পূর্ববর্তী সংবাদ
ফুটবলে নতুন উদ্যমে শুরম্নর অপেক্ষাআমাদের পক্ষ থেকে জাতীয় দলকে যতটুকু সুযোগ-সুবিধা দেয়া প্রয়োজন আমরা দেয়ার চেষ্টা করেছি। বাকিটা করতে হবে দলের খেলোয়াড়দের। কারণ মাঠে খেলাটা তো আমরা খেলে দিতে পারব না। খেলতে হবে তাদেরই -কাজী সালাউদ্দিনক্রীড়া প্রতিবেদক দীর্ঘদিন পর বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনে জাতীয় দলের খেলোয়াড়দের আনাগোনা। মামুনুল ইসলাম, হেমন্ত্ম ভিনসেন্টের মতো পরিচিত মুখের পাশাপাশি মতিন মিয়াদের মতো নতুন মুখও দেখা গেল। প্রায় ১৬ মাসের বিরতির পর আবারও জাতীয় দলের ক্যাম্প শুরম্ন হয়েছে মঙ্গলবার। ফুটবলারদের আনাগোনো ওই ক্যাম্পকে কেন্দ্র করেই। কোচ অ্যান্ড্রু অর্ডের তত্ত্বাবধানে ক্যাম্পে জাতীয় দল পাচ্ছে বিভিন্ন ধরনের সুযোগ-সুবিধা যা আগে কখনো পায়নি। নতুন দল নিয়ে নতুন উদ্যমে শুরম্ন করার প্রত্যাশা অর্ডের, ভালো ফলের প্রত্যাশায় বাফুফে।
সাফ চ্যাম্পিয়নশিপকে সামনে রেখে জাতীয় দল এবারই প্রথম কাতার, লাউস এবং থাইল্যান্ডে প্রস্তুতি ক্যাম্প করবে। চলতি মাসের ২৮ তারিখ কাতার যাবে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দল। সেখানে কন্ডিশনিং ক্যাম্প শেষে ১৪ মার্চ দেশে ফিরে আসবে। এরপর ১৯ মার্চ থাইল্যান্ডে গিয়ে ২১ এবং ২৩ মার্চ সেখানে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে। এরপর ফিফা প্রীতি ম্যাচ খেলতে ২৫ মার্চ লাউসে যাবে অর্ডের শিষ্যরা।
বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন জানালেন, 'এ ধরনের প্রোগ্রাম বাংলাদেশে এবারই প্রথম। এর আগে এদেশে এ ধরনের প্রোগ্রাম হয়নি। আমাদের পক্ষ থেকে জাতীয় দলকে যতটুকু সুযোগ-সুবিধা দেয়া প্রয়োজন আমরা দেয়ার চেষ্টা করেছি। বাকিটা করতে হবে দলের খেলোয়াড়দের। কারণ মাঠে খেলাটা তো আমরা খেলে দিতে পারব না। খেলতে হবে তাদেরই।'
প্রত্যাশী সব সুবিধা পাওয়ার পরও কোনো প্রতিশ্রম্নতি দিলেন না প্রধান কোচ অর্ড। এ প্রসঙ্গে বললেন, 'আমি বাফুফের কাছে এ ধরনের প্রোগ্রাম চেয়েছিলাম, বাফুফে তাদের পক্ষ থেকে নিজেদের সেরাটা দিয়েছে। তারা তাদের কাজটা করেছে। আমি কোনো প্রতিশ্রম্নতি দিচ্ছি না। তবে আমি আমার সেরাটা দেয়ার চেষ্টা করব। আশা করছি দলের ফুটবলাররাও তাদের সেরাটা দেয়ার চেষ্টা করবে।'
আগেও জাতীয় দলকে বিভিন্ন ধরনের সুযোগ-সুবিধা দেয়া হয়েছে, এরপরও তারা সাফল্য পায়নি। তবে তাই বলে বসে থাকতে চান না বাফুফে বস সালাউদ্দিন। নতুন উদ্যমে আবারও চেষ্টা করতে চান। এ প্রসঙ্গে সালাউদ্দিন বলেছেন, 'আগে ভালো রেজাল্ট হয়নি বলে কি চেষ্টা না করে বসে থাকব? আমি তো বলতে পারব না আমারা আগের টিম ভালো করেনি বলে খেলব না!'
দীর্ঘ ১৬ মাসের বিরতি শেষে আবারও জাতীয় দলের ক্যাম্প। দীঘ এ বিরতি কি বাফুফের পরিকল্পিত নাকি বাধ্য হয়েই এতদিন দূরে রাখতে হয়েছে জাতীয় দলকে? উত্তরে সালাউদ্দিন বলেন, 'আমাদের কোনো গুরম্নত্বপূর্ণ টুর্নামেন্ট ছিল না। জাতীয় দলের ক্যাম্প হলে লিগ বন্ধ করতে হয়। লিগে যাতে কোনো বাধা না পড়ে সে কারণেই দেরিতে ক্যাম্প করা।'
জাতীয় দলে দীর্ঘদিন নিয়মিত অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করেছেন মিডফিল্ডার মামুনুল ইসলাম। কথা হলো তার সঙ্গে। জানালেন, 'দলে নতুন মুখ যারা এসেছেন তারা ভালোমানের। এবারের দলে অনেক চ্যালেঞ্জ আছে। কোচ আমাদের ডেকে জানতে চেয়েছেন কার কি সমস্যা আছে, কারও বিশ্রাম দরকার কিনা। যাদের বিশ্রাম দরকার হবে তাদের বিকেএসপিতে কয়েকদিন বিশ্রাম দেয়া হবে।'
এবারই প্রথম জাতীয় দলে ঠাঁই হয়েছে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবে খেলা চমক জাগানো স্ট্রাইকার মতিন মিয়ার। জাতীয় দলের জার্সি গায়ে জড়ানোর সুযোগ পেয়ে অনেক খুশি এই নবাগত স্ট্রাইকার, 'অল্প সময়ে জাতীয় দলে ডাক পাওয়া অবশ্যই আমার জন্য অনেক বড় একটা সুযোগ। আমি আপ্রাণ চেষ্টা করব যাতে কিছু একটা করতে পারি।'
প্রাথমিক দলে ঠাঁই পাওয়া ৩৫ ফুটবলারের ২৬ জন মঙ্গলবারই চলে গেছেন বিকেএসপিতে। বাকি ৯ ফুটবলার চট্টগ্রাম আবাহনীর এবং আরামবাগ ক্রীড়া সংঘের। সদ্য শেষ হওয়া স্বাধীনতা কাপের ফাইনালে খেলেছে এই দুই দল। আর তাই দুই দল থেকে ডাক পাওয়া খেলোয়াড়দের কিছুদিনের বিশ্রাম দিয়েছেন কোচ। তারা দলের সঙ্গে যোগ দেবেন আগামী ২১ ফেব্রম্নয়ারি।
 
পূর্ববর্তী সংবাদ
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin
close