মিয়ানমার সরকার জাতিসংঘের উদ্বেগকে গুরুত্ব দিচ্ছে নাযাযাদি ডেস্ক রোহিঙ্গা অধ্যুষিত রাখাইন রাজ্যে নতুন করে কারফিউ জারি করেছে মিয়ানমার সরকার। সেখানে এরই মধ্যে আরও অনেক সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। শনিবার দেশটির পক্ষ থেকে এমনটি জানানো হয়। রাজ্যটিতে সামরিক উপস্থিতি বাড়ানোর পরিপ্রেক্ষিতে জাতিসংঘ উদ্বেগ প্রকাশ করলে, নতুন এই ঘোষণা আসে। রাখাইনে ব্যাপকহারে অধিকার লঙ্ঘনে সরকারকে অভিযুক্ত করে আসছে জাতিসংঘ। সংবাদসূত্র : বিবিসি
রাখাইনের নিরাপত্তা আরও বাড়াতে সেখানে গত সপ্তাহে একটি 'আর্মি ব্যাটালিয়ন' পাঠানো হয়, শুক্রবার এমন খবরের সমালোচনা করে জাতিসংঘের বিশেষ দূত ইয়াংঘি লি। তখন তিনি একে গভীর উদ্বেগের কারণ বলে অভিহিত করেন। এরপরই মিয়ানমার এমন পদক্ষেপ নিয়েছে।
গত বছরের অক্টোবর থেকে সংখ্যালঘু মুসলমান সম্প্রদায় রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতনের খড়্গ নেমে আসে। পুলিশ পোস্টে হামলার অভিযোগে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে অভিযান চালানো হয়। কয়েক মাস ধরে চলে এই রক্তাক্ত অভিযান। এতে ৭০ হাজারের বেশি রোহিঙ্গা সীমান্ত অতিক্রম করে পালাচ্ছে, সঙ্গে করে নিয়ে যায় ধর্ষণ, খুন, অগি্নসংযোগের দুঃসহ স্মৃতি।
বৌদ্ধপ্রধান মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের নাগরিক হিসেবে স্বীকৃতি দেয়া হয় না। রোহিঙ্গারা 'বিশ্বের সবচেয়ে নিপীড়িত সংখ্যালঘু' বলে জাতিসংঘ স্বীকৃত। রাষ্ট্রহীন এই সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে সেনাবাহিনী নির্মূল অভিযান চালাচ্ছে বলে শঙ্কা জাতিসংঘের।
 
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin
close