logo
বুধবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ১৭ নভেম্বর ২০১৯, ০০:০০  

ঋণ পাচ্ছেন না প্রান্তিক ও ক্ষুদ্র খামারিরা

কৃষি ও সম্ভাবনা ডেস্ক

গ্রাম ও উপজেলা পর্যায়ের প্রান্তিক ও ক্ষুদ্র খামারিরা ব্যাংক থেকে ঋণ পাচ্ছেন না। সরকারের পক্ষ থেকে যদিও বলা হচ্ছে প্রান্তিক খামারিদের ঋণ দেয়া হচ্ছে এমনকি বাংলাদেশ ব্যাংকও বলছে ক্ষুদ্র পোল্ট্রি খামারিদের ঋণ দেয়ার জন্য নিয়ম বেঁধে দেয়া আছে কিন্তু কাগজে কলমে যাই লেখা থাকুক বাস্তবতা আসলে ভিন্ন। মূলত, সে কারণেই গ্রামের অসহায় প্রান্তিক খামারিরা স্থানীয় মহাজন, এনজিও'র কড়া সুদের জালে আটকা পড়ছেন কিংবা ডিলারদের কাছে জিম্মি হয়ে পড়ছেন। এ অবস্থা থেকে মুক্তি চান সাধারণ খামারিরা, সেই সঙ্গে চান স্বল্প সুদে ব্যাংক ঋণ প্রাপ্তির নিশ্চয়তা। গত বৃহস্পতিবার লালমনিরহাট জেলার কালিগঞ্জ উপজেলায় অনুষ্ঠিত নিরাপদ পোল্ট্রি পালন বিষয়ক খামারি প্রশিক্ষণ কর্মশালায়, দারিদ্র্য পীড়িত এ অঞ্চলের খামারিরা পুঁজির সংকট কাটাতে সরকারের সহযোগিতার আহ্বান জানান। সরকারের প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর এবং বাংলাদেশ পোল্ট্রি ইন্ডাস্ট্রিজ সেন্ট্রাল কাউন্সিলের (বিপিআইসিসি) যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত এ প্রশিক্ষণ কর্মশালায় ৬২ জন ব্রয়লার, লেয়ার ও সোনালি খামারি অংশগ্রহণ করেন। কর্মশালাটির সার্বিক সহায়তায় ছিল আনোয়ার সিমেন্ট শিট লিমিটেড। লালমনিরহাট জেলার কালিগঞ্জ উপজেলার প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. মো. নূরুল ইসলাম জানান, এ উপজেলায় ব্রয়লার খামারির সংখ্যা ৬৬টি এবং লেয়ার খামারের সংখ্যা ৬০টি। তবে নিবন্ধিত খামারের সংখ্যা মাত্র ৫-৬টি। কালিগঞ্জের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. রবিউল হাসান বলেন, সঠিক খামার ব্যবস্থাপনার অভাবে খামারের আশপাশের এলাকার মানুষ অনেক সময় ভোগান্তিতে পড়ছেন।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে