হাটহাজারীতে নিশ্চিহ্নের পথে দু'শ বছরের পুরনো দীঘিহাটহাজারী (চট্টগ্রাম) সংবাদদাতা ভেকু দিয়ে পুকুর ভরাট করা হচ্ছে -যাযাদিহাটহাজারী উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নে অবস্থিত 'গাজীর দীঘি' নামে পরিচিত প্রায় ২০০ বছরের একটি দীঘি নিশ্চিহ্ন হওয়ার পথে। ৯ দিন ধরে এস্কেভেটর দিয়ে প্রায় তিন একরবিশিষ্ট এই দীঘির পাড় কেটে সমান্ত্মরাল করা হচ্ছে।
জনগুরম্নত্বপূর্ণ এই দীঘি বিলীন হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা করছেন স্থানীয়রা।
জানা যায়, সরকারহাট রেলস্টেশনের পশ্চিমে কুলালপাড়া জুগেশ চৌধুরী বাড়ি-সংলগ্ন দীঘিটি অত্যন্ত্ম জনগুরম্নত্বপূর্ণ। ৯ দিন ধরে একটি সিন্ডিকেট এই দীঘির সুউচ্চ পাড়ের মাটি কেটে পাশের ইটভাটায় সরবরাহ করছে। পুকুরপাড়ের মাটি কেটে নেয়ার ফলে দৃশ্যত দীঘিটি পাশের জমির সঙ্গে সমান্ত্মরাল হয়ে গেছে। এখন দেখে বোঝার উপায় নেই যে, এখানে একটি বড় দীঘি ছিল।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয় বেশ কয়েকজন জানান, ঐতিহ্যবাহী দীঘিটি আজ বিলীন হতে চলেছে। পার্শ্ববর্তী ফসলের ক্ষেতে চাষাবাদের জন্য পানির উৎস্য এই দীঘি।
যেভাবে এটির পাড় কেটে পার্শ্ববর্তী জমির সঙ্গে সমান্ত্মরাল করা হচ্ছে, এতে করে কয়েকমাস পর হয়ত এটির আর কোনো চিহ্নও অবশিষ্ট থাকবে না।
এদিকে মাটি কাটার সঙ্গে জড়িতরা জানান, আমরা মালিকপক্ষের সঙ্গে মৌখিক চুক্তিতে এই দীঘির মাটি কিনে নিয়েছি।
দীঘিটির প্রকৃত মালিক ওসমান গণি সৌদি আরবে অবস্থান করার কারণে এ বিষয়ে তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে তার ম্যানেজার মো. ইকবাল পরিবেশের অনুমতি না নিয়ে পাড় কাটার কথা স্বীকার করেন। তিনি জানান, পুকুরটি আমরা পুনরায় খনন করে পাড়ে মাটি ভরাট করব।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে পরিবেশ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম অঞ্চলের উপ-পরিচালক ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কাজী শহিদুল ইসলাম বলেন, পরিবেশ অধিদপ্তরের অনুমতি না নিয়ে দীঘির পাড় কেটে নিশ্চিহ্ন করা অপরাধ। সরেজমিন পরিদর্শন করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।
 
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
স্বদেশ -এর আরো সংবাদ
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin
close