পূর্ববর্তী সংবাদ
লাকসামে ফসলি জমি কেটে মাটি উত্তোলনহাকিমপুরে নিয়ম মানছেন না ইজারাদার হ মধুপুরে পাহাড় কাটছে প্রভাবশালীরাস্বদেশ ডেস্ক কুমিলস্নার লাকসাম উপজেলায় ফসলি জমিতে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। টাঙ্গাইলের মধুপুরে পাহাড় কাটছেন প্রভাবশালীর। দিনাজপুরের হাকিমপুরে ইজারাদার বালু উত্তোলনে নিয়মন মানছেন না। সংবাদদাতাদের পাঠানো খবর :
লাকসাম (কুমিলস্না) : উপজেলায় ফসলি জমিতে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। এর ফলে পরিবেশ ও ঘরবাড়ি হুমকির মুখে পড়েছে। এর মাধ্যমে এক শ্রেণির স্বার্থন্বেষী মহল বিপুল পরিমাণ অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে।
সরেজমিন দেখা গেছে, লাকসাম উপজেলা ও পৌর এলাকার বিভিন্ন স্থানে অবৈধভাবে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে ফসলি জমি কেটে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। ড্রেজার ব্যবসায়ীরা সড়কের ওপর দিয়ে ড্রেজার মেশিনের পাইপ বসিয়ে ও রাস্ত্মা কেটে পথচারী ও যান চলাচলে বিঘ্ন ঘটাচ্ছে। অন্যদিকে জমির উপরিভাগ কাটার ফলে উর্বরতা নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। এতে ফসলি জমিগুলোতে ঠিকমত আবাদ করা যাচ্ছে না। স্থানীয়দের অভিযোগ, উপজেলা প্রশাসন ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানরা বালু উত্তোলনকারী ও ড্রেজার মালিকদের বিরম্নদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছেন না।
উপজেলার গোবিন্দপুর, সালেপুর, হামিরাবাগ, শ্রীয়াং, কান্দিরপাড়, মসুন্দুপুর, মুদাফরগঞ্জ, বিজরা, আজগরা ও উত্তরদা, রাজাপুরসহ পৌর এলাকার বিভিন্ন স্থানে ফসলি জমি থেকে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। কৃষি জমি থেকে বালু উত্তোলন ও মাটি কাটা বন্ধে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওইসব ড্রেজার মেশিন বন্ধের নির্দেশ দিলেও সেটা মানছে না প্রভাবশালীরা।
এ বিষয়ে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. ইসমাইল হোসেন যায়যায়দিনকে জানান, সরকারের বালুমহাল আইনে ফসলি জমি কেটে বালু উত্তোলন করা অবৈধ। এ বিষয়ে উপজেলা আইনশৃঙ্খলা সভায় ইতোমধ্যে কৃষি জমি থেকে বালু উত্তোলন ও মাটি কাটা বন্ধে সংশিস্নষ্টদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। যারা আইন লংঘন করে কৃষি জমি থেকে বালু উত্তোলন ও মাটি কাটার সঙ্গে জড়িত থাকবে, ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তাদের শাস্ত্মি প্রদানসহ আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
মধুপুর (টাঙ্গাইল) : উপজেলার আলোকদিয়া ইউপি সদস্য আবদুল জলিলের বিরম্নদ্ধে পাহাড় কেটে ইটভাটায় মাটি বিক্রির অভিযোগ করা হয়েছ। অবৈধভাবে পাহাড়ের মাটি কাটা বন্ধের দাবি জানিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে এলাকাবাসীর পক্ষে লিখিত অভিযোগ করেছেন মো. ফারম্নক হোসেন নামে এক ব্যক্তি। সরেজমিন দেখা যায়, ভেকু দিয়ে শিবরামবাড়ি গ্রামের মহিষবাতান ঘাট ও দক্ষিণ লাউফুলা গ্রামে পাহাড় কাটার কাজ চলছে। প্রতি ট্রাক মাটি বিক্রি হচ্ছে ৭০০-১০০০ টাকায়। নিজস্ব হাইড্রলিক ট্রাক দিয়ে বিভিন্ন ইটভাটা ও ব্যক্তির কাছে মাটি বিক্রি করে হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে কোটি টাকা।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন জানান, পাহাড় কেটে মাটি বিক্রি করায় পাহাড় ধ্বসে যেকোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। অভিযুক্ত ইউপি সদস্য আবদুল জলিল বলেন, আমি যাদের জমির মাটি কাটি তারা জানিয়েছে, সেটি নাকি তাদের রেকর্ডভুক্ত জমি।
এ ব্যাপারে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) রমেন্দ্র নাথ বিশ্বাস জানান, প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে উপজেলা সার্ভেয়ারকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
হাকিমপুর (দিনাজপুর) : হাকিমপুরে এক বালুমহাল ইজারাদারের বিরম্নদ্ধে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপজেলার মাধবপাড়া গ্রামের মেহের আলী নামক এক কৃষকসহ একই গ্রামের আরও ৪৯ জন কৃষক ও গ্রামবাসী ৪ ডিসেম্বর ইউএনও বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।
অভিযোগে জানা গেছে, উপজেলার খট্টামাধবপাড়া ইউনিয়নে যমুনা নদীর মাধবপাড়া বালুর ঘাটসহ পার্শ্ববর্তী আরও দুটি ঘাটে বিরামপুর উপজেলার মুশফিকুর রহমান নামে এক ব্যক্তি অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করছেন। চলতি বাংলা হালসনের জন্য তিনি বালুরঘাট ইজারা নিয়েছেন। প্রথম থেকেই তিনি নদীর বালুমহালের ইজারার আড়ালে ফসলি জমি ও নদীর ইজারাকৃত দাগের বাইরের অংশ থেকে বালু উত্তোলন করছেন। সাত মাস ধরে দুটি ড্রেজার মেশিন দিয়ে শত শত ফিট গভীর করে বালু উত্তোলন করে চলছে। ফলে একদিকে যেমন ভুক্তভোগী কৃষকদের জমি নদীগর্ভে বিলীন হচ্ছে অপরদিকে বর্ষা মৌসুমে নদীর তীর ভেঙে নিকটবর্তী মাধবপাড়া গ্রামটিও নদীগর্ভে বিলীন হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।
ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক ও গ্রাবাসীর পক্ষ থেকে এই অবৈধ বালু উত্তোলনে বাধা দিলে ইজারাদারের নিয়োগকৃত লোকজনের হুমকির মুখে নিরম্নপায় হয়ে এর প্রতিকার চেয়ে তারা ইউএনও বরাবর অভিযোগ দায়ের করেছেন।
এ ব্যাপারে মঙ্গলবার মুঠোফোনে ইউএনও মোসাম্মৎ শুকরিয়া পারভীনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আইন মেনে বিধিমোতাবেক ব্যবস্থা নেয়া হবে।
 
পূর্ববর্তী সংবাদ
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
স্বদেশ -এর আরো সংবাদ
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin