জুলহাস-তনয়ের হত্যাকারীদের খুঁজে পাচ্ছে না আইনশৃঙ্খলা বাহিনীযাযাদি রিপোর্ট মাহবুব তনয়রাজধানীর কলাবাগানের ইউএসএইড কর্মকর্তা জুলহাস মান্নান ও তার বন্ধু মাহবুব তনয়ের হত্যাকারীদের খুঁজে পাচ্ছেন না আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। হত্যার ছয় মাস পরও মামলার তদন্তের উল্লেখযোগ্য কোনো অগ্রগতিও হয়নি।
আসামিদের গ্রেপ্তার করতে কত সময় লাগবে এবং মামলার চার্জশিট কবে দেয়া হবে সে বিষয়ে কিছু বলতে পারছেন না তদন্ত সংস্থা ডিবি পুলিশ। মামলার তদন্তের অগ্রগতি নিয়েও হতাশ নিহত জুলহাসের পরিবারের সদস্যরা।
এ বিষয়ে ডিবি পুলিশের অতিরিক্তি উপ-কমিশনার (এডিসি) রাজিব আল মাসুদ বলেন, জুলহাস ও তনয় হত্যার সঙ্গে জড়িত আসামিদের খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। ঘটনার সঙ্গে জড়িত ছয়/সাতজন আনসারুল্লাহ বাংলাটিমের সদস্যকে শনাক্ত করা হয়েছে।
তিনি আরও বলেন, মামলার তদন্ত কাজ চলছে। তদন্তের উল্লেখযোগ্য তেমন কোনো অগ্রগতি হয়নি। ঘটনার সঙ্গে জড়িত আসামিদের কবে গ্রেপ্তার করা যাবে এবং মামলার চার্জশিট কবে দেয়া হবে সে বিষয় কিছুই বলা যাচ্ছে না।
মামলার বাদী ও জুলহাসের বড় ভাই মিনহাজ মান্নান ইমন বলেন, 'মামলার তদন্তের অগ্রগতির বিষয় তদন্ত সংস্থা ডিবি পুলিশ আমাদের সঙ্গে কোনো যোগাযোগ করছে না। তদন্ত নিয়ে আমাদের পরিবার হতাশ। আমরা চাই আমার ভাই হত্যার বিচার।'
তিনি আরও বলেন, 'সরকারের কাছে আমাদের আকুল আবেদন আমার ভাই জুলহাসের হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তার করা হোক। মামলাটির রায় যত দ্রুত হবে আমাদের পরিবার তত শান্তি পাবে।'
২০১৬ সালের ২৫ এপ্রিল রাজধানীর উত্তর ধানমন্ডির কলাবাগানের ৩৫ নাম্বার বাসায় চার/পাঁচজন জুলহাস সাহেবের পার্সেল আছে বলে বাসায় প্রবেশ করে। বাসায় প্রবেশ করার পর দুর্বৃত্তরা ইউএসএইড কর্মকর্তা জুলহাস মান্নান ও তার বন্ধু থিয়েটারকর্মী মাহবুব তনয়কে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে। পরে তারা ফাঁকা গুলি ছুড়ে বাসা থেকে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় জুলহাসের বড় ভাই মিনহাজ মান্নান ইমন বাদী হয়ে কলাবাগান থানায় একটি মামলা করেন। মামলাটি বর্তমানে তদন্ত করছেন ডিবি রমনা জোনাল টিমের পরিদর্শক বাহাউদ্দিন ফারুক। মামলায় আটক শরিফুল ইসলাম নামের এক আসামি জেলহাজতে।
জুলহাস ও তার বন্ধু তনয় হত্যার পর বাংলাদেশে সফরে আসেন মার্কিন দক্ষিণ এশিয়াবিষয়ক সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিশা দেশাই। তিনি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালের সঙ্গে বৈঠকে জুলহাস ও তনয় হত্যাকা-ে জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনার দাবি জানান।
জুলহাস সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী দীপু মনির খালাত ভাই এবং বাংলাদেশে প্রকাশিত সমকামীদের প্রথম পত্রিকা 'রূপবান'-এর সম্পাদক।
 
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin