রহস্য এখনও অধরামুন্সীগঞ্জের মাজারে দুই নারীর গলাকাটা লাশমুন্সীগঞ্জের সদর থানার ওসি মো. আলমগীর জানান, ভিটিকান্দি গ্রামের হজরত শাহ সুলায়মান ন্যাংটার মাজারে বুধবার ভোরের দিকে বা রাতের কোনো এক সময় হত্যাকা-ের এ ঘটনা ঘটেমুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার একটি মাজার থেকে দুই নারীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।
সদর থানার ওসি মো. আলমগীর জানান, ভিটিকান্দি গ্রামের হজরত শাহ সুলায়মান ন্যাংটার মাজারে বুধবার ভোরের দিকে বা রাতের কোনো এক সময় হত্যাকা-ের এ ঘটনা ঘটে।
নিহতরা হলেন_মাজারের নারী খাদেম আমেনা বেগম (৭০) ও তাজেল খাতুন (৫০) নামে এক ভক্ত।
ওসি মো. আলমগীর সাংবাদিকদের বলেন, 'সকালে খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে মাজারের ভেতরে দুই নারীর লাশ দেখতে পায়। তাদের গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে। কে বা কারা এর সঙ্গে জড়িত সে বিষয়ে কিছু জানা যায়নি। ঘটনা তদন্ত করা হচ্ছে।' মঙ্গলবার রাতের কোনো একসময় তাদের হত্যা করা হয় বলে জানিয়েছেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মোস্তাফিজুর রহমান।
তিনি বলেন, 'ঘটনাস্থল থেকে মানিব্যাগসহ কিছু আলামত উদ্ধার করা হয়েছে। আর খুনি গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।'
নিহত আমেনা মাজারের খাদেম ছিলেন জানিয়ে ওসি আলমগীর বলেন, এখানে প্রতি বৃহস্পতিবার জিকির হয়। এ উপলক্ষে বিভিন্ন জায়গা থেকে লোকজন আসে। তাজেল খাতুন মঙ্গলবার ঢাকা থেকে এখানে আসেন। তিনি মাঝেমধ্যেই আসতেন বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে।
মুন্সীগঞ্জ পৌরসভার সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর হোসনে আরা জানিয়েছেন, মাজারটির জমির মালিক স্থানীয় মাসুদ কোতোয়াল আমেনাকে মা ডাকতেন। বছর পনের আগে রাস্তার পাশের নিচু জমিতে মাটি ভরাট করে এখানে একটি ঘর তুলে 'শাহ সুলায়মান ন্যাংটা' লেখা সাইনবোর্ড ঝোলানো হয়। সুলায়মান ন্যাংটা সম্পর্কে তিনি কিছু জানেন না।
এলাকাবাসীও সুলায়মান ন্যাংটার পরিচয় সম্পর্কে কিছু বলতে পারেনি। তবে প্রতিবছর এখানে বড় আকারে জিকির অনুষ্ঠান হয় বলে কাউন্সিলর হোসনে আরাসহ স্থানীয়রা জানিয়েছেন।
মাজারের খাদেম মো. মাসুম শাহ জানান, সকাল সাড়ে সাতটার দিকে মাজার পরিষ্কার করতে এসে মূল দরজার সামনে অনেক রক্ত দেখতে পান। দরজা খুলে ভেতরে ঢুকে আমেনা ও তাজেলের লাশ দেখেন। বিষয়টি দ্রুত পুলিশকে জানান।
নিহত তাজেল খাতুনের ভাতিজা মো. বরকতুল্লা বলেন, 'আমার ফুপু এই মাজারের একজন ভক্ত ছিলেন। তিনি ঢাকায় থাকতেন। সেখান থেকেই মাঝেমধ্যে এখানে আসতেন। তার কোনো শত্রু ছিল না।'
মুন্সীগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আলমগীর হোসেন আরও বলেন, এক বা একাধিক ব্যক্তি এই খুনের সঙ্গে জড়িত থাকতে পারে। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মুন্সিগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।
 
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
প্রথম পাতা -এর আরো সংবাদ
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin
close