logo
বুধবার, ০৮ জুলাই ২০২০, ২৪ আষাঢ় ১৪২৬

  মাসুদুর রহমান   ২৫ জুন ২০২০, ০০:০০  

ছোটপর্দা থেকে বড়পর্দা অতঃপর ...

ছোটপর্দা থেকে বড়পর্দা অতঃপর ...
নাটক ও চলচ্চিত্রে কাজ করার বিষয়টি ঢাকাই শোবিজে দীর্ঘদিনের চিত্র। যদিও ছোটপর্দা থেকে বড়পর্দায় এসে আহামরি সুবিধা করতে পেরেছেন অল্পসংখ্যক অভিনয় শিল্পী। তবে দুই পর্দাতেই সমানতালে অভিনয় করে প্রশংসিত হয়েছেন কেউ কেউ। এক সময় প্রচুর আগ্রহ নিয়ে চলচ্চিত্রে নাম লেখালেও সুবিধা করতে পারেনি এমন অভিনেতা-অভিনেত্রীর সংখ্যা একেবারে কম নয়। না ফেরার প্রত্যয় নিয়ে রূপালি পর্দায় পথচলা শুরু হলেও হালে পানি না পাওয়ায় তাদের আবার ফিরে আসতে হয়েছে ছোটপর্দায়। বড়পর্দার আশা ছেড়ে দিয়ে এখন ছোটপর্দার জায়গাকেই ভরসা মনে করছেন তারা। নাটক-টেলিফিল্মে নিয়মিত অভিনয় করছেন।

অভিনেত্রী সোহানা সাবা মূলত বুলবুল ললিতকলা একাডেমি থেকে নাচ এবং ছায়ানট থেকে গান শিখে অভিনয়ে আসেন। তিনি প্রথম চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন চিত্রনায়িকা কবরীর পরিচালনায় 'আয়না' ছবিতে। হাতে গোনা বাংলাদেশি কয়েকটি ছবির পাশাপাশি কলকাতার একটি ছবিতেও নাম লেখান। চিত্রনায়ক নিরবের বিপরীতে তার অভিনীত 'আব্বাস' ছবিটি গত বছর মুক্তি পায়। কিন্তু ছবিটি দর্শকদের টানতে ব্যর্থ হয়। 'খেলাঘর', 'চন্দ্রগ্রহণ', 'প্রিয়তমেষু', 'বৃহন্নলা'র মতো কিছু মানসম্মত ছবিতে অভিনয় করলেও চলচ্চিত্রে নিজেকে টিকিয়ে রাখতে বেশ বেগ পেতে হয় এ অভিনেত্রীকে। তেমন আগ্রহ না থাকলেও বাধ্য হয়ে এখন কাজ করছেন টিভি নাটকে।

জ্যোতিকা জ্যোতির শুরুটা মঞ্চ দিয়ে। ২০০৪ সালে লাক্স-আনন্দধারা ফটোজেনিক প্রতিযোগিতায় সেরা দশে স্থান করে নিয়েছিলেন। ২০০৫ সালে তিনি প্রথম অভিনয় করেন 'আয়না' ছবিতে। এরপর তিনি বেলাল আহমেদের 'নন্দিত নরকে', তানভীর মোকাম্মেলের 'রাবেয়া' ও 'জীবনঢুলী' ও আজাদ কালামের 'বেদেনী', 'অনিল বাগচির একদিন' চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। মাসুদ পথিক পরিচালিত 'মায়া' ছবিতে সর্বশেষ অভিনয় করেন তিনি। গত বছর ছবিটি মুক্তি পেলেও আশার আলো দেখাতে পারেনি। জ্যোতি কলকাতার 'রাজলক্ষ্ণী শ্রীকান্ত' নামের একটি ছবিতেও অভিনয় করেন। প্রথম ছবি 'আয়না'তে অভিনয় করে সবার নজরে এলেও চলচ্চিত্রে এতদিনেও সুবিধা করতে পারেনি। তবে তিনি দেশের মেধাবী নির্মাতাদের নাটকে অভিনয় করার সুযোগ পেয়েছেন বারবার। এখন এই মাধ্যমেই নিজেকে ব্যস্ত রাখতে চেষ্টা করছেন। ২০১১ সালে লাক্স-চ্যানেল আই সুপার স্টারে রানার্স আপ হন অভিনেত্রী মৌসুমী হামিদ। ধারাবাহিক নাটক 'রশ্মি'তে অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে তিনি অভিনয় জগতে প্রবেশ করেন। এর পর অনেক ধারাবাহিক ও খন্ড নাটকে অভিনয় করেন। ছোটপর্দা থেকে নাম লেখান চলচ্চিত্রে। ২০১৩-তে 'না মানুষ' চলচ্চিত্রে অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে চলচ্চিত্র জগতে প্রবেশ করেন কিন্তু ২০১৪-তে 'হাডসনের বন্দুক' চলচ্চিত্রের মাধ্যমে আলোচনায় আসেন। এরপর 'জালালের গল্প', 'বস্ন্যাকমানি', 'বস্ন্যাকমেইল', 'পূর্ণদৈর্ঘ্য প্রেম কাহিনী-২', 'রানা পাগলা', 'দ্য মেন্টাল', 'মিশন সিক্স'সহ বেশ কিছু চলচ্চিত্রে অভিনয় করার সুযোগ পান। কিন্তু ভাগ্য তাকে ধরা দেয়নি। তাই চলচ্চিত্রের আশা ছেড়ে দিয়ে এখন নিয়মিত কাজ করছেন টিভি নাটকে। লকডাউনের বিরতি কেটে সম্প্রতি এই অভিনেত্রী ঈদের নাটকে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন।

অভিনেত্রী আশনা হাবিব ভাবনার মিডিয়ায় পথচলা ছোটবেলা থেকেই। বাবা হাবিবুর রহমান নাট্য পরিচালক। টিভি নাটকের পাশাপাশি তিনি নাচও করেন। অভিনয় করেছেন অসংখ্য নাটকে। অনিমেষ আইচের 'ভয়ংকর সুন্দর' ছবিতে অভিনয়ে নতুন করে আলোচনায় আসেন ছোটপর্দার এ অভিনেত্রী। তার সাবলীল অভিনয় ভক্ত তো বটেই, সমালোচকদেরও প্রশংসা পেলেও চলচ্চিত্রে জায়গা করে নিতে ব্যর্থ হন। তাই চলচ্চিত্রের আশা ছেড়ে দিয়ে ফের নাটকের অভিনয়ে মনযোগী হয়েছেন।

শিশুশিল্পী হিসেবে টিভি নাটকে অভিনয় শুরু আনিকা কবির শখের। বড়দের চরিত্রে প্রথম অভিনয় করেন 'অদ্ভুতুরে' ধারাবাহিক নাটকে। অভিনয় করেছেন বহু নাটকে, তবে বাংলালিংক দেশ টেলিভিশন বাণিজ্যিকের মাধ্যমে মিডিয়াতে জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন। চলচ্চিত্রে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে ২০১০ সালে প্রথম অভিনয় করেন শাকিব খানের সঙ্গে 'বলো না তুমি আমার' ছবিতে। ২০১৪ সালে 'অল্প অল্প প্রেমের গল্প' ছবিতে অভিনয় করেন। এ অভিনেত্রীও চলচ্চিত্রে নিজের অবস্থান তৈরি করতে পারেননি। ফলে ফিরে এসছেন ছোটপর্দায়। শবনম ফারিয়া টেলিভিশন বিজ্ঞাপনে কাজের মাধ্যমে মিডিয়া জগতে প্রবেশ করেন। এর পর ২০১৩ সালে তিনি 'অল টাইম দৌড়ের উপর' নাটকে অভিনয়ের মাধ্যমে আত্মপ্রকাশ করেন। এ অভিনেত্রীও চলচ্চিত্রের নায়িকা হতে ২০১৮ 'দেবী' চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। এরপর তাকে সিনেপর্দায় দেখা না গেলেও কাজ করছেন টিভি নাটকে।

