পরবর্তী সংবাদ
সংবাদ সংক্ষেপসাপ্তাহিক মুনাফার
শীর্ষে পাট খাত
যাযাদি রিপোর্ট
ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সমাপ্ত সপ্তাহে মুনাফার শীর্ষে রয়েছে পাট খাত। আলোচ্য সপ্তাহে এ খাত ৫ দশমিক ১০ শতাংশ মুনাফা করেছে। ইন্টারন্যাশনাল লিজিং সিকিউরিটিজ লিমিটেড সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।
সূত্র মতে, সমাপ্ত সপ্তাহে মুনাফার দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ব্যাংক খাত। এ খাতে মুনাফা হয়েছে ১ দশমিক ৫০ শতাংশ। তালিকার তৃতীয় স্থানে রয়েছে সিমেন্ট খাত। এ খাতে মুনাফা হয়েছে ১ দশমিক ৫০ শতাংশ।
মুনাফার তালিকায় থাকা অন্যান্য খাতের মধ্যে রয়েছে- টেলিকম খাত ১ দশমিক ৪০ শতাংশ, প্রকৌশল খাত ১ শতাংশ, সাধারণ বিমা খাত শূন্য দশমিক ৯০ শতাংশ, আইটি খাত শূন্য দশমিক ২০ শতাংশ, জীবন বিমা খাত শূন্য দশমিক ১০ শতাংশ, চামড়া খাত শূন্য দশমিক ১০ শতাংশ এবং বিদ্যুৎ-জ্বালানি খাত শূন্য দশমিক ১০ শতাংশ মুনাফা করেছে।
এ ছাড়াও মুনাফা হারিয়েছে ১০ খাত। এগুলো হলো- ব্যাংক বহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠান খাত শূন্য দশমিক ১০ শতাংশ, ওষুধ খাত শূন্য দশমিক ২০ শতাংশ, বস্ত্র খাত শূন্য দশমিক ৮০ শতাংশ, খাদ্য-আনুষঙ্গিক খাত শূন্য দশমিক ৮০ শতাংশ, বিবিধ খাত শূন্য দশমিক ৯০ শতাংশ, সেবা খাত ১ দশমিক ৪০ শতাংশ, ভ্রমণ ও অবকাশ খাত ১ দশমিক ৭০ শতাংশ, সিরামিক খাত ১ দশমিক ৮০ শতাংশ, মিউচ্যুয়াল ফান্ড খাত ২ দশমিক ২০ শতাংশ এবং কাগজ খাত ৬ দশমিক ৬০ শতাংশ মুনাফা হারিয়েছে।

ওয়াইম্যাক্সের আইপিও
আবেদন ৫ সেপ্টেম্বর
যাযাদি রিপোর্ট
প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) অনুমোদন পাওয়া ওয়াইম্যাক্স ইলেক্ট্রোড লিমিটেড চূড়ান্ত সম্মতিপত্র পেয়েছে। আগামী ৫ সেপ্টেম্বর কোম্পানিটির আইপিও আবেদন শুরু হবে। যা আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলবে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
গত ৯ মে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ৬০৪তম সভায় ওয়াইম্যাক্স ইলেকট্রোডের আইপিও অনুমোদন দেয়া হয়। প্রায় তিন মাস পর গতকাল কোম্পানিটি চূড়ান্ত সম্মতিপত্র পেয়েছে।
আইপিওতে কোম্পানিটি ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে শেয়ার বিক্রি করবে। বাজারে দেড় কোটি শেয়ার বিক্রি করে কোম্পানিটি ১৫ কোটি টাকা উত্তোলন করবে।
কোম্পানি সূত্রে জানা গেছে, উত্তোলিত এ অর্থ দিয়ে মূলধনী যন্ত্রপাতি, প্রয়োজনীয় সরঞ্জামাদি, কাঁচামাল ক্রয় ও আইপিও খরচ মেটানো হবে।
৩০ জুন, ২০১৬ শেষে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয় ২ টাকা ৩ পয়সা। একই সময়ে শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয় ১৪ টাকা ৮৭ পয়সা।
কোম্পানিটির ইস্যু ম্যানেজার হিসেবে কাজ করছে এমটিবি ক্যাপিটাল লিমিটেড।

সাপ্তাহিক লেনদেনের
শীর্ষে ব্যাংক খাত
যাযাদি রিপোর্ট
ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সাপ্তাহিক লেনদেনের শীর্ষে রয়েছে ব্যাংক খাত। আলোচ্য সপ্তাহে ডিএসইর মোট লেনদেনের ২৮ দশমিক ৬০ শতাংশ ছিল এ খাতের। ইন্টারন্যাশনাল লিজিং সিকিউরিটিজ লিমিটেড সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। সূত্র মতে, সাপ্তাহিক লেনদেনের তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে বস্ত্র খাত। ডিএসইর মোট লেনদেনের ১৪ দশমিক ৫০ শতাংশ ছিল এ খাতের দখলে। তালিকার তৃতীয় স্থানে রয়েছে প্রকৌশল খাত। লেনদেনে ১৩ দশমিক ৫০ শতাংশ দখল ছিল এ খাতের।
লেনদেনের শীর্ষে থাকা অন্য খাতগুলো হলো- ব্যাংকবহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠান খাত ৭ দশমিক ১০ শতাংশ, ওষুধ-রসায়ন খাত ৭ শতাংশ, বিদ্যুৎ-জ্বালানি খাত ৫ দশমিক ৮০ শতাংশ, মিউচ্যুয়াল ফান্ড খাত ৪ শতাংশ, খাদ্য ও আনুষঙ্গিক খাত ৩ দশমিক ৪০ শতাংশ, বিবিধ খাত ২ দশমিক ৭০ শতাংশ, সিমেন্ট খাত ২ দশমিক ৩০ শতাংশ, সেবা খাত ২ দশমিক ১০ শতাংশ, আইটি খাত ২ শতাংশ, চামড়া খাত ২ শতাংশ, টেলিকম খাত ১ দশমিক ৪০ শতাংশ, সাধারণ বিমা খাত ১ শতাংশ, ভ্রমণ ও অবকাশ খাত শূন্য দশমিক ৮০ শতাংশ, সিরামিক খাত শূন্য দশমিক ৬০ শতাংশ, পাট খাত শূন্য দশমিক ৫০ শতাংশ, জীবন বিমা খাত শূন্য দশমিক ৫০ শতাংশ এবং কাগজ খাত শূন্য দশমিক ৩০ শতাংশ।
 
পরবর্তী সংবাদ
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin
close