logo
মঙ্গলবার ১৬ জুলাই, ২০১৯, ১ শ্রাবণ ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ২৮ মার্চ ২০১৯, ০০:০০  

মিলছে না সাফল্যের দেখা

দেখতে দেখতে কেটে গেল ২০১৯ সালের প্রথম তিন মাস। নতুন বছরকে টার্গেট করে নতুন আশায় বুক বেঁধেছিলেন চলচ্চিত্রের এ সময়ের আলোচিত গস্নামারস সর্বস্ব নায়িকারা। নতুন করে জ্বলে ওঠারও প্রত্যয় ব্যক্ত করেছিলেন তারা। কিন্তু হতাশা দিয়েই শুরু হয় নতুন বছর। এই তিন মাসে অনেকেরই নতুন সিনেমা মুক্তি পেয়েছে। সবগুলো ছবিই ব্যবসায়িকভাবে ব্যর্থ হয়েছে। প্রত্যাশা অনুযায়ী সাফল্যের দেখা মিলছে না উঠতি ও আলোচিত নায়িকাদের। লিখেছেন জাহাঙ্গীর বিপস্নব

মিলছে না সাফল্যের দেখা
পরীমনি
হতাশা দিয়েই শুরু হয় চলচ্চিত্রের বছর। দেশীয় কোনো চলচ্চিত্র প্রস্তুত না থাকায় ভারতীয় ছবি দিয়ে যাত্রা শুরু করে চলচ্চিত্রের ২০১৯। মাত্র একটি ছবি মুক্তি পায় জানুয়ারিতে। তাও সেটা পুরনো ছবি। 'আই অ্যাম রাজ' নামের এই সিনেমাটির নির্মাণকাজ শেষ হয় আজ থেকে চার বছর আগে। তবে জানুয়ারি মাসটি ছবিশূন্য গেলেও ফেব্রম্নয়ারিতে হঠাৎ করেই ছবি মুক্তির ধুম পড়েছে। প্রতি সপ্তাহেই দুটি করে ছবি মুক্তি পায় ফেব্রম্নয়ারিতে। যে কারণে অনেকটা উৎসবমুখর পরিবেশ ছবিপাড়ায়। নির্মাতা, হল মালিক ও বুকিং এজেন্টরাও বেশ ব্যস্ত হয়ে ওঠেন। এসব ছবিতে দেশের প্রায় আলোচিত নায়ক-নায়িকাদেরই দেখা মেলে। কিন্তু ছবি মুক্তির পর সব প্রত্যাশাই হতাশায় রূপ নেয়।

লাক্সকন্যা বিদ্যা সিনহা মিমকে দিয়েই শুরু করা যাক। চলতি বছরটি শুরু হয় তার অভিনীত সিনেমা দিয়ে। চলমান সময়ের এই ব্যস্ত অভিনেত্রীর শুভ হয়নি চলচ্চিত্র যাত্রা। দীর্ঘ এক বছর পর ফেব্রম্নয়ারির প্রথম সপ্তাহেই মুক্তি পায় তার 'দাগ হৃদয়ে' সিনেমাটি। এই ছবির মাধ্যমে চতুর্থবারের মতো জুটি হয়ে পর্দায় ফেরেন বাপ্পী-মিম। ত্রিভুজ প্রেমের এই ছবিতে বাপ্পী-মিম ছাড়াও অভিনয় করেছেন আঁচল। সিনেমাটি নিয়ে মিম বলেছিলেন, অনেক দিন বিরতির পর বাপ্পীর সঙ্গে নতুন ছবি নিয়ে পর্দায় আসছেন। তার বিশ্বাস সিনেমাটি দর্শকরা পছন্দ করবেন। কিন্তু মুক্তির আগে প্রচার-প্রচারণা দিয়ে যে আলোচনার ঝড় ওঠে, সেই আলোচনা যেন হঠাৎ করে থেমে যায় মুক্তির পর।

চলচ্চিত্রের আরেক গস্নামারগার্ল পরীমনি। প্রায় একডজন ছবি মুক্তি পেলেও এখন পর্যন্ত সাফল্যের মুখ দেখেননি এই নায়িকা। কিন্তু চলতি বছরের শুরুতেই ঘুরে দাঁড়াতে চেয়েছিলেন এই নায়িকা। ৮ ফেব্রম্নয়ারি মুক্তি পায় পরীমনি ও কায়েস আরজু অভিনীত 'আমার প্রেম আমার প্রিয়া' সিনেমাটি। ঢাকার মধুমিতা, বলাকা, শ্যামলী সিনেপেস্নক্স, যমুনা বস্নকবাস্টার, পুনম, এশিয়া, চিত্রমহল, চম্পাকলি, বর্ষা, আনন্দ, সৈনিক ক্লাব ও রাজমনীসহ দেশের প্রায় অর্ধশতাধিক সিনেমা হলে একযোগে প্রদর্শিত হয় সিনেমাটি। শামীমুল ইসলাম শামীম পরিচালিত এ সিনেমাটির মাধ্যমে পরীও প্রায় একবছর পর দর্শকদের সামনে আসেন। কিন্তু তারপরেও চমক দেখাতে পারেননি দর্শকদের। যদিও সিনেমাটি মুক্তির আগে পরীমনি বলেছিলেন, অনেকদিন পর দর্শকদের সামনে আসছি। পুরো ছবিতে দর্শক বিনোদন খুঁজে পাবেন। নতুন নতুন চমক দেখতে পাবেন। সেই সঙ্গে পাবেন হাসি আনন্দ।'

