টি, বরবটি ৫০ গ্রাম (সব সবজি লবণ-পানি দিয়ে হালকা সেদ্ধ করা), শসা ১ কাপ, টমেটো ১টি, কাঁচা মরিচ মিহি কুচি ২টি, পেঁয়াজের কুচি ১ টেবিল-চামচ, গোলমরিচ গুঁড়া সিকি চামচ, লেবুর রস ২ টেবিল-চামচ, মেয়োনেজ ৪ টেবিল-চামচ, চিনি ও লবণ স্বাদমতো।
প্রণালি : ম্যাকারনি ফুটন্ত্ম পানিতে ১ টেবিল-চামচ তেল ও পরিমাণমতো লবণ দিয়ে সেদ্ধ করে পানি ঝরাতে হবে। সব উপকরণ একসঙ্গে মিশিয়ে ফ্রিজে রেখে ঠা-া ঠা-া পরিবেশন করা যায়।

শাহি কোরমা

উপকরণ : মুরগি ৮০০ গ্রাম (৮ টুকরা), আদাবাটা ২ টেবিল-চামচ, রসুনবাটা ১ চা-চামচ, পেঁয়াজবাটা ৩ টেবিল-চামচ, কাজুবাদাম বাটা ১ টেবিল-চামচ, এলাচ ৪টি, দারম্নচিনি ৪ টুকরা, মিষ্টি দই আধা কাপ, লেবুর রস ১ টেবিল-চামচ, চিনি ১ চা-চামচ, ময়দা ১ টেবিল-চামচ, ফেটানো ডিম অর্ধেকটা, ক্রিম আধা কাপ, কাঁচা মরিচ ৪টি, আমন্ড ও কিশমিশ ১ চা-চামচ, লবণ স্বাদমতো, তেল বা ঘি ১ কাপ, তরল দুধ ১ কাপ।
প্রণালি : মুরগি ধুয়ে পরিষ্কার করে ভালোভাবে পানি ঝরিয়ে নিতে হবে। আদা, রসুন, লবণ, ময়দা ও ডিম দিয়ে মাংস মাখিয়ে রাখতে হবে ১০ মিনিট। সসপ্যানে আধা কাপ ঘি দিয়ে মাংসের টুকরাগুলো হালকা বাদামি করে ভেজে তুলে রাখতে হবে। সসপ্যানে আরও কিছু ঘি দিয়ে তাতে পেঁয়াজবাটা কাজুবাদাম বাটা, মিষ্টি দই, দারম্নচিনি, এলাচ, আদা, রসুন ও লবণ দিয়ে ভালো করে কষিয়ে নিতে হবে। মসলা কষানো হলে তাতে ভাজা মুরগির মাংস দিয়ে একটু নাড়াচাড়া করে দুধ দিতে হবে। ভালো করে নেড়ে সব মসলা মিশিয়ে ঢেকে রাখতে হবে ১০ মিনিট। মাংস সেদ্ধ হলে লেবুর রস, চিনি, কাঁচা মরিচ ও ক্রিম দিয়ে মিশিয়ে নামিয়ে নিতে হবে। বাদাম কুচি, কিশমিশ ও পেঁয়াজ বেরেস্ত্মা দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করা যায়।

কলিজার দোপিঁয়াজি

উপকরণ : খাসির কলিজা ৫০০ গ্রাম, আলু ৪টি (মাঝারি), পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, পেঁয়াজবাটা ২ টেবিল-চামচ, আদাবাটা ১ চা-চামচ, রসুনবাটা ১ চা-চামচ, হলুদের গুঁড়া ১ চা-চামচ, মরিচ গুঁড়া ১ চা-চামচ, এলাচ ৪টি (থেঁতো করা), দারম্নচিনি ৩ টুকরা, তেজপাতা ২টি, দুধ আধা কাপ, ভাজা জিরার গুঁড়া ১ চা-চামচ, কাঁচা মরিচ ৪-৫টি, লবণ স্বাদমতো, তেল প্রয়োজনমতো।
প্রণালি : প্রথমে কলিজা ডুমো করে কেটে ভালো করে ধুয়ে দুধ, লবণ, আদা-রসুনবাটা দিয়ে মাখিয়ে রাখতে হবে ১০ মিনিট। আলু ডুমো করে কেটে হলুদ ও লবণ মাখিয়ে লাল করে ভেজে তুলে রাখতে হবে। ১ কাপ পেঁয়াজ বেরেস্ত্মা করে নিতে হবে। এবার ফ্রাইপ্যানে তেল দিয়ে ভাজা জিরার গুঁড়া ছাড়া বাকি সব মসলা দিয়ে ভালো করে কষিয়ে নিতে হবে। মসলা কষানো হলে দুধসহ কলিজা মসলায় দিয়ে একটু নাড়াচাড়া করে ঢেকে দিতে হবে পাঁচ মিনিট। সেদ্ধ হলে পেঁয়াজ বেরেস্ত্মা দিতে হবে।

বোরহানি

উপকরণ : দই ১ কেজি (৫০০ গ্রাম টক দই ও ৫০০ গ্রাম মিষ্টি দই), সরিষা গুঁড়া ১ টেবিল-চামচ, কাঁচা মরিচবাটা ১ চা-চামচ, বিট লবণ ১ টেবিল-চামচ, চিনি ১ চা-চামচ, ধনে গুঁড়া ১ চা-চামচ, জিরা গুঁড়া ১ চা-চামচ, সাদা গোল মরিচ গুঁড়া আধা চা-চামচ, পুদিনাপাতা বাটা ১ টেবিল-চামচ, লবণ স্বাদমতো, পানি ১ কাপ।

প্রণালি : প্রথমে দই, সরিষা গুঁড়া, পুদিনাপাতা বাটা ও পানি একসঙ্গে মিশিয়ে পাতলা কাপড় দিয়ে ছেঁকে নিতে হবে। তারপর বাকি সব উপকরণ মিশিয়ে বেস্নন্ডারে মসৃণ করে ফেটে নিতে হবে। স্বাদমতো চিনি ও লবণ দিয়ে ফ্রিজে রেখে ঠা-া করে পরিবেশন করা যায় মজাদার বোরহানি।

মোরগ পোলাও

উপকরণ : হাড়সহ মোরগের মাংস (বড় টুকরা করা) ২ কেজি, গরম ও তরল দুধ ২ কাপ, আদাবাটা ১ টেবিল-চামচ, রসুনবাটা ১ চা-চামচ, কাঁচা মরিচবাটা ১ টেবিল-চামচ, কাঁচা মরিচ (আস্ত্ম) ৫-৬টি, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, গরম মসলার গুঁড়া ১ চা-চামচ, লবণ স্বাদমতো, তেল ১ কাপ, টক দই ৪ টেবিল-চামচ।
মসলা ও মোরগের স্টক : পানি দেড় লিটার, মোরগের হাড় ৪-৫ টুকরা, শাহি জিরা আধা চা-চামচ, এলাচ (থেঁতো করা) ৪টি, লবঙ্গ ১০-১২টি, গোলমরিচ ১২-১৪টি, তেজপাতা ২টি, দারম্নচিনি ৪ টুকরা। সব উপকরণ জ্বাল দিয়ে পানি দেড় লিটার থেকে ১ লিটার করে ছেঁকে নিতে হবে।
পোলাও : পোলাওর চাল ৫০০ গ্রাম, পেঁয়াজ বেরেস্ত্মা ১ কাপ, গুঁড়া দুধ ১ কাপ, কিশমিশ ও বাদামের কুচি ১ টেবিল-চামচ, আলুবোখারা ৭-৮টি, ঘি ১ কাপ, লবণ স্বাদমতো, মাওয়া (গুঁড়া করা) আধা কাপ।
প্রণালি : মাংস ধুয়ে দই ও বাটা মসলা মাখিয়ে ১ ঘণ্টা মেরিনেট করে রাখতে হবে। সসপ্যানে তেল দিয়ে পেঁয়াজের কুচি একটু ভেজে মাখানো মাংস দিয়ে ভালো করে কষিয়ে সেদ্ধ করতে হবে এবং অন্য একটি পাত্রে তুলে রাখতে হবে।
চাল ধুয়ে পানি ঝরাতে হবে। মাংস রান্না করার সসপ্যানে মুরগির স্টক দিয়ে তাতে গুঁড়া দুধ, গরম মসলা ও চাল দিয়ে নাড়তে হবে, যেন সব দিকের চাল সমান তাপ পায়। চাল ফুটে উঠলে কিশমিশ, বাদাম কুচি, আলুবোখারা, লবণ, পেঁয়াজ বেরেস্ত্মা দিয়ে ঢেকে দমে রাখতে হবে। ১০ মিনিট পর ঢাকনা খুলে রান্না করা মাংস সাজিয়ে নিচ থেকে কিছু পোলাও ও মাওয়া দিয়ে ঢেকে আরও ১৫ মিনিট দমে রাখতে হবে। সবশেষে সার্ভিং ডিশে সাজিয়ে পরিবেশন করা যায় মজাদার মোরগ পোলাও।
 
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin
close