বিপাকে কৃষকধামইরহাটে গোখাদ্যের চরম সংকটধামইরহাট (নওগাঁ) সংবাদদাতা নওগাঁর ধামইরহাট উপজেলায় তিনদিনের ভারী বর্ষণে পানিতে ডুবে গেছে খাল-বিল-ডোবাসহ এলাকার সব নিচু জমি। ফলে গো-খাদ্যের চরম সংকটে পড়েছে সাধারণ কৃষক ও খামারিরা।
জানা গেছে, উপজেলার ধামইরহাট, উমার, জাহানপুর, ইসবপুর, আড়ানগর, আলমপুর, আগ্রাদিগুন, খেলনা ৮টি ইউনিয়নের ছোট-বড় সব মিলিয়ে প্রায় ১০০টি খামার রয়েছে। এসব খামারে গরু মোটা তাজাকরণসহ দুগ্ধবতী গাভী পালন করা হয়। এছাড়া অনেক কৃষকই হালচাষসহ শখের বশে বাড়িতে দুচারটে গরু পালন করেন। এসব গরুর খাদ্য হিসেবে সাধারণত মানুষ ঘাস, ধানের খড়, ভূসি, ধানের কুড়া, খৈল ইত্যাদি ব্যবহার করে থাকে। শুষ্ক মৌসুমে মাঠের জমিতে এসব গরু চড়ে বেড়ায়।
বর্তমানে বর্ষা মৌসুমে জমিতে ধান লাগানো ও ছোট ছোট ডোবা, খাল-বিল পানিতে ভরে যাওয়ায় সবুজ ঘাসের অভাব দেখা দিয়েছে। এছাড়া বিগত ইরি মৌসুমে প্রচ- খরার কারণে কোনো কোনো এলাকায় ধান চাষ কম হয়েছে। ধামইরহাটের অনেকাংশে ধানের পরিবর্তে পাটসহ অন্যান্য ফসল চাষ করায় দেখা দিয়েছে ধানের খড়ের অভাব।
জগদল গ্রামের ইসমাইল জানান, গো-খাদ্যের দাম অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। দোকানিরা বলেন, আগের চেয়ে বেশি দাম পড়ে কেনায়। তাই বিক্রি করতে হয় বেশি দামে।
 
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
monobhubon
স্বদেশ -এর আরো সংবাদ
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin