পূর্ববর্তী সংবাদ
১০ ডিসেম্বর জানা যাবে টাইগারদের নতুন কোচের নামএক দশকের পরিকল্পনা উপস্থাপন পাইবাসেরপাইবাসের প্রেজেন্টেশন নিঃসন্দেহে ভালো ছিল। উনি ভবিষ্যৎ নিয়ে কথা বলেন, ১০ বছরের একটা দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা নিয়ে এসেছেন। আমাদের এখন দুটোই দেখতে হবে দীর্ঘমেয়াদি এবং স্বল্পমেয়াদি। সামনে বিশ্বকাপ আছে। সেটাও আমাদের জন্য অনেক গুরম্নত্বপূর্ণ - নাজমুল হাসান পাপনক্রীড়া প্রতিবেদক বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সংক্ষিপ্ত তালিকায় থাকা তিন কোচের মধ্যে রিচার্ড পাইবাস বাংলাদেশের ক্রিকেট নিয়ে তার পরিকল্পনা উপস্থাপন করেছেন। সুদুরপ্রসারী পরিকল্পনাই উপস্থাপন করেছেন তিনি। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন জানিয়েছেন, আগামী ১০ বছরের পরিকল্পনা নিয়েই বাংলাদেশে এসেছেন ইংলিশ বংশোদ্ভূত এই দক্ষিণ আফ্রিকান কোচ। পাইবাসের সঙ্গে আপাতত আলাপ আলোচনা শেষ বিসিবির, আজ সকালেই তিনি ফিরে যাবেন নিজ দেশে।
পাইবাসের পরিকল্পনা দেখে বিসিবি সন্তুষ্ট হলেও টাইগারদের প্রধান কোচের চাকরি তার নিশ্চিত হয়ে যাচ্ছে, ব্যাপারটা এমন নয়। ৯ ডিসেম্বর বিসিবিতে এসে পরিকল্পনা উপস্থাপন করবেন আরেক প্রার্থী আয়ারল্যান্ড আর ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাবেক কোচ ফিল সিমন্স। তার আসার আগেই আরও একজন কোচের পরীক্ষা দেয়ার সম্ভাবনা আছে। বিসিবি সভাপতি জানিয়েছেন, আগামী ১০ ডিসেম্বর নতুন কমিটির প্রথম বোর্ড সভায় নিশ্চিত হয়ে যাবে কে হচ্ছেন চন্ডিকা হাথুরম্নসিহের উত্তরসূরি।
লম্বা সময় ধরে পাইবাসের কর্মপরিকল্পনা শুনে সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হন নাজমুল হাসান। তিনি বলেন, 'পাইবাসের প্রেজেন্টেশন নিঃসন্দেহে ভালো ছিল। উনি ভবিষ্যৎ নিয়ে কথা বলেন, ১০ বছরের একটা দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা নিয়ে এসেছেন। আমাদের এখন দুটোই দেখতে হবে দীর্ঘমেয়াদি এবং স্বল্পমেয়াদি। সামনে বিশ্বকাপ আছে। সেটাও আমাদের জন্য অনেক গুরম্নত্বপূর্ণ। 'তিনি যা চান বা যেরকম বলছেন এখনই হয়তো তা বাস্ত্মবায়নের পথে নিতে পারব না। তবে ক্রমান্বয়ে পরিকল্পনা কাজে লাগাতে পারলে আমি মনে করি বাংলাদেশের জন্য ভালোই হবে। তার পরিকল্পনা দীর্ঘমেয়াদি। তার মানে এই নয় যে, তিনিই ১০ বছর থাকবেন বা থাকতে চান।'
কোচ নিয়োগের আগে বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটারদের পছন্দের ব্যাপারটি ভাবা হয়েছে কিনা, এমন প্রশ্নে নাজমুল হাসান জানান, 'তামিম, মাশরাফি ও সাকিবের সঙ্গে কথা হয়েছে। আরও অনেক খেলোয়াড়ের সঙ্গেও কথা হয়েছে। অনেকে হয়তো মনে করে বিদেশি কোচেরই দরকার নেই। অনেকে মনে করে স্থানীয় কোচ হলে ভালো হয়। অনেকে মনে করে কোচেরই দরকার নেই! একেকজনের একেক মতামত থাকবেই। কিন্তু বোর্ড সিদ্ধান্ত্ম নেবে কোনটা ভালো হয়। সেই সিদ্ধান্ত্ম আমাদের নিতে হবে। পাইবাস কিন্তু উঁচুমানের একজন কোচই। তার সুখ্যাতি আছে আন্ত্মর্জাতিক কোচের বাজারে।'
এর আগেও বাংলাদেশে কাজ করে গেছেন পাইবাস। ২০১২ সালে স্টুয়ার্ট ল'র স্থলাভিষিক্ত হয়েছিলেন। বিসিবির সঙ্গে তিক্ততায় দীর্ঘমেয়াদি চুক্তিতে যেতে পারেননি সে সময়। অনুশীলনে খেলোয়াড়দের স্বাস্থ্যসম্মত খাবার না দেয়ার অভিযোগও তুলেছিলেন পাইবাস। বিসিবির কাছে যে ধরনের সহায়তা আশা করেছিলেন, সে সময় মেলেনি সেগুলোও। পরে সাড়ে চার মাস কাজ করার পর কাউকে কিছু না জানিয়েই চলে যান। হাথুরম্নসিংহে চলে যাওয়ার পর নতুন করে তার আলোচনায় আসা, পরিকল্পনা দেয়া, ক্রিকেট মহলে বেশ আগ্রহের সৃষ্টি করেছেন।
নাজমুল হাসান জানালেন, এবার নাকি নিজ আগ্রহেই কোচ হতে চাইছেন পাইবাস, 'নিজ থেকেই আগ্রহ প্রকাশ করেছেন উনি। তার কাছে মনে হয়েছে বাংলাদেশ টিম এখন ভালো করছে। এমন একটা পর্যায়ে পৌঁছেছে শুধু তিনি নয়, অন্য পেশাদার কোচও এই বোর্ডের সঙ্গে কাজ করতে চাইবে। এখন দু'পক্ষেরই একটা ব্যাপার আছে। সব ফিট হচ্ছে কিনা। উইন উইন পরিস্থিতি যদি দু'পক্ষেরই মধ্যে না থাকে তাহলে কিন্তু ভালো কিছু হয় না। আমরা চেষ্টা করব যেটা ভালো হয় সেটা করার।'
 
পূর্ববর্তী সংবাদ
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আপনার মতামত দিতে এখানে ক্লিক করুন
অনলাইন জরিপ
অনলাইন জরিপআজকের প্রশ্নজঙ্গিবাদ নিয়ে মন্ত্রীদের প্রচারে আস্থাহীনতার সৃষ্টি হয়েছে_ বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপনের এই বক্তব্য সমর্থন করেন কি?হ্যাঁনাজরিপের ফলাফল
আজকের ভিউ
পুরোনো সংখ্যা
2015 The Jaijaidin