logo
রোববার ১৮ আগস্ট, ২০১৯, ৩ ভাদ্র ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০০:০০  

বিচিত্র

বিদেশ ভ্রমণে অস্বাভাবিক কিছু আইন

বিদেশ ভ্রমণে  অস্বাভাবিক  কিছু আইন
সম্প্রতি ব্রিটিশ একজন ছাত্র ম্যাথিউ হেজেসকে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে সংযুক্ত আরব আমিরাতে কারাবাস করতে হয়েছে। সে দেশে বেড়াতে যাওয়া এই ছাত্রকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে হাজতে পাঠায় এবং পরে ব্রিটিশ সরকারের ব্যাপক হস্তক্ষেপের পর ওই ছাত্রকে প্রেসিডেন্ট ক্ষমাপ্রদশর্ন করেন এবং সে জেল থেকে মুক্তি পায়।

এখন ব্রিটেনের আরেকটি পরিবার জানিয়েছে, তাদের পরিবারের ১৯ বছর বয়স্ক এক সদস্যকে গুপ্তচরবৃত্তির দায়ে মিসরে আটক করা হয়েছে। এ দুটি ঘটনা যদিও বেড়াতে গিয়ে আইন ভাঙার বা সাজা খাটার চরম দুটি দৃষ্টান্ত, কিন্তু যারা বিদেশে বেড়াতে যায়, বলা হচ্ছে তাদের জন্য স্থানীয় আইন-কানুন এবং আচার সম্পকের্ জানা খুবই জরুরি।

প্রসঙ্গত, ব্রিটেনের পররাষ্ট্র দপ্তর এ বছরের গোড়ার দিকে ব্রিটেন থেকে যারা বিদেশ বেড়াতে যায় তাদের পরামশর্ দিয়েছে কোনো দেশ ভ্রমণের আগে সে দেশ সম্পকের্ যথাযথ গবেষণা করে যেতে। তাদের পরামশর্ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বিখ্যাত ব্যক্তিরা যখন বেড়াতে গিয়ে দারুণ আকষর্ণীয় সব ছবি তুলে বিভিন্ন মাধ্যমে পোস্ট করেন, তখন অনেক মানুষই ওইসব আকষর্ণীয় জায়গায় বেড়াতে যেতে আগ্রহী হয়ে ওঠেন।

কাজেই বিদেশে গিয়ে ঝামেলায় যাতে না পড়েন, নিরাপদে থাকতে পারেন, তার জন্য জেনে নিন এই পরামশর্গুলো।

থাইল্যান্ডে গিয়ে টাকার ওপর পাড়া দেবেন না

থাইল্যান্ডে রাজতন্ত্রকে অপমান করার বিরুদ্ধে যে আইন রয়েছে তা খুবই পুরনো এবং বিশ্বের অন্যতম কঠোর আইন। এই আইন অনুযায়ী থাই রাজপরিবারের কারও ছবিকে অপমান করা গুরুতর অপরাধ। যেহেতু ব্যাংকনোটের ওপর রাজার ছবি রয়েছে, তাই থাই নোট পা দিয়ে মাড়ালে বা কারও পায়ের তলায় পড়লে আপনাকে সোজা হাজতে পাঠানো হবে।

চুয়িং গাম নিষিদ্ধ

থাইল্যান্ডে মেঝেতে চুয়িং গাম ছুড়ে ফেলা অপরাধ। এ অপরাধের সাজা ৪০০ পাউন্ড সমমূল্যের জরিমানা এবং অনাদায়ে সম্ভবত কারাবাস। চুয়িং গাম নিয়ে সিঙ্গাপুরেও রয়েছে কড়া আইন। সেখানে ব্যতিক্রম শুধু মাড়ির চিকিৎসার জন্য ব্যবহৃত গাম অথবা ধূমপান বন্ধ করার জন্য চিবানোর গাম। এই দুই ধরনের গাম ছাড়া সিঙ্গাপুরে কোনো ধরনের চুয়িং গাম কেনাবেচা নিষিদ্ধ।

শহরে সঁাতারের পোশাক নিষিদ্ধ

স্পেনের বাসেের্লানা শহরে সমুদ্র সৈকতের বাইরে জনসমক্ষে সঁাতারের স্বল্পবাস পরে ঘুরে বেড়ানো আইনত নিষিদ্ধ করা হয়েছে ২০১১ সালে। শহরের বিভিন্ন স্থানে বিদেশি পযর্টকরা সঁাতার কাটার স্বল্প বাস পরে ঘুরে বেড়াচ্ছে এ নিয়ে স্থানীয় মানুষ প্রচারাভিযান চালানোর পর এই আইন চালু করা হয়েছিল। কাজেই অধর্-নগ্ন হয়ে কেউ ঘুরে বেড়ালে তাকে প্রায় ১০০ পাউন্ড সমমূল্যের জরিমানা দিতে হবে।

সমুদ্রে প্রস্রাব করবেন না

পতুর্গালে সাগরে প্রস্রাব করবেন না। এটা আইন বিরুদ্ধ। যদিও সমুদ্রের পানিতে থাকা অবস্থায় কেউ প্রস্রাব করলে তা কীভাবে ধরা যাবে এবং কীভাবে তার বিরুদ্ধে আইন প্রয়োগ করা যাবে তা স্পষ্ট নয়। তবে প্রস্রাবের জন্য টয়লেট ব্যবহার করাই আইনের ফঁাদে না পড়ার শ্রেষ্ঠ উপায়।

কী ধরনের ওষুধ আপনার সঙ্গে নিয়ে যাচ্ছেন?

উত্তেজক ওষুধের বিরুদ্ধে জাপানে আইন অত্যন্ত কঠোর। ফলে ঠাÐা লাগার কারণে যেসব ওষুধ নাক বা মুখ দিয়ে টেনে ভেতরে নিতে হয় অথার্ৎ ‘ইনহেল’ করতে হয়, সে ধরনের ওষুধ নিয়ে জাপানে খুব সতকর্ থাকা দরকার। জাপানে ঢোকার সময় এ ধরনের ওষুধ সঙ্গে থাকলে সাবধান। এর ব্যবহার নিয়ে কোনোরকম সন্দেহ হলে আপনাকে আটকানো হতে পারে এবং ওষুধ জব্দ করা হতে পারে।

সাম্প্রতিক সমীক্ষায় দেখা গেছে স্পেন, সংযুক্ত আরব আমিরাত, ফ্রান্স, থাইল্যান্ড এবং আমেরিকা- এই পঁাচটি দেশ সম্পকের্ ব্রিটিশ সরকার সম্প্রতি পরামশর্ জারি করেছে। কারণ ২০১৬ থেকে ২০১৭-এর এপ্রিল পযর্ন্ত এক বছরে আইনের জঁাতাকলে পড়ে গ্রেপ্তার হয়েছে ব্রিটেনের ৮২৯ জন।

ইন্টারনেট অবলম্বনে
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে