পূর্ববর্তী সংবাদ
সিরিয়া ইসু্যতে পুতিনের হুশিয়ারিআবারও হামলা হলে বিশ্বে গোলযোগজ্জ মার্কিন সেনাদের ফিরিয়ে নেয়া হবে : ট্রাম্প জ্জ সিরিয়ায় দীর্ঘ মেয়াদে সেনা রাখতে মার্কিন প্রেসিডেন্টকে বুঝিয়েছে ফ্রান্স : ম্যাখোঁযাযাদি ডেস্ক রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভস্নাদিমির পুতিনসিরিয়ায় পশ্চিমারা আবারও হামলা চালালে বিশ্বে গোলযোগ সৃষ্টি হবে বলে সতর্ক করেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভস্নাদিমির পুতিন। বাশার আল-আসাদ সরকারের বিরম্নদ্ধে নিজের নাগরিকদের ওপর রাসায়নিক হামলার অভিযোগ এনে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও ফ্রান্স সিরিয়ায় ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানোর পরদিন রোববার ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রম্নহানির সঙ্গে টেলিফোন আলাপে এই হুশিয়ারি দেন রম্নশ প্রেসিডেন্ট। এদিকে, হোয়াইট হাউস রোববার জানিয়েছে, সিরিয়ার ব্যাপারে মার্কিন মিশনের সিদ্ধান্ত্মের কোনো পরিবর্তন হয়নি। প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প যত দ্রম্নত সম্ভব সেনাদের দেশে ফিরিয়ে আনতে চান। তবে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাখোঁ রোববার বলেছেন, 'দীর্ঘ মেয়াদে' সিরিয়ায় মার্কিন সেনা অবস্থানের ব্যাপারে প্যারিস ট্রাম্পকে বোঝাতে সক্ষম হয়েছে। সংবাদসূত্র : বিবিসি, রয়টার্স, এএফপি অনলাইন
ক্রেমলিনের এক বিবৃতিতে বলা হয়, পশ্চিমাদের এই হামলা সিরিয়ায় গত সাত বছর ধরে চলমান গৃহযুদ্ধের অবসানে রাজনৈতিক সমঝোতায় পৌঁছানোর সম্ভাবনাকে ক্ষতিগ্রস্ত্ম করেছে বলে পুতিন ও রম্নহানি একমত হয়েছেন। বিবৃতিতে বলা হয়, ভস্নাদিমির পুতিন বিশেষভাবে জোর দিয়েছেন, জাতিসংঘ সনদের লঙ্ঘন করে এই ধরনের পদক্ষেপ যদি অব্যাহত থাকে, তাহলে অবশ্যই তা আন্ত্মর্জাতিক পরিসরে গোলযোগ তৈরি করবে।
ওয়াশিংটন বলছে, এক সপ্তাহ আগে দৌমায় রাসায়নিক হামলার জবাবে সিরিয়ার রাসায়নিক অস্ত্র কর্মসূচির প্রাণকেন্দ্রে এই হামলা চালানো হয়েছে। হামলায় অংশ নেয়া তিন দেশই দাবি করেছে, তাদের এই হামলার পেছনে প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদকে উৎখাত বা দেশটির গৃহযুদ্ধে হস্ত্মক্ষেপের অভিপ্রায় তাদের ছিল না।
যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ক্ষেপণাস্ত্র হামলা সফল হয়েছে বলে প্রশংসা করলেও এক আগ্রাসন আখ্যায়িত করে এর নিন্দা জানিয়েছে দামেস্ক ও তার মিত্ররা। রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ এই হামলাকে বলেছেন 'অগ্রহণযোগ্য ও বেআইনি'।
তবে রোববার পুতিনের এই সতর্ক বার্তা আসার কিছুক্ষণ আগেই রাশিয়ার উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই রিবাকোভ বলেন, পশ্চিমাদের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়ন সব প্রচেষ্টা নেবে মস্কো। পশ্চিমা দেশগুলো জাতিসংঘে যে প্রস্ত্মাব তুলছে, তার সঙ্গে রাশিয়া কাজ করবে কিনা, সে প্রশ্নের জবাবে তিনি 'তাস' বার্তা সংস্থাকে বলেন, 'এখন রাজনৈতিক পরিস্থিতি খুবই উত্তেজনাপূর্ণ, পরিবেশ খুবই উত্তপ্ত। তাই আমি এ বিষয়ে কিছু বলব না।' তিনি আরও বলেন, 'বর্তমানের অশান্ত্ম পরিস্থিতি থেকে বেরিয়ে আসতে সব সুযোগ ব্যবহার করে আমরা শান্ত্মভাবে ও পেশাদারিত্বের সঙ্গে কাজ করব।' এদিকে, রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা ভস্নাদিমির এরমাকোভ বলেছেন, ওই হামলার পর কৌশলগত স্থিতিশীলতা নিয়ে মস্কোর সঙ্গে আলোচনায় বসতে চেয়েছে ওয়াশিংটন।

'মার্কিন সেনাদের ফিরিয়ে নেয়া হবে'
হোয়াইট হাউস সিরিয়া থেকে দ্রম্নত নিজেদের সেনা দেশে ফিরিয়ে আনতে চান। এ ব্যাপারে হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি সারাহ স্যান্ডার্স বলেন, 'সিরিয়ায় মার্কিন মিশন অপরিবর্তিত রয়েছে। প্রেসিডেন্ট সুস্পষ্টভাবে বলেছেন যে যত দ্রম্নত সম্ভব তিনি মার্কিন সেনাদের দেশে ফিরিয়ে আনতে চান।'
সিরিয়ায় দীর্ঘদিন অবস্থানের ব্যাপারে প্যারিস ট্রাম্পকে বুঝিয়েছে- ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাখোঁ এমন কথা বলার কয়েক ঘণ্টা পর স্যান্ডার্স এটি জানান। স্যান্ডার্স আরও বলেন, 'আমরা আইএসকে সম্পূর্ণভাবে নির্মূল করতে বদ্ধপরিকর। এ ছাড়া আমরা সেখানে এমন একটি পরিবেশ সৃষ্টি করতে চাই, যেটা তাদের ফিরে আসাকে প্রতিরোধ করবে। আমাদের আঞ্চলিক মিত্র ও অংশীদাররা এ অঞ্চলের নিরাপত্তার জন্য সামরিক ও আর্থিক উভয় ক্ষেত্রেই আন্ত্মরিকতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করবে বলে আশা করছি।'

ট্রাম্পকে বুঝিয়েছে ফ্রান্স : ম্যাখোঁ
এদিকে, স্যান্ডার্সের ঘোষণার আগে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাখোঁ রোববার বলেন, 'দীর্ঘ মেয়াদে' সিরিয়ায় মার্কিন সেনা অবস্থানের ব্যাপারে প্যারিস ট্রাম্পকে বোঝাতে সক্ষম হয়েছে। সিরীয় সরকারের বিভিন্ন অবস্থানে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যের নজিরবিহীন অভিযানে ফ্রান্স যোগ দেয়ার একদিন পর ম্যাখোঁ জোর দিয়ে বলেন, এই হস্ত্মক্ষেপ আইনসম্মত। তিনি সাত বছরের এই বর্বর যুদ্ধের একটি কূটনৈতিক সমাধানের জন্য চাপ দিতে আন্ত্মর্জাতিক ক্ষমতাধরদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।
একটি টেলিভিশনকে দেয়া সাক্ষাৎকারে ৪০ বছর বয়সী মধ্যপন্থি এই নেতা বলেন, 'আমরা বাশার আল-আসাদ সরকারের বিরম্নদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করছি না।' প্রেসিডেন্ট হিসেবে তার প্রথম গুরম্নত্বপূর্ণ সামরিক হস্ত্মক্ষেপের ব্যাপারে আবারও যুক্তি তুলে ধরে ম্যাখোঁ বলেন, বেসামরিক নাগরিকদের বিরম্নদ্ধে রাসায়নিক অস্ত্রের ব্যবহারকারীরা শাস্ত্মি পাবে না, এমনটা হতে পারে না।
 
পূর্ববর্তী সংবাদ
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin
close