logo
রোববার ২৬ মে, ২০১৯, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

  তারার মেলা ডেস্ক   ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০  

ভালোবাসি শিল্প প্রেম ও জনসেবা...

ভালোবাসি শিল্প প্রেম ও জনসেবা...
ভেনেসা পন্সে দে লিওন

মাত্র একটি ঘোষণা। আর এই একটি ঘোষণাতেই বদলে যেতে পারে মানুষের গল্প, জীবনের দৃশ্যপট। খুব সাধারণ থেকে হয়ে উঠতে পারে অসাধারণ কিংবা কল্পনার চেয়েও বেশি কিছু। ঠিক তেমনই একটা ঘোষণা রদবদল করে দিল মিস মেক্সিকো নিবাির্চত হওয়া মডেল তারকা ভেনেসা পন্সে দে লিওনের জীবনকে। গত ৮ ডিসেম্বর চীনের সানায়া শহরে অনুষ্ঠিত ২০১৮ সালের বিশ্ব সুন্দরী প্রতিযোগিতায় ঘোষণা করা হয় নতুন এ সুন্দরীর নাম। মিস ওয়াল্ডর্ হিসেবে নাম ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে শুরু হয়ে গেছে হইচই। অনলাইনে চলছে তাকে নিয়ে অনুসন্ধান। কে এই সুন্দরী? ফুটবল আর বিবাদের দেশ মেক্সিকোর গÐি পেরিয়ে যিনি এখন সারা বিশ্বে সৌন্দযের্র প্রতিনিধিÑ তার অজানা কথা জানতে চাইছেন অনেকেই। এ যেন স্বপ্নকেই স্পশর্ করলেন তিনি। বিশ্বের ১১৭ সুন্দরী থেকে সেরা ৩০। তারপর ১২ থেকে সেরা ৫। অতঃপর সবাইকে পেছনে ফেলে নতুন বিশ্ব সুন্দরীর মুকুট মাথায় পরেছেন ২৬ বছর বয়সী ভেনেসা। কালো চোখ আর বাদামি চুলের অধিকারী এ সুন্দরী শুধু রূপেই নয়, গুণেও যেন অতুলনীয়া তিনি। ১৯৯২ সালের ৭ মাচর্ মেক্সিকোর গুয়ানোজুয়াটো শহরে জন্ম নেন তিনি। যদিও পরবতীর্ সময় বেড়ে উঠেছেন মেক্সিকো সিটিতেই। প্রথম মেক্সিকান হিসেবে বিশ্ব সুন্দরীর খেতাব জিতে ইতোমধ্যেই নিজের দেশের জন্য সম্মান বয়ে এনেছেন তিনি। উচ্চতায় পঁাচ ফুট ৭ ইঞ্চি লম্বা এ তারকার মডেলিং শুরু হয় ২০১৪ সালে। মেক্সিকোর স্থানীয় নেক্সট টপ মডেল প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অজর্ন করেন ভেনেসা। আন্তজাির্তক ব্যবসায়ের ওপর নিয়েছেন স্নাতকোত্তর ডিগ্রি। কমর্রত ছিলেন মেক্সিকোর নারী পুনবার্সন কেন্দ্রের বোডর্ অব ডাইরেক্টরস পদে। শুধু তাই নয়, ‘মাইগ্রেন্টস এল এন ক্যামিনো’ নামে স্থানীয় দাতব্য সংস্থায়ও কাজ করেছিলেন স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে। এ ছাড়াও আন্তজাির্তক ইয়ুথ ইনস্টিটিউটের একজন বক্তা হিসেবেও দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন ভেনেসা। সেখানেও রয়েছে তার জনপ্রিয়তা। ভেনেসার পছন্দের খেলা ভলিবল। প্রিয় কাজ সিনেমা দেখা। পছন্দের সিনেমার তালিকায় আছে ‘প্রিন্স অব ইজিপ্ট’ ছবিটি। সুন্দরী প্রতিযোগিতায় এসে ভেনেসা জানিয়েছিলেন, ‘আমাদের সবার সবাইকে প্রয়োজন’ এ নীতিতে বিশ্বাস করতে হবে। নিজের সম্পকের্ বলতে গিয়ে ভেনেসার বিশ্লেষণ ছিল, ‘আমি একজন নারী, যে কিনা সবসময় লক্ষ্য ঠিক করার চেষ্টা করি। আমি শিল্প, প্রেম ও মানুষের যতœ করতে পছন্দ করি। আমি কঠোর পরিশ্রমে বিশ্বাসী। আর সে জন্য দিনেও স্বপ্ন দেখি। মানুষের মুখে হাসি এনে দিতে পারলে সবচেয়ে বেশি আনন্দ পাই।’ আশার খবর হলো, বাংলাদেশে আসার ইচ্ছে প্রকাশ করেছেন নতুন এই বিশ্ব সুন্দরী। ৮ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় চীনের সানাইয়া সিটি এরেনায় মিস ওয়াল্ডর্ বিজয়ী হিসেবে নাম ঘোষণার পর একটি পাটিের্ত অংশ নেন সেরা ত্রিশে থাকা সুন্দরীরা। তখন ভেনেসাকে নিয়ে একটি ভিডিও করেন প্রতিযোগিতায় সেরা ৩০-এ স্থান পাওয়া বাংলাদেশি প্রতিযোগী ঐশী। সেখানে ঐশীর প্রশংসা করে বাংলাদেশ ভ্রমণের ইচ্ছের কথা জানান ভেনেসা। তার ভাষ্যে, ‘বাংলাদেশের মানুষদের উচিত ঐশী জন্য গবর্ করা। সে খুবই মিষ্টি একটি মেয়ে।’ এ সময় কৃতজ্ঞতায় ঐশী বলেন, ‘আমরা তোমার জন্য গবির্ত ভেনেসা।’ ভিডিওতে ভেনেসাকে ‘সিস্টার’ বলে পরিচয় করিয়ে দেন ঐশী। তিনি বলেন, ‘আমার সঙ্গে আজ বিশেষ একজন মানুষ আছেন। আমার বোন ভেনেসা। সে এটা ডিজাভর্ করে। মিস ওয়াল্ডের্র আয়োজকরা বিচার করতে ভুল করে না এর প্রমাণ হলো ভেনেসার জয়। সে চমৎকার একজন মানুষ।’

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে