সাফারি পার্কে জায়ান্ট খরগোশের আমদানিগাজীপুর প্রতিনিধি গাজীপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে বেলজিয়াম থেকে ফ্লেমিস জায়ান্ট খরগোশের বাচ্চা আমদানি করা হয়েছে। বছরে ৮/১০ বার বাচ্চা ধারণ ও প্রসবের ক্ষমতাসম্পন্ন এ খরখোশ দেশের কোনো পার্কে এটাই প্রথম। পার্কে বাঘ, সিংহ, অজগরের খাবারের চাহিদা মেটাতেই দ্রম্নত বর্ধনশীল এ জাতের খরগোশ আমদানি করা হয়েছে বলে পার্ক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে। পার্কের প্রকল্প পরিচালক মো. সামসুল আজম জানান, প্রতি শুক্রবার বাঘ, সিংহ, ভালুক এবং অজগর সাপকে খরগোশ খেতে দেয়া হয়। প্রতি শুক্রবার ওইসব প্রাণীর জন্য ৩০/৪০টি (৭০/৮০ কেজি) খরগোশ দরকার হয়। বর্তমানে ঠিকাদারদের মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন ফার্ম থেকে দেশীয় জাতের খরগোশ সরবরাহ করা হয়। নিজস্ব পরিবেশে লালন-পালন করে বেলজিয়াম খরগোশ সরবরাহ করা হলে প্রতি মাসে তিন/চার লাখ টাকা সাশ্রয় করা সম্ভব হবে। তাই বেলজিয়াম থেকে ৩/৬ মাস বয়সী (৫/৮ কেজি ওজনের) ৬টি জায়ান্ট খরগোশের বাচ্চা আনা হয়েছে। বড় হলে এগুলো ছাগলের আকৃতি হয়। প্রজননের ২৫/৩০ দিন পরই এরা বাচ্চা দেয়। বছরে ৮/১০ বার বাচ্চা দেয়। প্রতি বারে ৩/৫টি করে বাচ্চা দেয়। এক বছরের এদের ওজন হয় ১২/১৪ কেজি। আবদ্ধ পরিবেশে এরা ৫/৬ বছর বাঁচে এবং প্রাকৃতিক পরিবেশে এরা আরও কম বাঁচে। পার্কের ওয়াইল্ড লাইফ সুপারভাইজার মো. সরোয়ার হোসেন খান জানান, এরা শীতল পরিবেশের প্রাণী হলেও আমাদের পার্কে বাঁচিয়ে রাখার সমগ্র পরিবেশ তৈরি করা হয়েছে। এরা অনুকূল পরিবেশে ওজনে ও সংখ্যায় দ্রম্নত বাড়ে। এদের খাবার হিসেবে গাজর, মূলা, কঁচি ভুট্টা, বাদাম, ছোলা, বরবটি, নাশপাতি দেয়া হচ্ছে। তিনি আরও জানান, প্রতি শুক্রবার এখানকার পূর্ণবয়স্ক বাঘ, সিংহ, ভালুক ও অজগরকে ২ কেজি ওজনের জ্যান্ত্ম খরগোশ খেতে দেয়া হয়।
আর অপ্রাপ্ত বয়স্কদের বেলায় এক কেজি থেকে আধা কেজি ওজনের খরগোশ দেয়া হয়। অন্য পাঁচদিনের প্রতিদিন পূর্ণবয়স্ক প্রাণীদের ৫ কেজি গরম্নর মাংস দেয়া হয়। তবে সাদা সিংহকে দেয়া হয় ৬ কেজি করে গোমাংস। বর্তমানে পার্কে ৯টি বাঘ, ২৪টি সিংহ, ১৪টি ভালুক এবং ৯টি অজগর সাপ রয়েছে।
 
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
স্বদেশ -এর আরো সংবাদ
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin
close