logo
  • Thu, 15 Nov, 2018

  অনলাইন ডেস্ক    ২৮ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০  

সংবাদ সংক্ষেপ

আবহাওয়ার ভুল পূবার্ভাস দেয়ায় মামলা!

আইন ও বিচার ডেস্ক

ভুল পূবার্ভাস দেয়ার অভিযোগে ভারতের আবহাওয়া বিভাগের (আইএমডি) বিরুদ্ধে মামলা করেছেন মহারাষ্ট্র রাজ্যের মারাথওয়াদা অঞ্চলের এক কৃষক। তার দাবি, বষার্ মৌসুমের দীঘর্ স্থায়িত্বের আভাস দেয়ার কারণে সে অনুযায়ী বীজ ও কীটনাশক ব্যবহার করে লোকসানে পড়েছেন তিনি। রাজ্যের পারভানি থানায় ৭ আগস্ট এ অভিযোগ দায়ের করেন মানিক কদম নামে ওই কৃষক। তিনি কদম মারাথওয়াদা অঞ্চলের স্বাভিমানি শেতকারি সংগঠনেরও সভাপতি। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানায়, আবহাওয়া অফিসের পূবার্ভাস অনুযায়ী ফসলের বীজ বপণ করেন ওই কৃষক। কিন্তু আভাস ভুল হওয়ায় কয়েক লাখ রুপি ক্ষতি হয়েছে দাবি করে ওই কৃষক আইএমডির পরিচালকের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ এনে মামলাটি দায়ের করেন। মানিক কদম সংবাদমাধ্যমকে বলেন, আবহাওয়া বিভাগের পূবার্ভাস অনুযায়ী কৃষকরা চাষাবাদ করেন। তারা এবার বষের্ণর কথা বললেও দেখা গেল কোনো বৃষ্টি নেই। ফলে কৃষকরা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এ বিষয়ে আইএমডির কোনো কমর্কতার্র মন্তব্য পাওয়া যায়নি। গত বছরের জুনেও মহারাষ্ট্রের বিদ জেলার এক কৃষক আইএমডির বিরুদ্ধে একই অভিযোগে মামলা করেন। এরপর সেপ্টেম্বরে মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফাড়নাভিসও পরিবেশমন্ত্রীকে আবহাওয়া বিভাগের ভুল পূবার্ভাসের অভিযোগের বিষয়টি জানিয়ে চিঠি লেখেন।

পরকীয়া কি অপরাধ?

আইন ও বিচার ডেস্ক

পরকীয়া অপরাধ নাকি সামাজিক সমস্যা? এমন প্রশ্ন তুলেছে ভারতের সুপ্রিম কোটর্। বিয়েবহিভর্‚ত শারীরিক সম্পকর্ ভারতীয় দÐবিধির ৪৯৭ নম্বর ধারা অনুযায়ী পরকীয়া একটি অপরাধ এবং যে পুরুষ এ ধরনের সম্পকের্ যুক্ত থাকবেন বলে আদালতে প্রমাণিত হবে, তার সবোর্চ্চ পঁাচ বছরের কারাদÐের ব্যবস্থা রয়েছে দÐবিধিতে। কিন্তু প্রায় দেড়শ বছর আগে দÐবিধিতে যুক্ত হওয়া ওই ধারার যৌক্তিকতা নিয়েই প্রশ্ন তুলেছে ভারতের সবোর্চ্চ আদালত। কলকাতা হাইকোটের্র আইনজীবী জয়ন্ত নারায়ণ চ্যাটাজির্ বলেন, দেড়শ বছর আগে যেভাবে নারী-পুরুষের সম্পকের্ক দেখা হতো, সেটা তো এখন হয় না। নারী-পুরুষ উভয়েই একসঙ্গে কাজ করেন, হয়তো অফিসের প্রয়োজনে বাইরেও যান এক সঙ্গে। তাই মেলামেশার ধরন যেমন পাল্টেছে, তেমনই বদল এসেছে সামাজিক দৃষ্টিভঙ্গিতেও। ‘পরকীয়া’ শব্দটাকে আগে যেভাবে দেখা হতো, এখন আমরা নিশ্চয়ই সেভাবে দেখি না। অন্যদিকে পরিবার, সমাজ-এগুলোকেও রক্ষা করার প্রয়োজন। তাই দেড়শ বছরের পুরনো আইনের এই ধারার সংস্কার প্রয়োজন। ভারতের প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন পঁাচ সদস্যের এক বেঞ্চ বুধবার পরকীয়া নিয়ে কোনো চ‚ড়ান্ত নিদের্শ না দিলেও কয়েকটি গুরুত্বপূণর্ বিষয়ে প্রশ্ন তুলেছেন।

বস্তাভতির্ কয়েনে স্ত্রীর খোরপোষ!

আইন ও বিচার ডেস্ক

বিচ্ছেদের পর শুধু ধাতব মুদ্রা বা কয়েন দিয়ে সাবেক স্ত্রীর খোরপোষ মিটিয়েছেন ইন্দোনেশিয়ার এক সরকারি চাকুরে। কয়েন দিয়ে প্রায় ১০ হাজার ডলার পরিশোধ করেছেন তিনি। এসব কয়েনের মোট ওজন হয়েছিল ৮৯০ কেজি! এদিকে কয়েনে খোরপোষ দেয়ায় খেপে গেছেন সাবেক স্ত্রী। মানহানির অভিযোগ এনেছেন তিনি! ইন্দোনেশিয়ার জাভায় ২৩ আগস্ট এ ঘটনা ঘটেছে। দেশটির এক সরকারি কমর্কতার্ তার সাবেক স্ত্রীকে খোরপোষ দেয়ার সময় এই কাÐ করেছেন। বিবাহবিচ্ছেদের পর সাবেক স্ত্রীকে বড় অঙ্কের খোরপোষ দিতে ওই সরকারি কমর্কতাের্ক নিদের্শ দিয়েছিল দেশটির আদালত। আর তা পরিশোধ করতে গিয়েই ১০ হাজার ডলার মূল্যমানের কয়েন নিয়ে হাজির হন ডুই সুসিলাতোর্ নামের ওই সরকারি কমর্কতার্। ২৩ আগস্ট ওই বিপুল পরিমাণ ধাতব কয়েন নিয়ে আদালতে আসেন ডুই সুসিলাতোর্। প্রায় এক ডজন বস্তায় কয়েন ভতির্ করে নিয়ে আসেন তিনি। সংশ্লিষ্ট আইনজীবী জানিয়েছেন, ইন্দোনেশিয়ায় প্রচলিত ধাতব মুদ্রায় মোট ১০ হাজার ৫০০ ডলার পরিশোধ করেছেন তার মক্কেল। এসব ধাতব মুদ্রার মোট ওজন ছিল ৮৯০ কেজির মতো। ধাতব মুদ্রায় খোরপোষ দেয়ার ঘটনায় আদালতে দুই পক্ষের মধ্যে হাতাহাতির উপক্রম হয়েছিল। কারণ, ডুই সুসিলাতোর্র সাবেক স্ত্রীর আইনজীবী এত বিপুল পরিমাণ ধাতব মুদ্রা গুনতে অস্বীকৃতি জানিয়েছিলেন। এদিকে সাবেক স্ত্রীর আইনজীবী অভিযোগ করে বলেছেন, ধাতব মুদ্রায় খোরপোষ পরিশোধ করে তার মক্কেলকে অপমান করা হয়েছে। তবে ডুই সুসিলাতোর্র আইনজীবী এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেছেন, ‘এভাবে ধাতব মুদ্রায় খোরপোষ পরিশোধ করায় আমিও কিছুটা অবাক হয়েছি। কিন্তু আমার মক্কেল তার সাবেক স্ত্রীকে অপমান করতে চাননি। আমার মক্কেল বলেছেন, খোরপোষ পরিশোধ করতে পরিবার ও বন্ধুদের কাছ থেকে এই অথর্ এনেছেন তিনি।’ তবে এতে সুসিলাতোর্র সাবেক স্ত্রীর রাগ কমেনি। তিনি বলেছেন, ‘এটি অপমানজনক, অনেকটা আমাকে গরিব বলে ডাকার মতো।’
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
অাইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে