পূর্ববর্তী সংবাদ
রম্নপালিকন্যার গল্পগস্নামারাস উপস্থিতি ও অভিনয়শৈলী দিয়ে সবার মন জয় করে নিয়েছেন তিনি। স্বল্প সময়ের ক্যারিয়ারে ঢালিউড সুপারস্টার শাকিব খান, আরেফিন শুভসহ একাধিক গুণী অভিনেতার সঙ্গে জুটিবদ্ধ হয়ে অভিনয় করেছেন এই তারকা। অভিনয়ের পাশাপাশি নিয়মিত একাধিক নামিদামি ব্যান্ডের মডেল হিসেবেও দেখা যাচ্ছে তাকে। বলছি এ প্রজন্মের চিত্রনায়িকা তানহা তাসনিয়ার কথা। বড়পর্দার এই অভিনেত্রী এখন পুরোদস্তুর ছোটপর্দায় ব্যস্ত্ম। তাকে নিয়ে লিখেছেন শেখ সামিরাহ আক্তার জিনিয়াতানহা তাসনিয়াবর্তমানে ঈদ উপলক্ষে নির্মিত অনুষ্ঠানের কাজ নিয়ে ব্যস্ত্ম সময় পার করছেন তানহা তাসনিয়া। এরমধ্যে ম্যাগাজিন, সেলিব্রেটি টক শো ও গেম শো উলেস্নখযোগ্য। এ ছাড়া ৫-৬টি পোশাক ব্রান্ডের মডেল হয়েছেন তিনি। শুধু ফটোশুটেই নয়, ইগলু আইসক্রিমের একটি বিজ্ঞাপনচিত্রও কাজ করেছেন তিনি। রোজা রেখেই সিডিউল রেখে একের পর এক শুটিং করে যাচ্ছেন তিনি।
এ প্রসঙ্গে তানহা জানান, 'আমি নিয়মিত রোজা পালন করি। শুটিং ব্যস্ত্মতার অজুহাতে কখনই রোজা ভাঙি না। কিছুুদিন আগে ঈদ উপলক্ষে জনপ্রিয় সৌন্দর্যবিদ জায়েদ খানের একটি ব্রাইডাল ফটোশুটে অংশগ্রহণ করি। ওই সময় ভারি ব্রাইডাল মেক্যাপ-গেট্যাপ নিতে হয়েছিল। তার ওপর ফটোশুটে বড় বড় লাইট। সত্যি রোজা রেখে শুট করতে ভীষণ কষ্ট হচ্ছিল। গলা রীতিমতো শুকিয়ে কাঠ হয়ে গিয়েছিল। এরইমধ্যে পেশাদারিত্ব রক্ষায় আমাকে একেক ভাবে এক পোজ দিতে হচ্ছিল। এরপরও আমি রোজা ভাঙিনি।'
আপনি যেহেতু একজন অভিনেত্রী সব সময় নিজের ডায়েটচার্ট মেইনটেইন করতে হয়। রোজার মাসে বিষয়টি কীভাবে করেন?
এ প্রশ্নের উত্তরে তানহা বলেন, 'আমি খুব একটা ডায়েটচার্ট মেইন্টেইন করি না। অভ্যাসগতভাবে আমি স্বল্প আহারি। তাই মোটা হওয়ার ভয় খুব কম। তবে সচেতনভাবে কার্বহাইড্রেট কম খাওয়ার চেষ্টা করি। এই যেমন এখন রমজান মাস চলছে। সারাদিন রোজা রেখে ইফতারে তৈলজাতীয় খাবার এড়িয়ে চলি। আম-চিড়া কিংবা দই-চিড়া, ফল ও শাক-সবজিজাতীয় জিনিস বেশি খাই। আর সেহরিতে ওটস খাই। এ ছাড়া প্রচুর পানি পান করি।
রূপচর্চায়ও খুব একটা সময় ব্যয় করেন না তানহা। তার ভাষ্য, 'সৃষ্টিকর্তা যেটুকু সৌন্দর্য দিয়েছেন তাতেই আমি সন্তুষ্ট। তাই এটি ধরে রাখতে মাসে একবার পার্লারে গিয়ে চুলে যত্ন ও ত্বকের যত্ন করি।'
অভিনেত্রী না হলে কী হতেন? এমন প্রশ্নের জবাবে তানহা বলেন, 'আমি বিবিএ-এর স্টুডেন্ট। তাই লেখাপড়া শেষ করে রেস্টুরেন্ট ও পার্লার ব্যবসায় শুরম্ন করতাম।'
ঈদুল ফিতরের পরপরই নতুন একটি ছবির কাজ শুরম্ন করবেন তানহা। ছবির নাম 'দরদিয়া'। ছবিটি পরিচালনা করবেন ওয়াজেদ আলি সুমন। বর্তমানে ছবিটির চিত্রনাট্য পড়ছেন তানহা। ছবির চরিত্রের আদলে নিজেকে প্রস্তুত করার চেষ্টা করছেন।
এ প্রসঙ্গে তানহা বলেন, অভিনয়ই আমার নেশা। আমি চাইলেই খবু সহজেই গ্র্যাজুয়েশন শেষ করে অন্যকোনো পেশায় চলে যেতে পারি। কিন্তু মন সায় দেয় না। আমি অভিনয় দিয়েই আমার ক্যারিয়ার গড়ে তোলার লক্ষ্যে এগিয়ে যাচ্ছি। তবে বর্তমানে চলচ্চিত্রের নানা সমস্যা তৈরি হয়েছে। চলচ্চিত্র পরিবার দুইভাগে বিভক্ত হয়ে গেছে। সেই সুযোগটা কাজে লাগাচ্ছে কিছু স্বার্থন্বেষী মানুষ। তাই শিল্পীদের উচিত চলচ্চিত্র বাঁচাতে একত্রে কাজ করা।'
সোনালি যুগে প্রতিমাসে একাধিক ছবি মুক্তি পেত। আর এখন মাসের পর মাস ছবিশূন্য বিষয়টি নিয়ে আপনার ভাবনা কী। এমন প্রশ্নের জবাবে তানহা বলেন, 'এখন একজন প্রযোজক তার লগ্নীকৃত অর্থ ফেরত পায় না। তাই নতুন নতুন ছবিও তৈরি হচ্ছে না। একজন প্রযোজককে লাভ না হোক অনন্ত্ম তার বিনোয়গকৃত অর্থ ফেরত পাওয়ার একটা নিশ্চয়তা দিতে হবে। তবে আবার চলচ্চিত্র শিল্পী চাঙ্গা হবে। আরও দুঃখ লাগে ভেবে যে 'আয়নাবাজি'র মতো তুমুল জনপ্রিয় ছবিটিও নাকি তার লগ্নীকৃত অর্থ ফেরত পাননি। এভাবে চলতে থাকলে চলচ্চিত্র শিল্প একদিন ধ্বংস হয়ে যাবে। ১৬-১৭ কোটি মানুষের দেশে, সিনেমা চলে না, এটা মেনে নেয়া কষ্টকর। আমাদের সমস্যা হলো আমরা পারস্পরিক সহযোগিতার পরিবেশ তৈরি করতে পারিনি। যদি আমাদের ছবিকে সমর্থন দিই, তাহলে কিন্তু ইন্ডাস্ট্রি ও আমরা শিল্পীরা রক্ষা পাই।'
এবারই প্রথম দেশের বাইরে ঈদ করছেন এই তারকা। চাঁদরাতের আগের দিন সিঙ্গাপুরে উড়ে যাচ্ছেন তিনি। সেখানে প্রাবাসী বাঙালিদের আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে পারফর্ম করবেন তিনি। জনপ্রিয় তিনটি বাংলাগানে নৃত্য পরিবেশন করবেন তানহা। এগুলো হচ্ছে- লোকাল বাস, ধিন তানা এবং ও ডিজে। গানগুলো কোরিওগ্রাফ করছেন আরিফ রোহান। বর্তমানে নাচগুলোর অনুশীলন নিয়ে ব্যস্ত্ম সময় পার করছেন তিনি।
এ প্রসঙ্গে তানহা বলেন, 'এবারই প্রথম দেশের বাইরে পরিবার ছেড়ে ঈদ করব। পরিবারকে ভীষণ মিস করব। তবে এটা ভেবেও ভালো লাগছে প্রাবাসী বাঙালিদের সঙ্গে ঈদ কাটবে। তাদের কিছুটা হলে আনন্দ দিতে পারব।'
দেশে ফিরবেন কবে? চারদিন সিঙ্গাপুরের বিভিন্ন স্থান ঘুরে বেড়াব। এরপর আমি ২০ জুন দেশে ফিরব। কিছুটা বিশ্রাম নিয়ে নতুন ছবির শুটিংয়ের জন্য প্রস্তুতি নিব। কারণ 'দরদিয়া ছবিটি গ্রামীণ প্রেক্ষাপটে নির্মিত একটি ছবি। এর জন্য আগে থেকে প্রস্তুতি না নিয়ে চরিত্রটি ফুটিয়ে তোলা সম্ভব হবে না।'
এবার একটু পেছনে ফিরে দেখা যাক- তানহা তাসনিয়া তানহা তাসনিয়া চলচ্চিত্রে আসেন একপ্রকার হুট করেই। অভিনেতা নিরবের ফেসবুক বন্ধু হওয়ার সুবাদে তার মাধ্যমেই তিনি চলচ্চিত্রে অভিনয়ের ডাক পান। ভোলা তো যায় না তারে চলচ্চিত্রের জন্য রফিক শিকদার একজন নতুন মুখ খুঁজছিলেন। নিরবের কাছ থেকে এ সংবাদ পেয়ে তিনি আগ্রহ প্রকাশ করেন এবং ছবিতে অভিনয়ের জন্য নির্বাচিত হন। প্রথম ছবিতে তার বিপরীতে অভিনয় করেন নিরব। দ্বিতীয় ছবিতেই শাকিব খানের বিপরীতে শফিক হাসানের 'ধূমকেতু' ছবিতে অভিনয় করে তিনি আলোচনায় আসেন। এরপর আরফিন শুভর সঙ্গে মুক্তিপ্রাপ্ত ছবি 'ভালো থেকো'তে জুটিবদ্ধ হয়েও বেশ প্রশংসিত হন। অভিনয়ের পাশাপাশি নিয়মিত পড়াশোনা করছেন তানহা তাসনিয়া। তিনি নর্দান ইউনিভার্সিটির বিবিএ-এর ছাত্রী।
 
পূর্ববর্তী সংবাদ
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin
close