৭৪ রানের লজ্জা পাকিস্ত্মানেরক্রীড়া ডেস্ক নিজেদের ইনিংসে বেশিরভাগ সময়ই হুমকিতে ছিল পাকিস্ত্মান। হুমকিটা প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ডকে ঘিরে নয়। সেটা হলো, ওয়ানডে ইতিহাসে সবচেয়ে কম রানের স্কোর বা ৫০ ওভারের ফরম্যাটে নিজেদের সর্বনিম্ন সংগ্রহের লজ্জার হুমকি। সেই লজ্জা থেকে রেহাই পেয়েছে সরফরাজ আহমেদের দল। তবে ৭৪ রানে অলআউট হওয়ার লজ্জাই বা তারা রাখে কোথায়? নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে এমন লজ্জার দিনে ১৮৩ রানের বড় ব্যবধানে হেরেছে পাকিস্ত্মান, টানা তিন হারে সিরিজটাও হাতছাড়া করেছে তারা।
ডুনেডিনে জয়ের জন্য ২৫৮ রান তাড়া করতে নামার পর শুরম্নটা একেবারেই বাজে ছিল পাকিস্ত্মানে। ১৫ ওভারে দলে খাতায় মাত্র ১৮ রান যোগ করতেই ৬ উইকেট খুইয়ে বসে তারা। ইনিংসের শুরম্নতে মিচেল সান্টানারের বলে ক্যাচ তুলেন আজহার আলি। কিন্তু কভারে দাঁড়িয়ে থাকা ফিল্ডার তা তালুবন্দি করতে না পারলে জীবন পান এই ওপেনার। তবে সুযোগটা কাজে লাগাতে পারেননি আজহার। ম্যাচে ৫ উইকেট পাওয়া ট্রেন্ট বোল্টের বলে প্রথম স্স্নিপে থাকা রস টেলরকে ক্যাচ দিয়ে বিনা রানেই সাজঘরে ফেরেন তিনি।
নিজের দ্বিতীয় ওভারের প্রথম বলে আরেক ওপেনার ফখর জামানের (৮) উইকেট ভাঙেন বোল্ট। এর পরের ওভারে তুলে নেন মোহাম্মদ হাফিজকে। এরই মধ্যে ১৩তম ওভারে রান আউটে কাটা পড়েন বাবর আজম (৮)। নিজের উইকেট বিলিয়ে দিয়ে পঞ্চম ব্যাটসম্যান হিসেবে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন শোয়েব মালিক। পাকিস্ত্মানের স্কোর তখন ৫ উইকেটে ১৫ রান। সর্বনিম্ন রানে অলআউট হওয়ার শঙ্কায় তখন পাকিস্ত্মান। এমন পরিস্থিতিতে মোহাম্মদ আমির (১৪), রম্নম্মান রইস (১৬) আর দলপতি সফরফরাজের অপরাজিত ১৪ রানে ভর করে সর্বনিম্ন রানের লজ্জা এড়িয়ে পাকিস্ত্মান থামে ৭৪ রানে।
এর আগে টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নামা নিউজিল্যান্ডের শুরম্নটা ছিল ওপেনার কলিন মুনরোকে হারিয়ে। তবে দ্বিতীয় উইকেটে ৬৫ রানের জুটি গড়ে সেই ধাক্কা সামলে নেন মার্টিন গাপটিল এবং অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। গাপটিল ৪৫ এবং উইলিয়ামসন ৭৩ রানে আউট হওয়ার আগে দলকে নিয়ে যান শক্ত অবস্থানে। শেষ দিকে টেলর (৫২) এবং টম লাথামের (৩৫) ব্যাটিং নৈপুণ্যে ২৫৭ রানের লড়াকু সংগ্রহ পায় তারা।
 
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin
close