logo
  • Tue, 25 Sep, 2018

  পাবর্নী দাস   ২৫ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০  

অ্যাপ ফিচার ও মেসেজিং নিয়ে ফেসবুক

অ্যাপ ফিচার ও মেসেজিং নিয়ে ফেসবুক
ফেসবুক কতৃর্পক্ষ তাদের অ্যাপ ফিচার ও মেসেজিং কাযর্ক্রমে নানা রকম বৈচিত্র্য আনার চেষ্টা করছে ছবি : ইন্টারনেট
বিশ্ব সামাজিক আন্তঃযোগাযোগব্যবস্থার একটি জনপ্রিয় ওয়েবসাইট ফেসবুক। অনেকেই এখন বুঁদ হয়ে থাকেন এতে। নিজের ভালোলাগা-মন্দলাগা নিমেষেই শেয়ার করা যায় ফেসবুকে। আর নিজের পরিচিতির এতে হয় একটি প্রোফাইল পিকচার। জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক ব্যবহারকারীদের জন্য নতুন সেবা চালু করতে যাচ্ছে। আগে হাইপ্রোফাইল ব্যক্তি, বিখ্যাত সেলিব্রেটি, জনপ্রিয় তারকা, অ্যাথলেট, মিডিয়া-নাট্য ব্যক্তিত্ব ও খেলোয়াড়দের শুধু পেজ ভেরিফাইড করত ফেসবুক। এখন থেকে ভেরিফাইড হওয়া ব্যক্তিরা যেন তাদের ফলোয়ার ও বন্ধুদের সঙ্গে আরো সহজে যোগাযোগ করতে পারেন এ জন্য ফেসবুক টুলে নতুন করে যুক্ত হচ্ছে ‘ম্যানশন্স আপ’।

ব্রেকিং নিউজের জন্য আর চোখ রাখতে হবে না টুইটারে। সে রকমই চ্যালেঞ্জ নিল ফেসবুক। ব্রেকিং কিংবা ট্রেন্ডিংয়ের জন্য বিশেষ ‘টুল’ নিয়ে এলো এ সোশ্যাল নেটওয়াকির্ং সাইট। নতুন এ পরিসেবার নাম ‘সিগন্যাল’। সাংবাদিকদের জন্য বিশেষভাবে তৈরি এ ‘টুল’। ফেসবুক আর ইন্সটাগ্রাম দুটি মাধ্যমেই ‘সিগন্যাল’ পাওয়া যাবে।

ফেসবুকের পক্ষে অ্যান্ডিং মিশেল তার বøগে লিখেছেন, আমরা জানতে পেরেছি সাংবাদিকরা তাদের খবরের জন্য ফেসবুককে আরো ভালোভাবে ব্যবহার করতে চান। সে কারণেই ফেসবুকের এ উদ্যোগ বলে জানিয়েছেন তিনি।

আরো বলা হয়েছে, নতুন এ উদ্যোগে সাংবাদিকরা সব ধরনের খবরের সোসর্ হিসেবে ফেসবুককে ব্যবহার করতে পারবেন। একই জায়গায় খেলা, বিনোদনসহ সব ধরনের খবর পাওয়া যাবে এ সিগন্যালে।

ট্রেন্ডিং খবর সবার আগে পাওয়া যাবে বলেও দাবি জানিয়েছে ফেসবুক। কোন রাজনীতিবিদ, খেলোয়াড়, গায়ক কিংবা অভিনেতা-অভিনেত্রীকে নিয়ে ফেসবুকে সব থেকে বেশি আলোচনা হচ্ছে সে খবরও পাওয়া যাবে এখানে। ‘সিগন্যাল’ থেকে খবর সেভ করে রাখা যাবে। ম্যানশন্স আপের মাধ্যমে ফেসবুক প্রথমবারের মতো অনুমতি দিয়েছে ফেরিফাইড হওয়া পাবলিক ফিগারদের (সেলিব্রেটি) সঙ্গে সরাসরি ফলোয়াদের যোগাযোগ (মন্তব্য ও চ্যাট) করার। অবশ্য ফেসবুকের এ সুবিধা পেতে আইওএস থাকতে হবে ব্যবহারকারীর। যাদের এ সুবিধা নেই তাদের জন্য শিগগিরই এ অ্যাপ যুক্ত করার ঘোষণা দিয়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমটি।

সামাজিক যোগাযোগের সবচেয়ে জনপ্রিয় মাধ্যম ফেসবুকে এখন কত কিছুই তো সম্ভব হচ্ছে। এর সঙ্গে এবার যুক্ত হতে যাচ্ছে নতুন একটি ফিচার। তা হলো সম্প্রতি এক বিশেষ সফটওয়্যার নিয়ে এসেছেন একদল বিজ্ঞানী। যার মাধ্যমে যে কেউ নিজের ব্যক্তিত্ব জানতে পারপ্রণ। মনের গভীরে থাকা রহস্য, যা অবচেতনে রয়ে গেছে, সব উন্মোচিত হবে এক বোতামের ক্লিকে। আপনার মনোবৈজ্ঞানিক দিকটি কেমন, তা নিমেষে হাতের মুঠোয় চলে আসবে।

ফেসবুক ব্যবহার করেন না, এমন ব্যক্তি বতর্মান যুগে পাওয়া সত্যিই দুষ্কর। আর ফেসবুক বন্ধুদের স্ট্যাটাস-কমেন্ট-ছবিতে ‘লাইক’ করাটাও স্বাভাবিক প্রক্রিয়ার মধ্যেই পড়ে। আর সে প্রক্রিয়াকে হাতিয়ার করেই এবার মানুষের মনোবৈজ্ঞানিক দিকের গবেষণা করার কৌশল বের করলেন একদল বিজ্ঞানী।

জানা গেছে, ফেসবুক ‘লাইক’ নিয়ে এক সমীক্ষা চালানোর চেষ্টায় একদল বিজ্ঞানী। তাদের লক্ষ্য, ‘লাইক’ দেয়াকে গবেষণা করে যে কোনো ব্যক্তির মানসিক, রাজনৈতিক, ধমীর্য়, বৈশিষ্ট্যগুলোর সন্ধান করা। ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাইকোমেট্রিক সেন্টার এমন একটি বিশেষ বিশেষ ধরনের যন্ত্র (সফটওয়্যার) আবিষ্কার করেছে যা ফেসবুক ‘লাইক’-এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির ব্যক্তিত্বের একটি ছবি তুলে ধরবে।

নতুন এ সেবার ব্যাপারে ফেসবুক জানিয়েছে, ম্যানশন্স আপের মাধ্যমে বিভিন্ন ক্ষেত্রে ভেরিফাইড হওয়া অভিনেতা-অভিনেত্রী, তারকা, অ্যাথলেট, খেলোয়াড়, সাংবাদিক ও হাইপ্রোফাইল ব্যক্তিরা সারাক্ষণ টাচে থাকবেন ফলোয়ারদের। তারা ফলোয়ারদের যে কোনো বিষয়ে চ্যাট করার পাশাপাশি প্রশ্নের উত্তরও দিতে পারবেন। সঙ্গে ফটো ও ভিডিও আপ করতে পারবেন।

ফেসবুকে এখন চলছে লাইফ নিয়ে মাতামাতি। ফেসবুক মানুষের জীবনের সঙ্গে জড়িয়ে গেছে ওতপ্রোতভাবে। এখন একজনের প্রোফাইলে ঢুকলেই তার সম্পকের্ বেশ ধারণা পাওয়া সম্ভব। কোনো একটি বিষয়ে নিজের অবস্থান তুলে ধরতে শুধু একটি স্ট্যাটাস আপডেট করাই যথেষ্ট মনে করেন না ফেসবুক ব্যবহারকারীরা। তাই প্রোফাইল পিকচার পরিবতর্ন করার চলটিও শুরু হয়েছে অনেক আগেই।

বিষয়টিকে আরো সহজ এবং কাযর্কর করে তুলতেই ফেসবুক এ অভিনব ফিচার ও এলগোরিদম আবিষ্কার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

প্রোফাইল পিকচার শুধু ব্যবহারকারীর পরিচয়ই বহন করে না, এটি তার ব্যক্তিত্বেরও প্রকাশ ঘটায়। আর তাই এটি গুরুত্বপূণর্ হিসেবে বিবেচনা করা হয়। বিশ্বের সবচেয়ে বড় এ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের ব্যবহারকারীরা তাদের প্রোফাইল পিকচার পরিবতর্ন করে থাকেন বিভিন্ন সময়ে, বিভিন্ন উপলক্ষে।

ব্যবহারকারীদের এ সুবিধার কথা মাথায় রেখে ফেসবুক আবিষ্কার করার চেষ্টা করেছে এমন একটি ফিচার, যার মাধ্যমে কেউ একজন সাময়িকভাবে একটি প্রোফাইল পিকচার দিলে সেটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে পরবতীর্ সময়ে পরিবতর্ন হয়ে যাবে।

অথার্ৎ আপনি কোনো কিছুর উপলক্ষে প্রোফাইল পিকচার দিতে পারবেন একটি নিদির্ষ্ট সময়ের জন্য। যেমন কয়েক ঘণ্টা, দিন কিংবা মাস। সে নিদির্ষ্ট সময় অতিক্রম করলে আপনার প্রোফাইল পিকচার পরিবতির্ত হয়ে আবার আগেরটিতে ফিরে আসবে। এ খবর জানিয়েছে টেকনোক্রাঞ্চ।

ফেসবুকের পক্ষ থেকে টেকনোক্রাঞ্চকে জানানো হয়েছে, ‘আমরা লক্ষ্য করেছি, ব্যবহারকারীরা কোনো একটি বিষয়ে নিজের অবস্থান তুলে ধরতে, নিজের পছন্দের দলকে সমথর্ন দিতে কিংবা কোনো স্মৃতি রোমন্থন করতে তাদের প্রোফাইল পিকচার ব্যবহার করে থাকেন।’

এ ধারণা থেকেই ফেসবুক চাইছে, এ সাময়িক অনুভ‚তি প্রকাশ করতে যেন সাময়িকভাবে প্রোফাইল পিকচার পরিবতর্ন করতে পারেন ব্যবহারকারীরা।

খবরে প্রকাশ, ‘অ্যাপ্লাই ম্যাজিক সস’ নামক এ যন্ত্রটি এক ব্যক্তির লিঙ্গ নিধার্রণ, বুদ্ধি, জীবনের প্রতিতৃপ্তি, রাজনৈতিক, ধমীর্য় পছন্দ থেকে শুরু করে যৌনরুচি, শিক্ষা ও সম্পকের্র তথ্য তুলে ধরবে। সে তথ্য দিয়ে ওই ব্যক্তির স্বভাব-চরিত্র কেমন, তিনি আবেগপ্রবণ না সংগঠিত, রক্ষণশীল না উদারÑ সব সহজেই প্রকাশ পাবে। এমনকি, মনের গভীরে অবচেতনভাবে থাকা কোনো রহস্যও উন্মোচিত হবে এ সফটওয়্যারে।

বিজ্ঞানীদের দাবি, ওই যন্ত্রটি যে কেউ ব্যবহার করতে পারেন। এর জন্য ‘অ্যাপ্লাই ম্যাজিক সস’ ওয়েবসাইটে গিয়ে ফেসবুকের মাধ্যমে লগ-ইন করে ওই বিশেষ পরীক্ষার সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করতে হবে। তারপর নিজের মানসিক স্থিতির সব তথ্যই আপনার হাতের মুঠোয়। বিজ্ঞানীদের আশ্বাস, পরীক্ষা হওয়ার পর কোনো তথ্যই ওয়েবসাইটে জমা থাকবে না।

সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকের কারণে অসুখী হতে পারেন ত্রিশশোধ্বর্ নারীরা। তাদের হতাশার কারণ হয়ে দঁাড়াতে পারে এ সোশ্যাল মিডিয়া।

ইউনিভাসিির্ট অব অকল্যান্ডের করা নতুন এক গবেষণায় জানা গেছে, ফেসবুক ব্যবহারের পর ৩০-৪০ বছর বয়সী নারীদের নিজের দৈহিক গঠন নিয়ে অসন্তুষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। নারী ফেসবুক ব্যবহারকারীদের ক্ষেত্রে প্রায় ৩০ বছর বয়সে তাদের শারীরিক গঠনবিষয়ক সন্তুষ্টির মাত্রা কমতে শুরু করে। তবে বয়স বাড়ার পাশাপাশি, যেমন ৫০-এর কোঠায় গিয়ে তা আবার জেগে ওঠে। যেসব নারী ফেসবুক ব্যবহার করেন না, গড় হিসেবে তাদের শারীরিক গঠন নিয়ে সন্তুষ্টির মাত্রা বেশি।

ডক্টরেট প্রাথীর্ সামান্থা স্ট্রোঞ্জ বলেন, আগের গবেষণাগুলো থেকে আমরা জানি যে, মিডিয়ার কারণে সাধারণত নারীদের বাহ্যিক সৌন্দযর্ নিয়ে খারাপ লাগতে পারে। এ গবেষণায় আমরা দেখতে পাই যে, ওই ফলাফলগুলোই সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারীদের মধ্যে প্রতিফলিত হয়েছে।

অন্যদিকে সাবির্কভাবে পুরুষের মধ্যে শারীরিক গঠন সম্পকের্ সন্তুষ্টির মাত্রা নারীদের চেয়ে বেশি। তবে ফেসবুক ব্যবহারকারী পুরুষদের মধ্যে নিজের শারীরিক গঠন নিয়ে সন্তুষ্টির মাত্রা ফেসবুক ব্যবহার করেন না এমন পুরুষের তুলনায় কম।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
অাইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

উপরে