logo
  • Tue, 13 Nov, 2018

  সানাম হোসেন   ২৭ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০  

ভালো সম্পকের্র জন্য

ভালো সম্পকের্র জন্য
সম্পকর্ গড়া যতটা সহজ তার চেয়ে টিকে রাখা আরও কঠিন ছবি : ইন্টারনেট
সম্পকর্ গড়া যতটা সহজ তার চেয়ে টিকে রাখা আরও কঠিন। এই ধারণাটাই প্রচলন রয়েছে। সম্পকের্ক চারাগাছের সঙ্গে তুলনা করা যায়। খুব কম ক্ষেত্রেই তা নিজের মতো বেড়ে ওঠে। পানি আর খাদ্যের অভাবে ধীরে ধীরে তা শুকিয়ে যায়। সম্পকর্ও এমনই। ফেলে রাখলে গতি হারিয়ে ফেলে। তার যতœ নিতে হয়। তবে এর জন্য বিশেষ কোনো যতেœর প্রয়োজন নেই। ছোটখাটো কাজের মাধ্যমেই সম্পকের্র বঁাধন দৃঢ় ও মধুর হয়।

বন্ধুদের গুডমনির্ং ম্যাসেজে ফোন মেমোরি ভরে গেল? সকাল থেকে রাত বন্ধুদের শুভেচ্ছা বিনিময়ের এই ম্যাসেজে আমরা অনেকেই বিরক্ত। কিন্তু জানেন কি আপনার কাছে যা বিরক্তের তা আপনার পাটর্নারের মুখে হাসি ফোটাতেও পারে? এর অথর্ সে সময় পাটর্নারের কথাই আপনি ভাবছিলেন। এটুকু কাজ তো করাই যায়।

তবে শুধু দায়সারাভাবে গুডমনির্ং বলা বা গুডমনির্ং ম্যাসেজ পাঠিয়েই যদি ভাবেন কাজ শেষ, তাহলে ভুল ভাবছেন। সম্পকের্র বঁাধন দৃঢ় করতে আরও অনেক কিছু মেনে চলতে হয়। এই যেমন যে কোনো বিষয়ে নিজের অনুভ‚তিগুলো লুকিয়ে না রেখে সরাসরি তার সঙ্গে শেয়ার করুন। তাকেও তার অনুভ‚তি ব্যক্ত করার সুযোগ দিন।

প্রশংসা কিন্তু খুব বড় একটা ওষুধ। ছিঁড়ে যাওয়া সম্পকের্র দড়িও আবার শক্ত করে বেঁধে ফেলার ক্ষমতা রয়েছে এর। তাই যখনই সম্ভব তার কাজের প্রশংসা করুন।

উপহার পেতে কার না ভালো লাগে। আর তা যদি সারপ্রাইজ হয় তাহলে তো আর কথাই নেই। তাই একে অন্যকে মাঝেমধ্যেই গিফট দিয়ে চমকে দিন। প্রেমিক বা প্রেমিকাÑ মনে মনে কিন্তু ভীষণ খুশি হবে।

আমরা তো সব সময়ই নিজের পছন্দের পোশাক পরি। নিজের পছন্দমতোই নিজেকে সাজাই। একবার না হয় তার পছন্দে নিজেকে সাজিয়ে তুললেন। এই উইকএন্ডে এভাবেই তার সঙ্গে মুভি দেখতে যান।

সব সময় বাইরের খাবার না খেয়ে সময় পেলে নিজেই বানিয়ে নিন তার পছন্দের কিছু সুস্বাদু রান্না। রেস্তোরঁার মতো সুস্বাদু না হলেও আপনি বানিয়েছেন এটা জেনেই পাটর্নার খুব খুশি হবেন। খুবই উপভোগ করে খাবেন।

সম্পকের্ক একঘেয়ে হতে দেবেন না একেবারেই। হতে পারে আপনার কাছে এগুলো খুবই নগণ্য বিষয়। কিন্তু চেষ্টা করে দেখতে পারেন ফল ভালোই হবে।

কথায় আছে পেট ঠাÐা তো সব ঠাÐা। তাই সকালের নাশতা তৈরি করে আপনার সঙ্গী বা সঙ্গিনীর মন জয় করতে পারেন। সকালে বিছানা পযর্ন্ত নাশতা পৌঁছে দিন এবং সুন্দরভাবে পরিবেশন করুন। খাবারের সুগন্ধ, কফি বা চায়ের ঘ্রাণ এবং সেই সঙ্গে রৌদ্রমাখা দিন অবশ্যই সঙ্গী বা সঙ্গিনীর মুখে হাসি ফোটাবে।

ঘর পরিচ্ছন্ন রাখুন।সকালে ঘুম থেকে উঠে একটি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন ঘর দেখলে আমাদের খুব সতেজ লাগে। এটা অবশ্যই একটি দিন শুরুর খুব গুরুত্বপূণর্ বিষয়। পরিষ্কার ঘর দেখলেই আপনার সঙ্গীর মনে হবে আপনি কতটা যতœশীল। এতে অবশ্যই তার মুখে হাসি ফুটবে।

আপনার সঙ্গী বা সঙ্গিনীর মুখে হাসি ফোটানোর সহজ উপায় আপনার মুখের হাসি। কারণ আপনার হাসিমাখা মুখ পুরো দিনের মনোবল জোগান দেয়। আর এজন্য সকালে ঘুম থেকে উঠে হাসি-খুশি থাকার অভ্যাসকে এড়িয়ে যাওয়া উচিত নয়। সকালের হাসিই খুব সূ² পদ্ধতি, যে পদ্ধতিতে আপনার সঙ্গী বা সঙ্গিনীকে সারা দিন ভালোবোধ করবে।

আপনার সঙ্গী বা সঙ্গিনীকে সকালে জাগিয়ে তোলার খুব সহজ উপায় হাসিমাখা একটি চুম্বন। সঙ্গে একটি শব্দ ‘ভালোবাসি’। সকালে হাস্যোজ্জ্বল মুখ মেজাজকে ভালো রাখে।

ভালোবাসার উক্তি বলুন।আপনার সঙ্গীকে অনুপ্রাণিত করতে সকালে কয়েকটি ভালোবাসার উক্তি শুনান। এতে তার মন হালকা হবে। পাশাপাশি তাকে সাফল্যের সঙ্গে বহু দূরে যেতে সাহায্য করবে। এই উক্তিগুলো আপনি অনলাইনে পেতে পারেন। চাইলে আপনি নিজেও বানিয়ে বলতে পারেন। সকালের একটি ভালো উক্তি আপনার সঙ্গী বা সঙ্গিনীর মুখে হাসি ফোটানোর পাশাপাশি মেজাজ ঠিক রাখবে।

জোকস বলুন।আপনার সঙ্গীর মুখে হাসি ফোটানো সৃজনশীল উপায় এটি। যদি আপনি নিজে বানিয়ে জোকস বলতে পারেন তবে এটি তাৎক্ষণিক আপনার সঙ্গীর মুখে হাসি ফুটবে। যদি আপনি বানাতে নাও পারেন তবে পড়ে শিখে নিন মজাদার জোকস।

সুন্দর মেসেজ পাঠান।নতুন নতুন প্রযুক্তির ফলে মেসেজের মাধ্যমে মনের কথা যে কোনো মুহূতের্ জানানো-পাঠানো খুব সহজ হয়ে গেছে। প্রত্যেকেই আমরা মোবাইল ব্যবহার করি, আছে সোশ্যাল মিডিয়াও। আমরা চাইলেই যখন-তখন ছোট বাতার্ পাঠাতে পারি খুব সহজেই। এ ক্ষেত্রে সকালে একটি সুন্দর মেসেজ বা বাতার্ আপনার সঙ্গীর মুখে হাসি ফুটিয়ে তুলবে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
অাইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে