উৎসব ও সংস্কৃতিউৎসব মানুষের সামাজিকতার শিল্পিত প্রকাশ। এর অনুষঙ্গ প্রকরণ দেশভেদে, কালভেদে, ভিন্ন। উৎসব মানুষের ব্যক্তিগত এমনকি সামাজিক বিচ্ছিন্নতা ও আড়ষ্টতা দূর করে, দূরকে কাছে টানে, ইন্দ্রিয়কে সজাগ-সজীব করে, আত্মাকে জাগায়, চেতনাকে শুদ্ধ করে।জিল্লুর রহমান সিদ্দিকী উৎসব কখনো একার নয়। দুজনের ব্যাপারও আর যা-ই হোক, উৎসব নয়। দুই প্রেমিকের মিলনে আনন্দ, এমনকি উন্মাদনা যা-ই হোক, উৎসবের সংজ্ঞায় সেটা কি আসবে? রবীন্দ্রনাথের 'ঝুলন' কবিতায় এর চূড়ান্ত বর্ণনা আছে, কিন্তু একটি উপাদানের অভাবে সেটা উৎসব হতে পারছে না_ তা সামাজিকতা। উৎসব বলতেই আমরা একটি সামাজিক অনুষ্ঠান বুঝে থাকি। দুজন প্রেমিক সমাজবহির্ভূত নয়, অবশ্যই, তবে ওই সানি্নধ্যের মুহূর্তে তারা সমাজ থেকে বাইরে, স্বেচ্ছানির্বাসিত। ... বিস্তারিত
বৈশাখী গানমোবারক হোসেন খান বৈশাখ-জ্যৈষ্ঠ মধুমাসের কাল। বাংলা ঋতু পরিক্রমার প্রথম ঋতু গ্রীষ্মকাল। বাংলা বছরের প্রথম মাস বৈশাখ। বৈশাখ মাসে নতুন বছরের আগমনে শুরু হয় বৈশাখী গান। এ গান মৌসুমি সঙ্গীত। প্রতি বাংলা বছরের শুরুর দিনে এ গানের আবির্ভাব। শহর-গ্রাম-গঞ্জ তখন বৈশাখী গানে হয়ে ওঠে উৎসবমুখর। বৈশাখী বাংলা নববর্ষের গান।
বৈশাখ ষড়ঋতুর প্রথম ঋতু। গ্রীষ্মের প্রথম মাস। বাংলা বছরের প্রথম মাস। বৈশাখের প্রথম দিন নববর্ষের শুরু। বাঙালির জীবনে... বিস্তারিত
শুভ নববর্ষআবুল কালাম মনজুর মোরশেদ মানুষ নিজের প্রকৃতির মধ্যে দেশ-কালের একটি রূপকে শাশ্বত করে রাখতে চায়। নিজেকে এবং দেশকে ভালোবাসার মধ্যে একটি নিকটতম বন্ধন আছে বলে মানুষের মধ্যে দেশের একটি রূপ অবিচ্ছিন্ন ধারার মধ্য দিয়ে অবস্থান করে। দেশের প্রতি ভালোবাসার মাধ্যমে মানুষ প্রকাশ করে সাংস্কৃতিক অখ-তার প্রতি গভীর শ্রদ্ধাবোধ। অন্যের প্রতি শ্রদ্ধাহীনতা মানুষ নিজের প্রতি শ্রদ্ধার ভাবমূর্তি যেমন বিনষ্ট করেন, সেই সঙ্গে দেশের ভাবধারার রূপও অনেকাংশে বিনষ্ট করে ফেলেন।
... বিস্তারিত
গল্পনিজেরে হারায়ে খুঁজিআবুল হাসানাত পরীক্ষা শেষ করে বাবুর বেরিয়ে এসে দেখল তার কোনো সতীর্থই অপেক্ষা করেনি। হন হন করে বেরিয়ে গেছে।
এবার তারা কেউ কেউ ঢাকায়। আর সবাই ছড়িয়ে বাংলাদেশের বিশাল বিভিন্ন অঞ্চল-চট্টগ্রাম, দিনাজপুর, খুলনা, রংপুর, রাজশাহী, বরিশাল, ফরিদপুর-কিংবা কোনো না কোনো গ্রামে।
ওর মনটা উদাস হয়ে পড়ে।
সে অনেকক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকে। আকাশের দিকে তাকায়।
সূর্য আলো দিচ্ছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের এলাকা শান্ত, কোনো কোলাহল নেই। শিক্ষকরা... বিস্তারিত
যদি পুরনো জীবন ভেঙে গড়ি কাঁচা মাটির জীবনমহাদেব সাহা ভালো হয় যদি পুরনো জীবন ভেঙে গড়ি কাঁচা
মাটির জীবন
নবায়ন প্রক্রিয়ার মধ্যে যেমন পুরনো নতুন হয়
সেভাবে পুরনো ভেঙেই যদি করি নবজন্ম, নবীন সূচনা
তা হলেই শুধু কিছুটা পূর্ণ হতে পারে এই ব্যর্থ আহরণ;

আজ খুব ইচ্ছে করে নিজের মাটিতে নিজে
গড়াগড়ি যাই
বোকা এক বালকের মতো ঘুমিয়ে পড়ি একেবারে
ভর সন্ধ্যাবেলা
এই... বিস্তারিত
আমার মাতুলমাকিদ হায়দার [কবি শ্যামসুন্দর সিকদার প্রিয়জনেষু]

সব দেশে উঁচু, নিচু, কিছু লোক আছে,
এমনকি অনেক পাড়াতেও, তেমনি
আমাদের দোহারপাড়ায় আছে
আমার মাতুল।

তিনি বছর কয়েক
এদিক সেদিক লুকিয়ে ছাপিয়ে কাটিয়ে ছিলেন,

দিনকাল

যেন,
চুক্তিযোদ্ধাদের চোখ থেকে দূরে থাকা যায়,
চোখে
পড়লেই মুহূর্তেই চক্ষুশূল

গতকাল
... বিস্তারিত
ছেলে বেলা-২নাসির আহমেদ সেই ছোট চারাগুলো এখন দীর্ঘতম, বয়সে প্রবীণ
শৈশবে বাবার সঙ্গে সুপারির চারাবীজ বুনেছি একদিন।
স্পর্শের অতীত দূর উচ্চতায় চলে গেছে সৃজন আমার
যেন এ জীবন সত্যি আমার জীবন নয় অন্যেরই খামার।

কতদিন পরে ফিরে নিজের গ্রামেই আমি এখন অচেনা
সেই যে কিশোরী, যার মায়াবী দু চোখে ছিলো স্বপ্নের আলপনা
নিরন্তর ঢেউ হয়ে জ্যোৎস্নার ঘূর্ণি স্রোতে ভাসাতো হঠাৎ... বিস্তারিত
ছাই পরমাণুফারুক মাহমুদ সকল মুগ্ধতা তবে, (শেষাবধি) অন্ধকারে মেশে
কারো ফেলে-যাওয়া হাসি, কুড়োবার আয়োজন থাকে
কেউ রাখে পদ্মপাতা, পুষ্পডালি অনেকের হাতে
যথেষ্ট মানিয়ে যায় অন্তিমের আগুনকলম
প্রতীক্ষাকে ডাকতে নেই, শেকড়ের থাকে আর্তনাদ
কবোঞ্চ চিন্তার পাশে অগি্ন-অর্ঘ্য যদি এসে যায়
কে নেবে ছায়ার পাশে, অতি-শূন্য মেঘের আলোয়
প্রকাশ্যে বলার ছিল মুগ্ধতার সব আয়োজন
পূর্ণ হবে, শূন্য হবে দগ্ধভস্ম ছাইপরমাণু... বিস্তারিত
অপারেশন টেবিল থেকে-১ইকবাল আজিজ দল বেঁধে শ্বেত গোলাপের পাপড়ি হয়ে
অন্তহীন পরী নেমে আসে মহাশূন্য থেকে।
অপারেশন টেবিলে শুয়ে আছে অনন্তকাল;
টেবিলের চারপাশে জীবনের বিমূর্ত নৃত্য_
জীবন ও মৃত্যু নিয়ে অদ্ভুত ছলাকলা;
এই আছে এই নেই_ অন্তরে গভীর বিষাদ।
সবাই দল বেঁধে আমার এ মানবদেহ ঘিরে
যেন শরতের উজ্জ্বল বিকেলে শীতলক্ষ্যা নদীটির তীরে_
আমি আবার শিশুবয়সে ফিরে গেছি
আবার ঝাউবনে... বিস্তারিত
আয়ুর বর্তুলরেজাউদ্দিন স্টালিন অমর হবার সাধ মানুষের হৃদয়ে আদিম,
মানুষ রোবট হবে অভিষেক দিকে দিকে আজ।
দানব দখল নেবে এ গ্রহের হে মহামহিম,
বোধহীন প্রাণীদের আধুনিক সুশীল সমাজ।

সময় রেদার টানে মুছে যাবে লক্ষ গবেষণা,
এই যে সংসার তার তত্ত্বকথা ইচ্ছা আপামর;
জীবনের যত সাধ প্রাণাধিক প্রিয় বিবেচনা,
কিছুই থাকে না থিতু ক্ষয়ে যায় ত্রেতা ও দ্বাপর।
... বিস্তারিত
অবশেষেসরকার মাসুদ যদিও সে সাবমেরিনের দক্ষতায়
গভীর পানির গিঁঠ পার হয়ে যায়
চঞ্চল গতিতে
আর যদিও সে চোখের পলক ফেলার আগেই
টুপ করে ডুব দেয়
ইঁদুরের কানের মতো ছোট ছোট চকুরিপানায়
পানকৌড়ি কখনই প্রিয় পাখি ছিল না আমার!

সারাজীবন ঘৃণা করেছি জাদুকরের কালো পোশাক
চাইনি কোনো দিন পানকৌড়ির পালক;
এখন তোমার আশ্চর্য ভালোবাসা থেকে
গজিয়েছে... বিস্তারিত
মৃত্যু থেকে দূরেসুজন হাজারী শৈশব থেকে মৃত্যু দূরে
শিশুদের ছুঁয়ে সহজেই ফিরি শৈশবে

জীবনের লোভে নিরাপদ আশ্রয়ে
মৃত্যুকে বেছে নেয়া
গভীর মমতা জড়ানো
ডায়নামিক ভালোবাসা
শিশুদের পুতুল বিয়ের আসর।

অন্ধকারে না দেখার আড়ালে
শ্রবণে আর ঘ্রাণে ইন্দ্রিয় আঘ্রাণে।
আলোকিত জীবনের রোমাঞ্চ
পায়রার আনন্দ বাক বাকুম।... বিস্তারিত
সংকেতগোলাম কিবরিয়া পিনু সমুদ্র তীরবর্তী তৃণাচ্ছাদিত
বালির পাহাড় পার হয়ে
মাইন পাতানো এলাকায় প্রবেশ করেছি
কোন্ নৌযানে চড়ে?

জলের যে অঞ্চলে মাইন পাতা রয়েছে
সেই এলাকায় কেন নামি?
সংস্পর্শে এসে বিস্ফোরিত হলাম
লালউজানি আলোতে দৃষ্টিবিজ্ঞানের সংকেত,
বিস্ফোরণও মাঝে মাঝে
শক্তির উৎস জানিয়ে দেয়
খনিশিল্প খুঁজতে গিয়ে এমনি হয়!

আলো নিভানো অবস্থায়
ইলেকট্রনিক... বিস্তারিত
যে বৈশাখ ঝঞ্ঝায়ও সুন্দরহাসান হাফিজ বহিরঙ্গে রুদ্র তুমি খরতাপে তেজি
অভ্যন্তরে বহমান ফল্গুধারা
ক'জনা সে খোঁজ পায়
বলো হে বৈশাখ
বাজাও দুন্দুভি জ্বালো আপন ঐতিহ্যে আর
ক্লান্তি কষ্ট সুদূরে মিলাক...
রুক্ষতার আপাতকৌশলে বর্মে
নিজেকে লুকিয়ে রাখো
সমৃদ্ধি শুভতা শ্রী'র
ছবিটিও সুনিপুণ অাঁকো
হঠাৎ ঝঞ্ঝায় তোড়ে ঝলসে ওঠো
ধুলো শ্রান্তি আবর্জনা
অপ্রাপ্তির এঁটোকাঁটা
দুরন্ত ঘূর্ণিতে উড়ে
পথ... বিস্তারিত
ওখানে কৃষ্ণচূড়াদুলাল সরকার দাঁড়িয়ে কেন? সামনে এগোও
এখানে যৌবন,_ একুশের দীপ
প্রমিত ভোরের স্বরলিপি।

ওখানে কৃষ্ণচূড়া, পলাশের হাত ধরে
বসেছে গানের আসর
ওখানে রৌদ্র পরাগ, আকাশের নীল সিঁড়ি
নেমে এসেছে প্রান্ত পথের সিঁথি।

তুমি এগিয়ে আসো_
ওখানে শেকড়ের স্বর
সন্ধান দেবেই_ সকলকে ডাকো;
আমরা এই গান শুনতে শুনতে
ভাঙা ভাঙা ব্যক্তি মানুষকে ছেড়ে... বিস্তারিত
পহেলা বৈশাখতৃণমূলের গণ-উৎসবদেশ-উপযোগী বাঙালির আধুনিক সংস্কৃতি গড়ে তুলতে হবে, যা কি না একুশ শতকের উপযোগী বাঙালির লোকজ সংস্কৃতির বিকাশ ঘটিয়ে পৃথিবীর বুকে বাংলাদেশকে প্রকৃত জাতির রাষ্ট্র হিসেবে তুলে ধরবে। হাজার বছরের ঐতিহ্যকে চিন্তা-চেতনায় ধারণ করে আধুনিকরূপে বাংলা বর্ষবরণ উৎসব হোক একবিংশ শতাব্দীর বাঙালির পরিচয়- এই হোক আমাদের প্রত্যাশা ও প্রত্যয়।রবীন্দ্রনাথ অধিকারী বাঙালির অসাম্প্রদায়িক ও অখ- সংস্কৃতির প্রধান উৎসব হচ্ছে পহেলা বৈশাখ। পহেলা বৈশাখ বাঙালির প্রাণসঞ্জীবনী সুধা। একটি লোকজ তৃণমূলের গণ-উৎসব। বাঙালির ঐতিহ্য ও লোক-সংস্কৃতির অন্যতম অঙ্গ। এ উৎসব সর্বজনীনতায় ও স্বমহিমায় উদ্ভাসিত। শিকড়ের গন্ধমাখা কৃষ্টি। বাঙালির আত্মপরিচয়ের আয়না। আমাদের আশাজাগানিয়া দিন। তাই আমরা এ দিনটিতে পুরনোর জীর্ণতা, গ্লানি-ভেদ ভুলে নতুনকে আহ্বান করি। নব-আনন্দে মেতে উঠি। বেজে ওঠে নতুনের ঢাক, আমরা ফিরে পাই নতুনের বাঁক। পুরনো বছরের... বিস্তারিত
 
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin