পরবর্তী সংবাদ
পেশাগত অসদাচরণের দায়ে তিন আইনজীবী আজীবন নিষিদ্ধআইন ও বিচার ডেস্ক পেশাগত অসদাচরণের অভিযোগে আইনজীবীদের সনদ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান ও দেশের আইন পেশার সর্বোচ্চ সংস্থা বাংলাদেশ বার কাউন্সিল তিন আইনজীবীকে আইন পেশা থেকে অপসারণ করেছে। এরা হলেন_ চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্য অ্যাডভোকেট মো. শফিউল আজম ও অ্যাডভোকেট মো. তসলিম উদ্দিন এবং ঢাকা আইনজীবী সমিতির সদস্য অ্যাডভোকেট মিনারা খাতুন লাকি। গত ১৮ অক্টোবর দুপুরে বার কাউন্সিলের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত পৃথক দুটি সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তিন আইনজীবীর অপসারণের তথ্য জানানো হয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, অ্যাডভোকেট মিনারা খাতুন লাকির বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ হচ্ছে তিনি একটি দায়রা মোকদ্দমায় (মামলা নং ৩৪০/২০১১) বাদিনী মোসাম্মৎ বিউটির স্বামীকে জামিন করিয়ে দেবেন বলে ভুয়া, বানোয়াট ও সাজানো জামিননামা এবং রিলিজ আদেশ তৈরি করে বাদীর কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের উদ্দেশ্যে মক্কেলের সঙ্গে প্রতারণা করেছেন। অভিযোগটি পরে সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় ৫ নাম্বার ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান মো. পারভেজ আলম খান ও সদস্য মো. মাসুদ সালাউদ্দিন অভিযুক্ত আইনজীবী মিনারা খাতুন লাকিকে আইন পেশা থেকে স্থায়ীভাবে অপসারণের আদেশ দেন। অন্যদিকে, চট্টগ্রাম বারের দুই আইনজীবীর বিরুদ্ধে অভিযোগ হচ্ছে_ একটি নালিশি সম্পত্তির বিষয়ে চট্টগ্রাম যুগ্ম জেলা জজ আদালতে বাদী মো. মোসাদ্দেক চৌধুরী মোকদ্দমা দায়ের (মামলা নং- ১৮১/০৮) করলে ওই মামলায় নিয়োজিত আইনজীবীদ্বয় অ্যাডভোকেট মো. শফিউল আজম ও অ্যাডভোকেট মো. তসলিম উদ্দিন পরস্পর যোগসাজশে ওই সম্পত্তি নিজ ও স্ত্রীদের নামে রেজি. বায়নানামা তৈরি করেন। পরে আইনজীবীদ্বয়ের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ প্রমাণিত হলে পেশাগত অসদাচরণের দায়ে ১ নাম্বার ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান মো. ইয়াহিয়া ও সদস্য মো. পারভেজ আলম তাদের আইন পেশা থেকে স্থায়ীভাবে অপসারণের আদেশ দেন বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

 
পরবর্তী সংবাদ
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin
close