কাল হাইকোর্টে খালেদা জিয়ার আপিল?যাযাদি রিপোর্ট জিয়া এতিমখানা ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিচারিক আদালতের রায়ের বিরম্নদ্ধে আগামীকাল বৃহস্পতিবার হাইকোর্টে আপিল করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা। আইনজীবীরা বলছেন, বুধবার নিম্ন আদালতের রায়ের 'সার্টিফায়েড কপি' পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
সুপ্রিম কোর্টের একজন আইনজীবী জানান, প্রথমে রায়ের বিরম্নদ্ধে আপিল আবেদন করা হবে। এরপর জামিন আবেদন করা হবে। ওই আইনজীবীর মতে, জিয়া এতিমখানা ট্রাস্ট মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন জামিন পাওয়ার যোগ্য। কেননা, এই মামলায় তার সাজার মেয়াদ কম। তার সামাজিক অবস্থা, একজন সাবেক প্রধানমন্ত্রী তিনি। এ ছাড়া একজন নারী, তার বয়স ও স্বাস্থ্যগত বিষয়টি জামিন পাওয়ার ক্ষেত্রে আদালতের বিবেচনার বিষয় হবে। ফলে এই মামলায় জামিন পাওয়া নিয়ে তারা চিন্ত্মিত নন।
ওই আইনজীবীর মতে, কয়েকটি মামলায় খালেদা জিয়াকে আদালতে হাজির হতে বলা হয়েছে। অবস্থা দেখে মনে হচ্ছে, সরকার চাচ্ছে না কেবল জিয়া এতিমখানা মামলায় খালেদা জিয়া জামিন পেয়ে বেরিয়ে যাক। রাষ্ট্রপক্ষ বিভিন্ন মামলায় খালেদা জিয়াকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে তার কারাবাস দীর্ঘ করতে পারে বলে তার ধারণা।
জানতে চাইলে খালেদা জিয়ার আইনজীবী মাসুদ আহমেদ তালুকদার বলেন, তাদের মনে হচ্ছে আদালতের যারা নকল দিবেন, তাদের মধ্যে ভীতি কাজ করছে। কেননা, নকল পাওয়ার যুক্তিসঙ্গত সময় অতিবাহিত হয়েছে। এখন মনে হচ্ছে, গড়িমসি করা হচ্ছে। তিনি বলেন, তারা আপিল আবেদনের জন্য সব প্রস্তুতি শেষ করে রেখেছেন। যেদিন নকল পাবেন, সেদিন বা এর পরের দিন আপিল আবেদন করতে পারবেন।
এক প্রশ্নের জবাবে এই আইনজীবী বলেন, যে মামলাগুলোয় খালেদা জিয়ার জামিন নেয়া হয়নি, সেগুলোর জামিন নিতে হবে। কিন্তু সরকার যদি তাকে অন্যায়ভাবে দীর্ঘদিন আটক রাখার চেষ্টা করে, তবে মানুষের কাছে সেটা অপকৌশল বলে মনে হবে।
এদিকে মঙ্গলবার
হকারা কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলেছেন বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা ও আইনজীবী সানাউলস্নাহ মিয়া। সেখান থেকে বেরিয়ে তিনি বলেন, তারা বিশেষ জজ আদালত-৫ এ যোগাযোগ করেছেন। তাদের বলা হয়েছে, বুধবার কপি পাওয়া যাবে। কপি পেলে তারা বৃহস্পতিবার আপিল করবেন।
জিয়া এতিমখানা ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছর সশ্রম কারাদ- দিয়েছে আদালত। এ ছাড়া প্রায় দুই কোটি ১০ লাখ টাকা জরিমানাও করা হয়েছে। এই মামলায় খালেদা জিয়ার ছেলে তারেক রহমানকে ১০ বছরের জেল ও সমপরিমাণ অর্থ জরিমানা করা হয়েছে।
 
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
শেষের পাতা -এর আরো সংবাদ
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin
close