logo
শুক্রবার ২১ জুন, ২০১৯, ৭ আষাঢ় ১৪২৬

  শবনম বারী   ১৩ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০  

শীতের সাজ শীতের সজ্জা

শাড়ি পরলে চুল আয়রন করে ছেড়ে রাখতে পারেন অথবা উঁচু করে খেঁাপা করতে পারেন। ওয়েস্টানর্ পোশাক বা লম্বা গাউন টাইপের পোশাক পরলে সামনের অংশের চুল হালকা পাফ করে ফুলিয়ে পেছনে ক্লিপ আটকিয়ে বাকি চুল খোলা রাখুন। হাত-পায়ে ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নিন। নখে পোশাকের রঙের সঙ্গে মিলিয়ে নেইলপলিশ পরুন...

শীতের সাজ  শীতের সজ্জা
শীতের সময়ে সাজে উজ্জ্বল রং ব্যবহার করুন। পোশাক, মেকআপ বা অ্যাক্সেসরিজ সব কিছুতেই রাখুন উজ্জ্বল রঙের সমাবেশ। তবে সেটা আপনার সঙ্গে যাচ্ছে কিনা সেদিকে বিশেষ খেয়াল রাখুন। শীতের বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মধ্যে বিয়ের অনুষ্ঠানের পোশাকটা একটু জমকালো হলেই ভালো। এ ছাড়া জন্মদিন, বিয়েবাষির্কী বা এজাতীয় অনুষ্ঠানে সিল্ক, সুতি, কোটা, অ্যান্ডি জামদানি এ ধরনের পোশাক বা শাড়ি মানানসই। ট্র্যাডিশনালের বাইরে সাজতে চাইলে ফিউশন পোশাক বেছে নিতে পারেন। জিন্স, লেগিংসের সঙ্গে ফতুয়া, শাটর্ টপস বা কামিজও ভালো যায়। কালো সব সময়ই গজির্য়াস। এ ছাড়া অন্য কোনো উজ্জ্বল রঙের পোশাক পরলেও ভালো লাগবে। বাঙালি নারীর চিরকাল প্রিয় পোশাক শাড়ি। যে কোনো অনুষ্ঠানেই এটি বেশ মানায়। তবে শীতের কথা মাথায় রেখে সিল্ক, জামদানি অথবা কোটা শাড়ি পরাই শ্রেয়। শাড়ির সঙ্গে ফুল¯িøভের বøাউজ পরুন। ফ্যাশনের সঙ্গে শীত তাড়াতেও কাজে দেবে। হালকা রঙের শাড়ি পড়লে এর সঙ্গে ম্যাচিং করে ভারী শাল অথবা কাডিের্গন পরুন। শাড়ির এক সাইডে শাল ছেড়ে দিলেও দেখতে বেশ স্টাইলিশ লাগবে। অনেকে সময় বঁাচাতে শাড়ির বদলে পাটিের্ত ফুল¯িøভ সালোয়ার-কামিজ অথবা ফতুয়া পরেন। এর সঙ্গে ছোট শাল অথবা চাদর পরুন। ব্যাস পাটির্র জন্য আপনি তৈরি। পোশাকটা তেমন গজির্য়াস না হলে সাজ এবং ভারী গহনা পরুন আবার পোশাকটি গজির্য়াস হলে সাজ এবং গহনার দিকে বেশি মনোযোগ না দিলেও চলবে।

শাড়ি পরলে চুল আয়রন করে ছেড়ে রাখতে পারেন অথবা উঁচু করে খেঁাপা করতে পারেন। ওয়েস্টানর্ পোশাক বা লম্বা গাউন টাইপের পোশাক পরলে সামনের অংশের চুল হালকা পাফ করে ফুলিয়ে পেছনে ক্লিপ আটকিয়ে বাকি চুল খোলা রাখুন। হাত-পায়ে ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নিন। নখে পোশাকের রঙের সঙ্গে মিলিয়ে নেইলপলিশ পরুন।

শীতে মেকআপে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করলে সহজেই মেকআপের বেইজ ত্বকে বসে যায়। মেকআপের আগে ফেসওয়াশ লাগিয়ে মুখ ধুয়ে ক্লিনজিং মিল্ক দিয়ে মুখ পরিষ্কার করুন। এরপর টোনার দিয়ে মুখ ভালো করে মুছে ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নিন। লিকুইড ফাউন্ডেশন মুখ-ঘাড়-গলায় ভালো করে বেøন্ড করে লাগান। ফাউন্ডেশন দেয়ার পরও মুখে সূ² রেখা বা দাগ থাকলে সে ক্ষেত্রে কনসিলার ব্যবহার করুন। ফেস পাউডার দিয়ে ফাউন্ডেশন বসিয়ে দিন। এবার চোখের মেকআপ করুন। পোশাক ও তার রঙের ওপর নিভর্র করে মেকআপ করুন। পোশাকের রঙে বা সম্পূণর্ ভিন্নরঙা কন্ট্রাস্ট আই শ্যাডোর সঙ্গে গিøটার আই লাইনার ব্যবহার করতে পারেন। নীল, সবুজ, সোনালি বা রুপালি যে কোনো রঙের আইলাইনারই ব্যবহার করুন। শীতের সাজে চোখের মেকআপটা গাঢ় হয়। এ ক্ষেত্রে গাঢ় মাশকারা আর কাজল ব্যবহার করুন। লিপস্টিকের ক্ষেত্রে ‘গøস’ শীতের জন্য বিশেষ উপকারী। দেখতেও সুন্দর আর ঠেঁাটকে রাখে সুরক্ষিত। ন্যাচারাল, বাদামি পিচ অথবা গোলাপি লিপগøসে ঠেঁাট হয় অনন্য। আবার রাতের সাজে ঠেঁাটে গাঢ় রঙের লাল, মেরুন, গোলাপি বা বাদামি রঙের অয়েলি লিপস্টিক লাগাতে পারেন। পারলে লিপস্টিক চিকন তুলি দিয়ে লাগিয়ে নিন। ঠেঁাটের শেপ অনেক শাপর্ লাগবে। বøাশন ব্যবহারের সময় একটু সতকর্ থাকুন, খেয়াল রাখুন সেটা যেন উগ্র না হয়। বøাশন লাগান চিকবোন বরাবর।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে