ট্রাম্প একজন 'লুজার', হারের জন্য অজুহাত খুঁজছেন: হিলারিজ্জ পিছিয়ে আছি, কিন্তু হাল ছাড়িনি : ট্রাম্প শিবির জ্জ ওবামার প্রচারণার লক্ষ্য সিনেটে সংখ্যাগরিষ্ঠতা জ্জ সর্বশেষ জরিপে ১২ পয়েন্টে এগিয়ে হিলারিযাযাদি ডেস্ক ডেমোক্রেটিক পার্টির মনোনীত প্রার্থী হিলারি ক্লিনটনআমেরিকার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্রেটিক পার্টির মনোনীত পদপ্রার্থী হিলারি ক্লিনটন গত রোববার নির্বাচনী প্রচারণায় নেমে বলেছেন, ট্রাম্প একজন 'লুজার'। তিনি পরাজয়ের জন্য এখন থেকেই অজুহাত খুঁজতে শুরু করেছেন এবং এর দায় অন্যের ওপর চাপানোর চেষ্টায় রয়েছেন। সর্বশেষ টেলিভিশন বিতর্কে রিপাবলিকান প্রার্থী ট্রাম্প নির্বাচনে হারলে ফল মেনে নেবেন না বলে মন্তব্য করায় ট্রাম্প সম্পর্কে এসব কথা বলেন হিলারি। এদিকে, ট্রাম্পের প্রচারশিবির স্বীকার করেছে, তারা হিলারির চেয়ে কিছুটা হলেও পিছিয়ে আছে। তবে তারা এখনই হাল ছেড়ে দিতে নারাজ। ট্রাম্পের পিছিয়ে থাকার বিষয়টি উঠে এসেছে সর্বশেষ জরিপেও। এবিসি নিউজের এক জরিপে দেখা গেছে, হিলারির জনসমর্থন ৫০ শতাংশ ছুঁয়েছে এবং তিনি ট্রাম্পের চেয়ে ১২ পয়েন্টের পরিষ্কার ব্যবধানে এগিয়ে আছেন। সংবাদসূত্র : রয়টার্স, সিএনএন, ওয়াশিংটন পোস্ট
আগামী ৮ নভেম্বরের নির্বাচনের আর মাত্র ১৩ দিন বাকি। শেষ মুহূর্তে হিলারি তার ব্যস্ত সময়গুলো মূলত ডেমোক্র্যাটদের শক্ত ঘাঁটি এবং শক্ত লড়াই হতে পারে, এমন অঙ্গরাজ্যগুলোতে ছুটে বেড়াচ্ছেন। গত রোববার তিনি নর্থ ক্যারোলিনার শার্লট শহরে ইউনিভার্সিটি অব নর্থ ক্যারোলিনায় প্রচার চালান। সেখানেই তিনি আমেরিকার নির্বাচন নিয়ে ট্রাম্পের বিতর্কিত মন্তব্যের সমালোচনা করেন।
তিনি আরো বলেন, এ ধরনের মানসিকতা অগণতান্ত্রিক ও স্বৈরাচারদের মধ্যে দেখা যায়, যারা নির্বাচনে হার মেনে নিতে চান না। কিন্তু এটা আমেরিকার গণতান্ত্রিক আদর্শের সঙ্গে যায় না।
হিলারি বলেন, 'যেসব কারণে আমেরিকা এত মহান ও শক্তিশালী একটি দেশ, তার অন্যতম হলো_ শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তর।'
ডেমোক্রেটিক পার্টির মনোনীত এই প্রার্থী প্রতিপক্ষ ট্রাম্পের এমন আচরণের কথা উল্লেখ করে ভোটারদের বলেন, 'আমাদের কাজ এগিয়ে যাওয়া।'
শার্লটের জনসভার পর তিনি এই অঙ্গরাজ্যে আরো কয়েকটি নির্বাচনী সভায় যোগ দেন। অঙ্গরাজ্যের রাজধানী র‌্যালেইগে এক নির্বাচনী প্রচারসভায় ভোটারদের আগাম ভোট দিতে উৎসাহিত করে বক্তব্য রাখেন তিনি।
তিনি বলেন, 'আজ থেকে ৫ নভেম্বর পর্যন্ত আপনারা আপনাদের নিজ নিজ কাউন্টিতে নির্ধারিত কেন্দ্রে গিয়ে আগাম ভোট দিতে পারবেন। আপনারা সবাই উৎসাহের সঙ্গে ভোট দিন। এটা আমাদের এগিয়ে রাখতে বড় ধরনের সাহায্য করবে।'
তিনি নর্থ ক্যারোলিনা থেকে বর্তমান রিপাবলিকান সিনেটরের বদলে সেখানে একজন ডেমোক্রেটিক প্রার্থীকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করার জন্যও ভোটারদের প্রতি আহ্বান জানান।
আগাম ভোটের ব্যাপারে ট্রাম্পশিবিরও যথেষ্ট উৎসাহ নিয়ে প্রচার চালাচ্ছে। গত রোববার ট্রাম্প ফ্লোরিডার নেপলসে নির্বাচনী সভায় তাকেসহ রিপাবলিকান সিনেটের প্রার্থীদের আগাম ভোট দেয়ার আহ্বান জানান।
ট্রাম্প সাধারণত রোববার কোনো প্রচারণায় অংশ নেন না। কিন্তু শেষ মুহূর্তে একটি দিনও নষ্ট করতে না চাওয়ায় ফ্লোরিডায় প্রচারে নেমে ট্রাম্প বলেন, 'আপনাদের হাতে অল্প সময় আছে। আপনাদের ঘর থেকে বেরোতে হবে এবং ভোটকেন্দ্রে গিয়ে আমাকে আর রিপাবলিকানদের ভোট দিতে হবে।'
উল্লেখ্য, আমেরিকায় প্রেসিডেন্ট এবং সিনেট নির্বাচনে আগাম ভোট দেয়ার ব্যবস্থা রয়েছে। ভোটারদের মধ্যে যাদের নির্বাচনের নির্ধারিত দিনে কাজ রয়েছে, তারা আগেই পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিয়ে রাখতে পারেন। এই সুযোগটা এবার ডেমোক্রেটিক এবং রিপাবলিকান পার্টি উভয় শিবিরই যথেষ্ট গুরুত্বের সঙ্গে নিচ্ছে এবং ভোটারদের উৎসাহিত করতে প্রচার চালাচ্ছে।
তবে এদিনের প্রচারেও ট্রাম্পের নির্বাচনী ফল মেনে না নেয়ার মন্তব্যের জের ছিল। গত রোববার প্রচারে নেমে ট্রাম্পের ছেলে এরিক বলেন, নির্বাচনের ফল স্বচ্ছ হলে তার বাবা শতভাগ মেনে নেবেন। এক টেলিভিশন সাক্ষাৎকারে এরিক বলেন, 'আমি বলতে চাইছি, আমার বাবা আসলে বলতে চাইছেন, তিনি একটি স্বচ্ছ ও প্রভাবমুক্ত নির্বাচন চান। আর এমন নির্বাচন হলে তার ফল তিনি নিশ্চিতভাবেই মেনে নেবেন, এতে কোনো সন্দেহের অবকাশ নেই।'
এদিকে, গত রোববার ট্রাম্পের প্রার্থিতার প্রশংসা করে প্রথম বড় কোনো পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। রিপাবলিকানদের কট্টর সমর্থক ব্যবসায়ী শেলডন অ্যাডেলসনের মালিকানাধীন পত্রিকা 'লাস ভেগাস রিভিউ'তে গত রোববার ট্রাম্পের প্রশংসা করে একটি প্রতিবেদনে ভোটারদের তাকে ভোট দিতে আহ্বান জানানো হয়।
পিছিয়ে থাকলেও হাল ছাড়ছে না ট্রাম্পশিবির
প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের মাত্র দুই সপ্তাহ আগে ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রার্থী হিলারির তুলনায় পিছিয়ে থাকার কথা স্বীকার করেছে ট্রাম্পের প্রচার শিবির। শনিবার রাতে দলটির প্রচারণা শিবিরের ম্যানেজার ক্যালিয়ানি কনওয়ে বলেন, 'আমরা পিছিয়ে আছি, হিলারি কিছুটা সুবিধাজনক অবস্থানে আছেন। তবে আমরা হাল ছাড়ছি না। কারণ, আমরা জানি, আমরা জিততে পারি।'
ট্রাম্পশিবির অভিযোগ করেছে, হিলারির প্রচারশিবির অর্থনৈতিকভাবে সুবিধাজনক অবস্থানে থাকায় তারা রিপাবলিকান প্রার্থীর বিরুদ্ধে অপপ্রচারও চালাতে পারছে। কনওয়ে বলেন, 'হিলারির সঙ্গে আছেন তার সাবেক প্রেসিডেন্ট স্বামী, যিনি তার হয়ে প্রচার চালাচ্ছেন। আছেন বর্তমান প্রেসিডেন্ট ও ফার্স্ট লেডি, এমনকি ভাইস প্রেসিডেন্ট জে বাইডেনও, যারা হিলারির চেয়েও বেশি জনপ্রিয় এবং তারা তাকে আশা দিচ্ছেন।'
নির্বাচনে দল পিছিয়ে থাকার বিষয়টি স্বীকার করার পাশাপাশি এদিন ট্রাম্পও প্রথমবারের মতো বলেন, হার-জিত কিংবা ড্র_ সব ব্যাপারেই তিনি নিজেকে নিয়ে সন্তুষ্ট থাকবেন।
সিনেটে সংখ্যাগরিষ্ঠতা লক্ষ্য ওবামার
এদিকে, হিলারি ক্লিনটনের পক্ষে গত রোববার কঠোর প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ নেভাদা অঙ্গরাজ্যে প্রচার চালান প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। সেখানে তিনি ভোটারদের হিলারিকে ভোট দেয়ার জন্য উৎসাহিত করেন। একই সঙ্গে ওবামার প্রচারের অন্যতম লক্ষ্য ছিল এই অঙ্গরাজ্যে ডেমোক্রেটিক পার্টির সিনেটর পদপ্রার্থীদের জয়ী করার জন্যও প্রচার চালানো।
ডেমোক্র্যাটরা এবার যে কোনো মূল্যে সিনেটের সংখ্যাগরিষ্ঠতা ফিরে পেতে চাইছে। আর তাই গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গরাজ্যগুলোতে সিনেটর পদপ্রার্থীদের হয়ে প্রচার চালাচ্ছেন ওবামা, মিশেল ওবামা এবং বার্নি স্যান্ডার্সের মতো জনপ্রিয় ব্যক্তিত্বরা। নেভাদায় ওবামা মূলত সেখান থেকে তিনবারের নির্বাচিত সিনেটর জো হেকের সমালোচনা করে ভোটারদের ডেমোক্র্যাট প্রার্থীকে ভোট দেয়ার জন্য উৎসাহিত করেন। তিনি ভোটারদের বলেন, হেক আগে ট্রাম্পের সমর্থক ছিলেন। এখন তিনি সমর্থন প্রত্যাহার করে নিলেও আগে যা বলেছেন, তার রেকর্ড আছে। অতএব তাকে ভোট দেয়া নিরাপদ হবে না। এদিন হিলারির প্রচারের ফান্ড সংগ্রহের জন্য একটি ডিনারেও অংশ নেন ওবামা। সেখানে ১০ হাজার ডলার চাঁদা দিয়ে ৬০ জন ব্যক্তি প্রেসিডেন্ট ওবামার সঙ্গে ডিনারে অংশ নেন। ওবামা ডিনারের অতিথিদের হিলারিকে নির্বাচিত করতে ভূমিকা রাখার আহ্বান জানান।
 
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin
close