পূর্ববর্তী সংবাদ
মঞ্চনাটক নিয়ে তারকাদের ভাবনাদীর্ঘদিন ধরেই মঞ্চনাটকে নানা সংকট চলছে। এর সমস্যা যেন কোনোভাবেই দূর হচ্ছে না। এই চিন্তা থেকেই তারকারা এবার মঞ্চনাটকের বিভিন্ন সমস্যা ও সংকট নিয়ে তাদের মতামত দিয়েছেন। এ তালিকায় রয়েছেন- রামেন্দু মজুমদার, মামুনুর রশীদ, আতাউর রহমান।রামেন্দু মজুমদাররামেন্দু মজুমদার
দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন সমস্যার মধ্য দিয়ে মঞ্চনাটকের সময়কাল যাচ্ছে। এ সমস্যা মধ্যে রয়েছে ভালো পা-ুলিপির অভাব, এ সময়ের তারকাদের মঞ্চের প্রতি অনাগ্রহ, যথাযথ থিয়েটারের অভাব, পৃষ্ঠপোষকতার অভাব ইত্যাদি কারণে মঞ্চনাটকের অবস্থা আজ তলানিতে। বিশেষ মানসম্পন্ন মৌলিক পা-ুলিপির অভাবে এখন মঞ্চনাটকে চমৎকারিত্ব তৈরি হচ্ছে না। যার ফলে দর্শক আগ্রহ হারাচ্ছে। এছাড়া টিভি চ্যানেলের নাটকের প্রতি এ প্রজন্মের ছেলেমেয়েদের ঝোঁক অনেকাংশে বেশি। কারণ এর মাধ্যমে অর্থের পাশাপাশি পরিচিতটাও আসছে বেশি। আর পা-ুলিপির জন্য যথাযথ সম্মানী না পাওয়ায়ও এতে লেখকরা আগ্রহটা পাচ্ছেন না।
আতাউর রহমান
এটা সত্য যে, স্বাধীনতা-পূর্ববর্তী সময়ে আমাদের নাটকের অঙ্গনে দেশি নাট্যকারদের বিশাল ভূমিকা ছিল। '৬৮ সালে নাগরিক নাট্যসম্প্রদায় প্রতিষ্ঠার পর দেশি নাট্যকারদের নাটকগুলোই আমরা বেশি করেছি। নুরুল মোমেন, আসকার ইবনে শাইখ, মুনীর চৌধুরীর মতো নাট্যকাররা তাদের সৃজনশীলতাকে দিয়ে আমাদের নাট্যাঙ্গনকে সমৃদ্ধ করেছিলেন। স্বাধীনতা-পরবর্তীতে ১৯৭২ সালে মহিলা সমিতির মঞ্চে দর্শনীর বিনিময়ে প্রথম মঞ্চনাটক শুরু হয়। আর নাগরিক নাট্যসম্প্রদায় সেই গর্বিত ইতিহাসের ধারক বাহক। পরবর্তী সময়ে আমাদের মমতাজউদ্দীন আহমদ, মামুনুর রশীদ, সৈয়দ শামসুল হকরা ভালো লিখেছেন। তাদের নাটকগুলোও সমাদৃত। এরপরে মানসম্পন্ন পা-ুলিপি না পাওয়ায় বিদেশি নাট্যকারদের প্রতি আমরা নির্ভর হয়ে পড়ি।
কেরামত উল্লাহ্
এখন শিল্পবোধসম্পন্ন নাট্যকাররা লিখছেন না। সৈয়দ শামসুল হক খুব কম লিখছেন। সেলিম আল দীনের মতো নাট্যকাররা আমাদের মাঝে নেই। মঞ্চনাটক লিখতে হলে যে ধরনের অভিজ্ঞান ও অভিজ্ঞতা দরকার সে ধরনের অভিজ্ঞান এখনকার অনেক লেখকের মধ্যেই নেই। শিল্পবোধ না থাকলে মঞ্চনাটক লেখা যায় না। মঞ্চনাটকে কোনও ধরনের প্রাপ্তি নেই বলে অনেকেই এখন আর মঞ্চের জন্য নাটক লিখছেন না। টেলিভিশনে প্রাপ্তি আছে বলে নাট্যকাররা এখন টিভি নাটক লেখায় ব্যস্ত। তবে এটাও ঠিক যে, টেলিভিশন নাটক ও মঞ্চনাটক রচনার ক্ষেত্রে ভীষণ পার্থক্য রয়েছে।
ড. ইনামুল হক
অনেক বলে, আমাদের এখানে ভালো নাট্যকারের অভাব রয়েছে। এটা আমি খুব একটা মানতে পারি না। নানা প্রতিকূলতার মধ্যেও আমাদের নাটকের অঙ্গনেও অনেক মানসম্পন্ন নাট্যকার রয়েছে। তাদের সেভাবে মূল্যায়ন করা হচ্ছে না। মানসম্পন্ন অচেনা নাট্যকারদের তুলে ধরতে সাংবাদিকদেরও একটা বিশাল ভূমিকা রয়েছে। নাটকের মানুষদের পাশাপাশি সাংবাদিকদেরও এই বিষয়ে এগিয়ে আসতে হবে। মানসম্পন্ন নাট্যকারদের যদি মূল্যায়ন করা হয় তাহলে তারা ভালো কাজের অনুপ্রেরণা পাবেন। আর বিদেশি নাটক আমরা সরাসরি অনুবাদ করছি না, রূপান্তর করছি। বিদেশি গল্পের ছায়া অবলম্বনে নাটকে দেশি বিষয়কে তুলে ধরার চেষ্টা করেছি।
 
পূর্ববর্তী সংবাদ
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin
close