জামায়াতের হরতাল শুরম্নর ৪ ঘণ্টা পর বিএনপির সমর্থন খালেদার পরোয়ানা: কাল বিএনপির কর্মসূচিযাযাদি রিপোর্ট বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম-মহাসচিব রম্নহুল কবির রিজভী বৃহস্পতিবার রাজধানীর নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বক্তৃতা করেন -বিডিনিউজশীর্ষ নেতাদের গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে জামায়াতে ইসলামীর ডাকা সকাল-সন্ধ্যা হরতাল শুরম্নর চার ঘণ্টা পর ওই কর্মসূচিতে সমর্থন জানিয়েছে তাদের জোটসঙ্গী বিএনপি।
বৃহস্পতিবার সকালে এক 'জরম্নরি সংবাদ সম্মেলনে' বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম-মহাসচিব রম্নহুল কবির রিজভী তার দলের এই সিদ্ধান্ত্মের কথা জানান।
তিনি বলেন, 'আজকে জামায়াতে ইসলামী বাংলাদেশের ডাকা যে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল, এই হরতাল তারা ডেকেছে তাদের নেতাদের মুক্তির দাবিতে; তাদের অন্যায়ভাবে গ্রেপ্তার করে যে রিমান্ডে নেয়া হলো, তার প্রতিবাদে। আমি দলের পক্ষ থেকে জানাতে চাই, জামায়াতে ইসলামীর এই সকাল-সন্ধ্যা হরতালকে সমর্থন জানাচ্ছে বিএনপি।'
নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সকাল ১০টায় রিজভী যখন জামায়াতের হরতালে সমর্থন জানিয়ে ব্রিফ করছিলেন, তখন ঢাকার আর সব জায়গার মতো ওই সড়কেও যান চলাচল ছিল স্বাভাবিক।
সকাল ৬টা থেকে ঘোষিত এই হরতালের মধ্যে রাজধানীতে জামায়াত নেতাকর্মীদের তেমন কোনো তৎপরতার খবর পাওয়া যায়নি। মোড়ে মোড়ে পুলিশের বাড়তি উপস্থিতি ছাড়া হরতালের তেমন কোনো নমুনাও চোখে পড়েনি।
একাত্তরে বাংলাদেশের স্বাধীনতার বিরোধিতাকারী দল জামায়াতে ইসলামীর বর্তমান আমির মকবুল আহমাদ, নায়েবে আমির মিয়া গোলাম পরওয়ার এবং সেক্রেটারি জেনারেল শফিকুর রহমানসহ আটজনকে গত সোমবার গ্রেপ্তারের পর মঙ্গলবার ৫ দিনের রিমান্ডে পাঠানো হয়।
পুলিশ বলছে, 'রাজনৈতিক অস্থিরতা সৃষ্টির পাঁয়তারার লক্ষ্যে গোপন বৈঠক' করার সময় ঢাকার উত্তরার একটি বাড়ি থেকে ওই জামায়াত নেতাদের আটক করা হয়।
অন্যদিকে 'মিথ্যা মামলা' জামায়াতের শীর্ষ নেতাদের রিমান্ডে পাঠানোর প্রতিবাদে এবং তাদের মুক্তির দাবিতে গত মঙ্গলবার দলটির ভারপ্রাপ্ত আমির মুজিবুর রহমান হরতালের কর্মসূচি ঘোষণা করেন।
ওই হরতালে সমর্থন দিয়ে বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলনে রিজভী বলেন, 'আমি গতকালকে বলেছিলাম যে, আমরা সমর্থন জানাব কি জানাবো না- তার কোনো নির্দেশনা নেই। এখন আমার কাছে নির্দেশনা আছে যে, দলের পক্ষ থেকে তাদের (জামায়াত) হরতালকে পূর্ণ সমর্থন জানানো হচ্ছে।'
বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট জামায়াতের এ কর্মসূচিতে সমর্থন দিচ্ছে কিনা প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, 'সেটা ২০ দলীয় জোটের ব্যাপার। বিএনপি জামায়াতের হরতালকে সমর্থন দিচ্ছে।'
রিজভী বলেন, বিরোধী রাজনৈতিক শক্তির কোনো কর্মসূচি যাতে না হয়, সে জন্য 'ভয় দেখাতে' জামায়াত নেতাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
ওই মামলাকে 'পরিকল্পিত' আখ্যায়িত করে তিনি বলেন, 'উত্তরার বাসা থেকে হঠাৎ গ্রেপ্তার করা হলো, অথচ মামলা দেয়া হয়েছে কদমতলী থানায়। এ থেকে বোঝা যায়, এটা পরিকল্পিতভাবে করা হয়েছে। উদ্দেশ্য একটাই, বিরোধী রাজনৈতিক দল ও ২০ দলীয় জোট যাতে কোনো কর্মসূচি পালন করতে না পারে।'
অন্যদের মধ্যে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা খায়রম্নল কবির খোকন, সানাউলস্নাহ মিয়া, মাসুদ আহমেদ তালুকদার সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।

কাল বিএনপির
প্রতিবাদ কর্মসূচি

এদিকে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরম্নদ্ধে আরও দুটি মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে শনিবার দেশব্যাপী প্রতিবাদ কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বিএনপি।
বৃহস্পতিবার বিকালে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে নয়াপল্টনে দ্বিতীয় দফায় আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির দলের সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রম্নহুল কবির রিজভী এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন। বিএনপি চেয়ারপারসনের বিরম্নদ্ধে এ গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে তা প্রত্যাহারের দাবি জানান তিনি।
রিজভী বলেন, 'স্বাধীন বিচার বিভাগ ও আওয়ামী লীগ একসঙ্গে চলতে পারে না- এ দু'টি সম্পূর্ণরূপে অসঙ্গতিপূর্ণ। কারণ সর্বোচ্চ আদালতের প্রধান বিচারপতি সরকারের ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েছেন। সন্ত্রাসী কায়দায় স্বাক্ষর জালিয়াতির মাধ্যমে আবেদন করে তাকে যেভাবে ছুটিতে পাঠানো হয়েছে। এখন জোর-জবরদস্ত্মি করে বিদেশে পাঠিয়ে দেয়া হচ্ছে। এ জন্য বিচারবিভাগ স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারছে না। এই সুযোগে খালেদা জিয়ার জামিন বাতিল করে তার বিরম্নদ্ধে যে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে। এ গ্রেপ্তারি পরোয়ানা ভোটারবিহীন সরকারের সর্বোচ্চ স্থান থেকেই হুকুম হয়েছে বলে দেশবাসী বিশ্বাস করে।'
তিনি বলেন, 'প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছিলেন- বিএনপির সঙ্গে আর কোনো সংলাপ বা সমঝোতা হবে না।' এ কথার মধ্য দিয়ে এটা সুস্পষ্টভাবে প্রমাণ হয়, দেশের বৃহৎ রাজনৈতিক দল বিএনপিকে বাদ দিয়ে একতরফাভাবে নির্বাচন করার জন্য আবারও ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের পুনরাবৃত্তি করার নীলনকশা আঁটছেন। কিন্তু প্রধানমন্ত্রীর খায়েশ পূরণ হবে না।
এর আগে সকালে একই স্থানে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে আসন্ন একদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে নির্বাচন কমিশনের সংলাপে যোগ দেবে বিএনপি। কমিশনের আমন্ত্রণের সূচি অনুযায়ী আগামী রোববার (১৫ অক্টোবর) দলটির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ছাড়াই এ সংলাপে অংশ নেবে বিএনপির শীর্ষ নেতারা। এ সময় তিনি জামায়াতে ইসলামীর শীর্ষ নেতাদের গ্রেফতারের প্রতিবাদে ডাকা হরতালে গতকালের হরতালে বিএনপির সমর্থনের কথাও জানান।
সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে রম্নহুল কবির রিজভী জানান, নির্বাচন কমিশনের সংলাপে যাওয়ার বিষয়ে দলীয় সিদ্ধান্ত্ম হয়েছে। বিএনপি ইসির আমন্ত্রণে সাংলাপে অংশ নিবে।
তিনি আরও বলেন, 'সংলাপের আলোচনার বিষয়বস্তু নিয়ে একটি খসড়া তৈরি হচ্ছে। এই মুহূর্তে এ বিষয়ে কিছু জানানো হবে না।
জ্যেষ্ঠ নেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, মহাসচিব মির্জ ফখরম্নল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে ১০ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দলকে সংলাপে পাঠাচ্ছে বিএনপি। ওই প্রতিনিধি দলে স্থায়ী কমিটির কয়েকজন সদস্য থাকবেন।
জামায়াতের হরতালে সমর্থনের বিষয়ে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সিদ্ধান্ত্মে পবির্তন প্রসঙ্গে রিজভী বলেন, বুধবার হরতালে সমর্থন জানানো বা না জানানোর কোনো নির্দেশনা ছিল না। কিন্তু বৃহস্পতিবার দলের নির্দেশনা এসেছে। তা হচ্ছে, জামায়াতের হরতালে বিএনপির পূর্ণ সমর্থন রয়েছে।
রিজভী বলেন, বিরোধী রাজনৈতিক শক্তির কোনো কর্মসূচি যাতে না হয়, সে জন্য 'ভয় দেখাতে' জামায়াত নেতাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
সংবাদ সম্মেলনে দলের কেন্দ্রীয় নেতা খায়রম্নল কবির খোকন, সানাউলস্নাহ মিয়া, মাসুদ আহমেদ তালুকদার প্রমুখ নেতা উপস্থিত ছিলেন।
অঙ্গদলের কর্মসূচি
খালেদা জিয়ার বিরম্নদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে আলাদা আলাদা কর্মসূচি ঘোষণা করেছে জাতীয়তাবাদী যুব-স্বেচ্ছাসেবক ও ছাত্রদল।
যুবদলের পক্ষ থেকে জানানো হয়, দলের চেয়ারপারসনের বিরম্নদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে শনিবার দেশব্যাপী সব জেলা ও মহানগরে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করবে যুবদল।
স্বেচ্ছাসেবক দলের পক্ষ থেকে বলা হয়- আগামীকাল শনিবার দেশব্যাপী সব জেলা ও মহানগরে এবং আগামী ১৫ অক্টোবর রোববার জেলা ও মহানগরের অন্ত্মর্গত থানায় থানায় বিক্ষোভ কর্মসূচি করবে স্বেচ্ছাসেবক দল।
এদিকে ছাত্রদলের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, শনিবার দেশের সব জেলা, মহানগর ও বিশ্ববিদ্যালয়সমূহে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করবে ছাত্রদল।
 
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
শেষের পাতা -এর আরো সংবাদ
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin
close