পরের সপ্তাহে (১৫ ফেব্রম্নয়ারি) মুক্তি পায় 'রাত্রির যাত্রী'। গল্পপ্রধান এই সিনেমায় ব্যতিক্রমী এক চরিত্রে অভিনয় করেছেন মৌসুমী। চার বছর আগে শুরু হওয়া এই সিনেমাটির জন্য অপেক্ষায় আছেন এই নায়িকা। এর আগে বারবার মুক্তির কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত পিছিয়ে যায় সিনেমাটির মুক্তির তারিখ। সিনেমাটি নিয়ে আশাবাদী কণ্ঠে মৌসুমী বলেন, এখন তো মনের টানে অভিনয় করি। ভালো চরিত্রে অভিনয়ের জন্য মনটা ব্যাকুল থাকে। 'রাত্রির যাত্রী' একটি ভালো গল্পের ছবি হিসেবে দর্শকদের সামনে আসবে- এমন নিশ্চয়তা আমি দিতে পারি। আর এই সিনেমাটির জন্য আমি নিজেও মুখিয়ে আছি। পরিচালককে ধন্যবাদ দিতে চাই, আমাকে এরকম মনের মতো একটা চরিত্র দেয়ার জন্য।'

কিন্তু মৌসুমীও যেন জ্বলে উঠতে পারেননি নতুন করে। এ সিনেমায় মৌসুমীর বিপরীতে অভিনয় করেছেন আনিসুর রহমান মিলন। একইদিনে মুক্তি পায় তৌকীর আহমেদ পরিচালিত 'ফাগুন হাওয়ায়' সিনেমাটি। এতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেন নুসরাত ইরোজ তিশা। বিপরীতে ছিলেন তরুণ নায়ক সিয়াম। ১৯৫২ সাল আর ভাষা আন্দোলনের প্রেক্ষাপটে ওই সময় বাংলাদেশের এক মফস্বল শহরের গল্প তুলে ধরা হয়েছে এ ছবিতে। কিন্তু ছবিটি নিয়ে ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা চালালেও সফলতা অর্জন করতে ব্যর্থ হন তিশা। যদিও সুধীমহলে কিছুটা প্রশংসা কুড়িয়েছে সিনেমাটি।

চলচ্চিত্রের সফল অভিনেত্রী মাহিয়া মাহী। শুরুটা জমকালো হলেও নানান ঘটনা ও বিতর্কে হঠাৎ করেই নিভে যায় মাহীর ঝলমলে ক্যারিয়ার। মাঝখানে ২০১৭ সালে 'ঢাকা অ্যাটাক' সিনেমাটির মাধ্যমে নতুন করে আলোচনায় এলেও ২০১৮ সালে কোনো সিনেমাই হিট হয়নি মাহীর। ফলে চলতি বছর দিয়ে নতুন করে ছন্দে ফিরতে চেয়েছিলেন তিনি। ২২ ফেব্রম্নয়ারি মুক্তি পায় চলচ্চিত্র মাহিয়া মাহীর 'অন্ধকার জগৎ'। সিনেমাটি পরিচালনা করেছেন বদিউল আলম খোকন। সিনেমায় মাহির নায়ক ডিএ তায়েব। এ সিনেমাটিও মুক্তির পর পর মুখ থুবড়ে পড়ে। অনেকের ধারণা, ডি এ তায়েবের জন্যই সিনেমাটি দর্শক টানতে ব্যর্থ হয়েছে।

ফেব্রম্নয়ারি মাসের ব্যর্থতার স্রোতে বাধা হয়ে দাঁড়ায় 'যদি একদিন' সিনেমাটি। ৮ মার্চ মুক্তি পাওয়া তাহসান অভিনীত 'যদি একদিন' ব্যবসায়িকভাবে সফলতা অর্জন করলেও তাতে নায়িকা ছিলেন কলকাতার শ্রাবন্তী।

এদিকে যৌথ প্রযোজনার ছবিও এখন অন্ধকারে মুখ থুবড়ে পড়ছে। 'যদি একদিন' ছবির সাফল্যে চলচ্চিত্রপাড়ায় যখন কিছুটা স্বস্তি ফিরে আসে, ঠিক তার পরের সপ্তাহেই আবার হতাশা নেমে আসে যৌথ প্রযোজনা সিনেমা 'প্রেম আমার টু'। গত ১৫ মার্চ মুক্তি পাওয়া এই সিনেমায় অভিনয় করেছিলেন বাংলাদেশের পূজা চেরী ও ভারতের অদ্রিত। উদিয়মান এই দুশিল্পী দর্শকদের প্রত্যাশা মেটাতে না পারায় মুখ থুবড়ে পড়েছিল বক্স অফিসে। এক কথায় ব্যবসায়িকভাবে ব্যর্থ। এমন দৃশ্য দেখে যৌথ প্রযোজনার ছবির ব্যর্থতা ষোলোকলাপূর্ণ হলো বলে মন্তব্য করেছেন চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টরা। যদিও পূজা চেরী আগের বছর বেশ কয়েকটি হিট সিনেমা উপহার দিয়ে চলচ্চিত্রে নিজের একটা শক্ত অবস্থান তৈরি করে নিয়েছেন।

তবে ব্যর্থতা কাটিয়ে নতুন সিনেমার মাধ্যমে নতুন আশায় বুক বেঁধেছেন এসব নায়িকারা। দেখা যাক, শেষ পযন্ত কতটা আশার আলো দেখতে পান তারা।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে