বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে রোহিঙ্গা নিবন্ধন ৫ লাখ ছাড়িয়েছেকক্সবাজার প্রতিনিধি মিয়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে এসে কক্সবাজারের উখিয়া ও টেকনাফের ১২টি অস্থায়ী আশ্রয়কেন্দ্রে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের সরকারি ব্যবস্থাপনায় ৭টি ক্যাম্পের মাধ্যমে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে নিবন্ধন কাজ এগিয়ে চলছে। মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত্মত্ম বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে মোট ৫ লাখ ১৮ হাজার ২৮ জন রোহিঙ্গাকে নিবন্ধন করা হয়েছে। ৬৫ দিনে এসব রোহিঙ্গাকে নিবন্ধন করা হালা। বাংলাদেশ পার্সপোর্ট ও ইমিগ্রেশন অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে এ কথা জানানো হয়েছে।
গত ১১ সেপ্টেম্বর থেকে পরীক্ষামূলকভাবে রোহিঙ্গাদের বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে নিবন্ধন কাজ শুরম্ন হয়। প্রথমদিন ২০ জন রোহিঙ্গার নিবন্ধন করা হয়। এর মধ্যে আটজনকে পরিচয়পত্র তুলে দেয়া হয়। এরপর থেকে ধারাবাহিকভাবে তাদের নিবন্ধন করার কাজ এগিয়ে চলে। সোমবার দিনব্যাপী ৭টি কেন্দ্রে মোট ১৩ হাজার ৯২৪ জনকে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে নিবন্ধন করা হয়। এর মধ্যে কুতুপালং-১ ক্যাম্পে ১ হাজার ১৬ জন পুরম্নষ, ১ হাজার ১৯৫ জন নারী মিলে ২ হাজার ২১১ জন, কুতুপালং-২ ক্যাম্পে ১ হাজার ৩১৪ জন পুরম্নষ, ১ হাজার ৪৪২ জন নারী মিলে ২ হাজার ৭৫৬ জন, নোয়াপাড়া ক্যাম্পে ৪৯৫ জন পুরম্নষ, ৬৮৪ জন নারী মিলে ১ হাজার ১৭৯ জন, থাইংখালী -১ ক্যাম্পে ৯৪৬ জন পুরম্নষ, ১ হাজার ১৬৭ জন নারী মিলে ২ হাজার ১১৩ জন, থাইংখালী -২ ক্যাম্পে ৬৮২ জন পুরম্নষ, ৬৬৭ জন নারী মিলে ১ হাজার ৩৪৯ জন, বালুখালী ক্যাম্পে ১ হাজার ৪৪২ জন পুরম্নষ, ১ হাজার ৪৩৯ জন নারী মিলে ২ হাজার ৮৮১ জন, শামলাপুর ক্যাম্পে ৫৪৪ জন পুরম্নষ, ৮৯১ জন নারী মিলে ১ হাজার ৪৩৫ জন রোহিঙ্গাকে নিবন্ধন করা হয়েছে। অন্যদের মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত্ম প্রাপ্ত তথ্যে নিবন্ধিত করা হয়।
প্রক্রিয়া অনুযায়ী, প্রথমে রোহিঙ্গাদের ব্যক্তিগত তথ্য নেয়া হচ্ছে। এতে থাকছে নাম, বাবা-মার নাম, দেশ, ধর্ম, লিঙ্গসংক্রান্ত্ম তথ্য। এরপর তাদের ছবি তোলা হচ্ছে। নেয়া হচ্ছে আঙুলের ছাপ। ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর বায়োমেট্রিক নিবন্ধনের কাজ করছে। এতে কারিগরি সহায়তা দিচ্ছে তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান টাইগার আইটি।
বাংলাদেশ পাসপোর্ট ও ইমিগ্রেশন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক আবু নোমান মোহাম্মদ জাকের হোসেন বলেন, শৃঙ্খলা ফিরায় আগের তুলনায় বায়োমেট্টিক নিবন্ধনের গতি অনেক বেড়েছে। রোহিঙ্গাদের প্রদত্ত নিবন্ধিত কার্ডের মাধ্যমে ত্রাণসামগ্রীসহ বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা ভোগ করতে পারায় তাদের নিবন্ধের প্রতি আগ্রহ সৃষ্টি হয়েছে।
 
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
স্বদেশ -এর আরো সংবাদ
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin
close