অন্ধকারাচ্ছন্ন কারওয়ান বাজার রেলগেটযাযাদি রিপোর্ট কারওয়ান বাজারের এফডিসি-সংলগ্ন রেলগেটরাজধানীর ব্যস্ত্মতম রেলগেটগুলোর একটি কারওয়ান বাজারের এফডিসি-সংলগ্ন রেলগেট। অথচ এই রেলগেটে সন্ধ্যা গড়ালেই নেমে আসে অন্ধকার। বিদু্যৎ সংযোগ না থাকায় এখানে বাতি জ্বলে না। রাতের ঘুটঘুটে অন্ধকারের মধ্যেই ঝুঁকি নিয়ে এই রেলগেট দিয়ে চলাচল করে যানবাহন।
সোমবার রাতে এই রেলগেট এলাকা ঘুরে দেখা যায়, হাতিরঝিল-সংলগ্ন টঙ্গী ডাইভারশন রোড থেকে এফডিসির সামনে দিয়ে রেললাইন ক্রস করে বিজেএমইএ ভবন পর্যন্ত্ম সড়কের পুরোটাই ঘুটঘুটে অন্ধকার। এই সড়কের ওপর দিয়ে যাওয়া নবনির্মিত ফ্লাইওভারেও কোনো বাতি জ্বলে না।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, এই ফ্লাইওভারের ওপর এবং নিচের সড়কে গত এক বছর হলো কোনো বাতি জ্বলে না। এই দীর্ঘ সময় ধরে ব্যস্ত্মতম সড়কটির বিদু্যৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। ফলে রাতের অন্ধকারেই ছোট-বড় সব ধরনের যানবাহন চলাচল করছে। ঝুঁকি নিয়ে রেলগেট পাড় হচ্ছে যানবাহনগুলো।
অন্ধকারের কারণে ট্রেন চলাচলের সময় আগে থেকে রেলের সিগন্যাল বাতি এবং রেলগেটের ব্যারিয়ার ফেলার কাজ করাটা কষ্টসাধ্য হয়ে দাঁড়িয়েছে দায়িত্বরত গেটম্যানদের জন্য।
এদিকে এই অন্ধকারের মধ্যেই আবার রেলগেটের রেললাইনের ওপর দিয়ে ট্রাকসহ হুটহাট করে বিভিন্ন যানবাহন ইউটার্ন নিয়ে ঘুরতে দেখা যায়। ট্রেন আসার সময় সহজে বোঝা যায় না ট্রেন আসছে, না ট্রাক ঘুরছে। এ রকম পরিস্থিতিতে যে কোনো সময় এখানে বড় ধরনের দুর্ঘটনার ঝুঁকি তৈরি হয়েছে।
এই রেলগেটের দক্ষিণ পাশে দায়িত্বরত গেটম্যান জামাল জানান, অন্ধকারের মধ্যেই দিনের পর দিন এখানে তাদের দায়িত্ব পালন করতে হচ্ছে। অন্ধকারের কারণে সারারাতই এই জায়গাটা ঝুঁকিপূর্ণ।
তিনি বলেন, এই রোডে বিদু্যতের সংযোগ নেই। এক বছর যাবত এই অবস্থা চলছে। অন্ধকারের মধ্যে ডান-বামে, আশপাশে কি আছে দেখতে পারি না, সিগন্যাল বাতির চাবি ঘোরাতে পারি না। অন্ধকার থাকায় এই রাস্ত্মায় মাঝে-মধ্যে ছিনতাইও হয়।
রেলগেটের উত্তর পাশের গেটম্যান মো. রবু বলেন, রাতে এখানকার বড় সমস্যা বিদু্যৎ না থাকা। এক বছরের মতো এই ফ্লাইওভার উদ্বোধন হয়েছে, এতেও বাতি জ্বলেনি। আগে থেকেই এই রাস্ত্মায় কোনো বাতি নেই, বিচ্ছিন্ন বিদু্যৎ সংযোগও।
 
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin
close