পাবনায় চরমপন্থী নেতাকে কুপিয়ে হত্যাপাবনা প্রতিনিধি পাবনার সাঁথিয়া উপজেলার আতাইকুলা থানার ভিন্নগ্রামের ইছামতি নদীর ডাইক থেকে পুলিশ রোববার সকাল ন'টার দিকে নিষিদ্ধ ঘোষিত চরমপন্থী সংগঠন পূর্ববাংলা কমিউনিস্ট পার্টি এমএল (লাল পতাকা)'র আঞ্চলিক নেতা আল আমিন হোসেনের (৩৫) লাশ উদ্ধার করেছে।
পুলিশের ধারণা শনিবার দিবাগত রাতের কোনো এক সময়ে প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসীরা তাকে কুপিয়ে হত্যার পর লাশ ফেলে রেখে গেছে। নিহত আল আমিন সাঁথিয়া উপজেলার ভুলবাড়িয়া ইউনিয়নের ভিন্নগ্রামের ফজলাল মিয়ার ছেলে ও নিষিদ্ধ ঘোষিত চরমপন্থী সংগঠন পূর্ববাংলা কমিউনিস্ট পার্টি এমএল (লাল পতাকা)'র আঞ্চলিক নেতা বলে পুলিশ নিশ্চিত করেছে।
আতাইকুলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রাজ্জাক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, চরমপন্থী নেতা আল আমিনকে শনিবার দিবাগত রাতের কোনো এক সময় ভিন্নগ্রামের ইছামতি নদীর ডাইকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে কুপিয়ে ও গলা কেটে হত্যার পর লাশ ফেলে রেখে যায় প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসীরা। রোববার সকালে স্থানীয় কৃষকরা মাঠে যাওয়ার সময়ে ওই স্থানে একটি লাশ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহত আল আমিন স্থানীয় চরমপন্থী দলের আঞ্চলিক নেতা ছিল। তার বিরুদ্ধে সাঁথিয়া ও আতাইকুলা থানায় হত্যাসহ একাধিক মামলা রয়েছে বলে ওসি আব্দুর রাজ্জাক দাবি করেন। তিনি বলেন, এলাকার আধিপত্য বিস্তার নিয়েই প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসীরা তাকে হত্যা করেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে পুলিশ।
 
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
শেষের পাতা -এর আরো সংবাদ
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin
close