২০১০ সালে লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টারে ৫ম স্থান অধিকারী মুমতাহিনা টয়া। রুমানা রশিদ ঈশিতার পরিচালনায় 'অদেখা মেঘের কাব্য' নাটকে অভিনয়ের মাধ্যমে টিভি নাটক শুরু করেন তিনি। পরে তিনি অনেক টেলিভিশন অনুষ্ঠান, নাটক, টেলিফিল্ম, বিজ্ঞাপন ও বহু ভিডিও গানেও কাজ করেছেন। ২০১৮ 'বেঙ্গলি বিউটি' ছবিতে অভিনয় করেন। নতুন কোনো চলচ্চিত্রে না থাকলেও কাজ করছেন টিভি নাটকে। অর্চিতা স্পর্শিয়া অভিনয় জীবন শুরু করেন 'প্যারাসুট' তেলের বিজ্ঞাপন দিয়ে। এর পর নাটকেও কাজ করেন। 'আবার বসন্ত', 'ইতি তোমারই ঢাকা', 'বন্ধন' ও 'কাঠবিড়ালী' চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। ছবিগুলো প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেলেও তার নামের আগে চিত্রনায়িকার খেতাব জুটেনি।

জাকিয়া বারি মম ২০০৬ সালে লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার প্রতিযোগিতায় জয় লাভের ফলে হুমায়ূন আহমেদ রচিত ও তৌকির আহমেদ পরিচালিত 'দারুচিনি দ্বীপ' চলচ্চিত্রে প্রধান চরিত্রে অভিনয়ের সুযোগ পান। এই চলচ্চিত্রের জন্য শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন। এরপর তিনি নাটকে অভিনয় করা শুরু করেন। নাটকের পাশাপাশি ২০১৪ সালে 'প্রেম করব তোমার সাথে', ২০১৫ সালে 'ছুঁয়ে দিলে মন' ২০১৮ সালে 'আলতাবানু', 'স্বপ্নের ঘর' চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। গত বছর বলিউডের একটি ছবিতে কাজ করলেও ঢালিউডে নিজের অবস্থান পাকাপোক্ত করতে পারছেন না। এ অভিনেত্রী এখন নাটকের কাজ নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন।

\হছোটপর্দার নায়িকাদের পাশাপাশি নায়কেরাও চলচ্চিত্রে নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করতে চেষ্টা করেছেন। অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্ব। যাকে টিভি নাটকের রোমান্টিক হিরো বলা হয়। ছোটপর্দায় তার গ্রহণযোগ্যতা থাকলেও দর্শকদের মন জয় করতে পারেনি বড়পর্দায়। ২০১৫ সালে তার অভিনীত 'গ্যাংস্টার রিটার্নস' ছবিটি মুক্তি পায়।

এছাড়া তিনি মোরশেদুল ইসলামের পরিচালনায় 'বৃষ্টির দিন' শিরোনামের একটি চলচ্চিত্রের অভিনয় করেন, কিন্তু কয়েকদিন চিত্র ধারণের কাজ করার পর ছবিটি বাতিল করা হয়। ছোটপর্দার মতো রুপালি পর্দায় নিজেকে মেলে ধরতে চাইলেও ভাগ্য তাকে ধরা দেয়নি। বাধ্য হয়ে ছোটপর্দা নিয়েই সন্তুষ্ট থাকছেন। ঠিক একই পথে হাঁটতে দেখা যাচ্ছে টিভি ও চলচ্চিত্র অভিনেত্রী আইরিনকেও।

ছোটপর্দার আরেক প্রিয় মুখ আব্দুন নূর সজল। টিভি নাটক দিয়ে অভিনয় শুরু হলেও তিনিও বড়পর্দায় নিজেকে নিয়ে চেষ্টা করেছেন। 'নিঝুম অরণ্য' চলচ্চিত্রে প্রথম অভিনয় করেন অনেক আগে। এর পর ২০১৪ 'রান আউট' ছবিতে কাজ করেন। কিন্তু ছবিটি কোনো সাড়া ফেলেনি। মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে 'জ্বীন' ছবিটি। এছাড়া 'হারজিত' নামের একটি ছবি তার হাতে রয়েছে। সজল আগের মতোই নিজেকে ব্যস্ত রেখেছেন টিভি নাটকে। ছোটপর্দা দিয়েই অভিনেতা কল্যাণ কোরাইয়ার ক্যারিয়ার শুরু। অসখ্য নাটকে কাজ করলেও আগ্রহ প্রকাশ করেন চলচ্চিত্র নিয়ে। এ পর্যন্ত কাজ করেছেন চারটি চলচ্চিত্রে। ছবিগুলো হচ্ছে পিতা, জোনাকির আলো, প্রার্থনা এবং মুখোশ মানুষ। তবে বর্তমানে এই অভিনেতা কাজ করছেন খন্ড ও ধারাবাহিক নাটকে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে