সংবাদ সংক্ষেপইরানকে বুট প্রদানে অনীহা নাইকির
ক্রীড়া ডেস্ক
রাশিয়া বিশ্বকাপে ইরানের ভালো খেলার পথে বড় বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। অর্থনৈতিক অবরোধে ইরানকে বুট সরবরাহ করতে রাজি নয় ক্রীড়াসামগ্রী প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান নাইকি। তাতে চিন্ত্মার ভাঁজ পড়েছে ইরানি শিবিরে।
আজ মাঠে গড়াবে রাশিয়া বিশ্বকাপ। এমন অবস্থায় ইরানের কোচ কার্লোস কুইরোস ফিফার সহায়তা আশা করেছেন। হতাশা প্রকাশ করে ইরানি কোচ বলেন, 'ছেলেরা খেলার আগে ক্রীড়াসামগ্রী পেয়ে থাকে। কিন্তু ম্যাচের এক সপ্তাহ আগে এমন ঘটনা সত্যি বলতে আমাদের জন্য ভালো নয়।'
ফিফার সহায়তা দাবি করে ইরানি কোচ বলেন, 'আমরা কোচ এবং ফুটবলার। আমাদের এসব বিষয়ের মাঝে মাথা ঘামানো উচিত নয়। তবে এমন পরিস্থিতিতে আমাদের ফিফার সহায়তা অবশ্যই দরকার।'
গত মাস থেকেই রাজনৈতিকভাবে চাপের মুখে পড়ে ইরান। ইরানের সঙ্গে পারমাণবিক চুক্তি থেকে সরে দাঁড়িয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এরপর যুক্তরাষ্ট্র আরও কড়াকড়ি আরোপ করে ইরানের ওপর।
অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপের ফলে অনেক বড় বড় বিদেশি প্রতিষ্ঠান তাদের সঙ্গে কাজ করা থেকে বিরত থাকে। ফল হিসেবে নাইকি এমন কঠোর সিদ্ধান্ত্ম নেয়। তারা বিবৃতিতে জানায়, যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা মানে যুক্তরাষ্ট্রের একটি প্রতিষ্ঠান হিসেবে নাইকি ইরানি জাতীয় ফুটবলারদের কোনো জুতা সরবরাহ করতে পারে না। যা আইনসিদ্ধ একটি ব্যাপার।

হ্যাজার্ডকে চেনেন না কোস্টারিকার কোচ!
ক্রীড়া ডেস্ক
বিশ্বকাপের আগে নিজেদের ঝালিয়ে নিতে এক প্রস্তুতি ম্যাচে পরস্পরের মুখোমুখি হয়েছিল বেলজিয়াম ও কোস্টারিকা। ম্যাচটি চেলসি তারকা ইডেন হ্যাজার্ডের একক নৈপুণ্যে ৪-১ গোলে ম্যাচটি জিতে নেয় বেলজিয়াম।
এ পর্যন্ত্ম সব ঠিকই ছিল। বিপত্তিটা ঘটল ম্যাচের পর সংবাদ সম্মেলনে যখন কোস্টারিকার কোচ বললেন হ্যাজার্ডকে চেনেন না তিনি। বর্তমান সময়ের সেরা খেলোয়াড়দের একজনকে না চেনাটা বিস্ময়করই বটে। ম্যাচ-পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে কোস্টারিকার কোচ অস্কার রামিরেজ বলেন, 'তাদের ১০ নম্বর পরিহিত খেলোয়াড়টি আমাদের ভুগিয়েছে। আমি তার নাম জানি না।'
আর এই বক্তব্যের পরই সমালোচনার মুখে পড়েছেন অস্কার রামিরেজ। কোস্টারিকার সাংবাদিক ক্রিস্টিয়ান মোরা বলেন, 'আপনি যদি আপনাদের প্রতিপক্ষের খেলোয়াড়দের সম্পর্কে না-ই জানেন, তাহলে কিভাবে আপনি নিজের খেলোয়াড়দের ম্যাচের আগে প্রস্তুত করেন?'

ক্যান্সারে আক্রান্ত্ম রিচার্ড হ্যাডলি

ক্রীড়া ডেস্ক
অন্ত্রে ক্যান্সার ধরা পড়েছে নিউজিল্যান্ডের কিংবদন্ত্মি ক্রিকেটার রিচার্ড হ্যাডলির। তার স্ত্রী লেডি ডিয়ান হ্যাডলির বরাত দিয়ে এ খবরটি নিশ্চিত করেছে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড। তারা জানিয়েছে, টিউমার অপারেশনে অস্ত্রোপচারও করানো হয়েছে ক্রিকেটের সর্বকালের অন্যতম সেরা এই অলরাউন্ডারকে।
কিউই ক্রিকেটের পক্ষ থেকে বিবৃতিতে বলা হয়েছে, 'তিন বছর ধরে নিয়মমাফিক কলোনোস্কোপি করাতে হচ্ছে রিচার্ডকে। গত মাসে এই পরীক্ষা করতে গিয়ে ধরা পড়ে অন্ত্রের ক্যান্সার। টিউমার অপারেশনে ওই সময় তার অস্ত্রোপচার করানো হয়। অপারেশনের পর তিনি খুব ভালোভাবেই সেরে উঠেন। তবে ঝুঁকি এড়াতে তাকে দ্রম্নততম সময়ের মধ্যে কেমোথেরাপি দেয়া হবে। আশা করা হচ্ছে, সময়ের সঙ্গে সঙ্গে তিনি পুরোপুরি সেরে উঠবেন।'
৬৬ বছর বয়সী হ্যাডলিকে নিউজিল্যান্ডের ইতিহাসেরই সেরা ক্রিকেটার ধরা হয়। আশির দশকে ইমরান খান, ইয়ান বোথাম আর কপিল দেবের সঙ্গে তার নামটিও বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারের তালিকায় ছিল। ৪৩১ টেস্ট উইকেট নিয়ে তিনি যখন অবসর নেন, তখন সেটিই ছিল বিশ্বরেকর্ড। ৮৬ টেস্টের ক্যারিয়ারে ২৭.১৬ গড়ে ৩১২৪ রানও রয়েছে হ্যাডলির।
লেভেল-২ লাইসেন্স
কোর্স করবেন নয়ন
ক্রীড়া প্রতিবেদক
বাংলাদেশ জাতীয় দলের গোলরক্ষক কোচ নুরম্নজ্জামান নয়ন, যিনি প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে এএফসি গোলকিপিং লেভেল-১ কোর্স করেছিলেন। এবার তিনি স্থাপন করতে যাচ্ছেন আরেকটি মাইলফলক। আগামী অক্টোবরে তিনি দেশের প্রথম গোলরক্ষক কোচ হিসেবে করতে যাচ্ছেন এএফসির লেভেল-২ গোলকিপিং কোর্স।
মুক্তিযোদ্ধার পাশাপাশি নয়ন কাজ করছেন বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের গোলরক্ষক কোচ হিসেবেও। ২০১৬ সালে নেপালে গিয়ে করেছিলেন এএফসি গোলকিপিং লেভেল-১ লাইসেন্স কোর্স। তিনিই প্রথম বাংলাদেশি, যিনি এই কোর্সটি সফলভাবে সম্পন্ন করেছিলেন। শুধু তাই নয়, ওই কোর্সের মোট ২০ জনের (বাকি ১৯ জনই নেপালি) মধ্যে চূড়ান্ত্ম পরীক্ষায় নয়নই অধিকার করেছিলেন প্রথম স্থানটি! কর্মক্ষেত্রে সাফল্যের পিরামিডটা আরও উঁচু করতে চান। আর তাই আগামী ১৬-২১ অক্টোবর পর্যন্ত্ম অস্ট্রেলিয়ার ক্যানবেরায় অনুষ্ঠেয় লেভেল-২ লাইসেন্স গোলকিপিং কোর্সে অংশ নেবেন (আয়োজনে: ফুটবল ফেডারেশন অস্ট্রেলিয়া, রেফার বাই : পল স্মলি, টেকিনিক্যাল এ্যান্ড স্ট্র্যাটেজিক ডিরেক্টর, বাফুফে)।
এ প্রসঙ্গে নয়ন বলেছেন, 'আমি জাতীয় দলে একটু জলদিই কাজ করার সুযোগ পেয়েছি। সেজন্য আমি আনন্দিত ও গর্বিত। তবে কাজ করতে গিয়ে উপলব্ধি করেছি আমার আরও জানার দরকার আছে। এজন্যই কোর্সগুলো করছি। কাজ করলে জেনেশুনে বুঝেই করতে চাই।'

নিসের কোচ হলেন ভিয়েরা
ক্রীড়া ডেস্ক
প্রায় ২০ বছর পর ফ্রেঞ্চ লিগে আবারও ফিরলেন সাবেক আর্সেনাল ও ফ্রান্সের বিশ্বকাপজয়ী খেলোয়াড় প্যাট্টিক ভিয়েরা। তবে এবার খেলোয়াড় হিসেবে নয়, ভিয়েরা ফিরলেন নিসের কোচ হয়ে। ফেঞ্চ লিগে আবার ফিরতে পেরে দারম্নণ খুশি ১৯৯৮ সালের ফ্রান্সের বিশ্বকাপজয়ী সদস্য।
লুসিয়েন ফ্যাভরে বরম্নসিয়া ডটমু-তে চলে যাওয়ায় ৪১ বছর বয়সী ভিয়েরার সঙ্গে তিন বছরের চুক্তি করেছে ফ্রান্সের ক্লাব নিস। ভিয়েরাকে কোচ করতে পেরে দারম্নণ খুশি নিসের সভাপতি। নিউইয়র্ক সিটির দায়িত্ব ছেড়ে আসার সিদ্ধান্ত্মটা বেশ কঠিন ছিল বলেই জানালেন ৪১ বছর বয়সী ভিয়েরা, 'নিউইয়র্ক সিটি ছেড়ে আসাটা আমার ও আমার পরিবারের জন্য কঠিন সিদ্ধান্ত্ম ছিল।'
গত মৌসুমে লিগ ওয়ানে অষ্টম স্থানে ছিল নিস। এক পয়েন্টের জন্য তারা ইউরোপা লিগে জায়গা পায়নি। ভিয়েরা নিসে লুসিয়েন ফ্যাভরের স্থলাভিষিক্ত হলেন। যিনি গত মাসে জার্মান ক্লাব বরম্নসিয়া ডর্টমুন্ডের দায়িত্ব নিয়েছেন। ফ্রান্সের ১৯৯৮ বিশ্বকাপ ও ২০০০ ইউরো জয়ী তারকা ভিয়েরা ২০১১ সালে ৩৫ বছর বয়সে ম্যানচেস্টার সিটি থেকে অবসর নেন এবং প্রিমিয়ার লিগের ক্লাবটির ফুটবল উন্নয়ন নির্বাহীর দায়িত্ব পান। ২০১৫ সালে ম্যানচেস্টার সিটির অনূর্ধ্ব-১৯ দলের প্রধান কোচের দায়িত্ব ছেড়ে তিনি নিউইয়র্ক সিটির সঙ্গে তিন বছরের চুক্তি করেন।
 
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin
close