আমাদের কথাশাহাবুদ্দীন নাগরী মেয়েটাকে খুব চেনা চেনা মনে হলো,
কিন্তু স্মৃতির পাতায় এলোমেলো রাখা
সব ছবি কেমন ফ্যাকাশে হয়ে গেছে,
মনেই পড়লো না ওকে কীভাবে চিনি।
মধ্যরাতে জানালা ভেঙে বিছানায়
হুমড়ি খেয়ে পড়লো আকাশভাঙা
ধবল জোছনা, কৃষ্ণচূড়ায় ডুব দিয়ে
উড়ে এলো একজোড়া রঙিন প্রজাপতি,
চৈত্রের উষ্ণ বাতাস উড়িয়ে নিয়ে এলো
শুকনো বিবর্ণ নিমপাতার তিতকুটে ঘ্রাণ।
হঠাৎ ঠক্ঠক্ শব্দ হলো বন্ধ দরোজায়।
এত রাতে কে? দরোজাটা খুলতেই
চারুকলায় সকালে দেখা সেই মেয়েটা
হাসতে হাসতে বললো, আজ কিন্তু নয়,
আবার জন্ম হলে তোমার ঐ বিছানাটা
হবে আমাদের, এ-ঘর আমাদের ঘর।
তারপর মুমু পরীদের মতো ডানা মেলে
উড়ে গেল অন্ধকারে। আমি বিছানার
দিকে আর না ফিরে দরোজার চৌকাঠে
দাঁড়িয়ে মৃত্যুর জন্য প্রস্তুত হতে থাকলাম।

মুমুর জন্য আমি রেখে দিলাম আধেক শয্যা,
আমার এই বিছানাটা কবে হবে আমাদের?
 
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin