logo
বৃহস্পতিবার ২২ আগস্ট, ২০১৯, ৭ ভাদ্র ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ২৫ জুলাই ২০১৯, ০০:০০  

অভিনয়ই সাফা কবিরের ধ্যান-জ্ঞান

'সমস্যা হলো, টিভি নাটকের চেয়ে অনলাইনে কাজের বাজেট বেশি থাকছে, সাড়াও বেশি আসছে। টিভির বাজেট ঠিক না থাকলে কিছু করার নেই। এ কারণে অনলাইনের নাটকগুলোতে বেশি আগ্রহ আমার। তবে ধারাবাহিক নাটকে কাজ করতে ভালো লাগে না। যা করেছি দু'বছর আগে। শুরুতে গল্প একভাবে শুরু হয়। কিছুদিন পর গল্প পরিবর্তন হয়ে যায়। সবকিছু মিলিয়ে ধারাবাহিক নাটকে কোনোকিছুই ভালো লাগে না আমার

অভিনয়ই সাফা কবিরের ধ্যান-জ্ঞান
সাফা কবির
তারার মেলা রিপোর্ট

মডেল, অভিনেত্রী এবং উপস্থাপক নামে পরিচিত হলেও মডেল কিংবা উপস্থাপক হিসেবে নিজেকে পরিচয় দিতে রাজি নন তিনি। যদিও মডেলিং দিয়েই আলোচনায় আসেন তিনি। কিন্তু অভিনয়কে ঘিরেই তার সব ধ্যান-জ্ঞান। হোক সেটা চলচ্চিত্র, নাটক কিংবা ওয়েব সিরিজ। পুরো মাসজুড়েই ব্যস্ততা থাকত তার। হঁ্যা, সাফা কবিরের কথাই বলা হচ্ছে। ছোট পর্দায় তিনি এখন অনেকটাই পরিচিত মুখ। গত বছর অনেকগুলো নাটক, স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র, ওয়েব সিরিজ, গান ভিডিওতে কাজ করে নিজেকে পরিণত অভিনেত্রী হিসেবে প্রমাণের চেষ্টা করেছেন। বলা যায়, অনেকখানি সফলও হয়েছেন। অভিনয়ের ফাঁকে ফাঁকে মডেলিং ও উপস্থাপনা করেছেন।

দেশীয় শোবিজ অঙ্গনে এখন ওয়েব সিরিজ নির্মাণের ধুম পড়েছে। পিছিয়ে নেই সাফাও। ওয়েব সিরিজের অভিজ্ঞতার প্রসঙ্গ তুলতেই সাফা জানালেন, 'বাঘবন্দি', 'উষ্ণের আত্মহত্যা' এই দুটো ওয়েব সিরিজ অনেক আগেই করেছি। আমি যখন কাজ করেছি, তখন সেভাবে কেউ ওয়েব সিরিজ করত না, এখন যেভাবে করছে। এই দুটো ওয়েব সিরিজ খুবই ভালো গেছে। নাটক, ওয়েব সিরিজ, স্বল্পদৈর্ঘ্য যাই হোক; ইউটিউবে যা আছে সেখান থেকে ভালো সাড়া পাই। টিভিতে যখন নাটক প্রচার হয় তখন বুঝি না ক'জন দেখছে। কিন্তু ইউটিউবে যখন আসে, তখন বুঝতে পারি কজন দেখল, কতজন পছন্দ করল, অপছন্দ করল, কিংবা কে কি বলল? এ কারণে ইউটিউবে কোনো কাজ এলে আমি বেশি সাড়া পাই।

উপস্থাপনা নিয়ে সাফা কবীর বলেন, "আমি কিন্তু নিয়মিত উপস্থাপনা করি না। এর আগে দুটো অনুষ্ঠানের উপস্থাপনা করেছি। একটি ছিল শিশুদের, অন্যটি সুন্দরী প্রতিযোগিতার। এ বছরের প্রথম দিনেই নতুন একটি কাজ করেছি উপস্থাপনায়। অনুষ্ঠানের নাম 'তীর লিটিল শেফ'। এখানে ছোট ছোট বাচ্চারা মজার মজার রান্না করে। বেশ গোছানো এবং মজার একটি অনুষ্ঠান।"

নাটকের চলমান অবস্থা নিয়ে সাফা বললেন, 'সমস্যা হলো, টিভি নাটকের চেয়ে অনলাইনে কাজের বাজেট বেশি থাকছে, সাড়াও বেশি আসছে। টিভির বাজেট ঠিক না থাকলে কিছু করার নেই। এ কারণে অনলাইনের নাটকগুলোতে বেশি আগ্রহ আমার। তবে ধারাবাহিক নাটকে কাজ করতে ভালো লাগে না। যা করেছি দু'বছর আগে। শুরুতে গল্প একভাবে শুরু হয়। কিছুদিন পর গল্প পরিবর্তন হয়ে যায়। সবকিছু মিলিয়ে ধারাবাহিক নাটকে কোনোকিছুই ভালো লাগে না আমার।'

অভিনয়ের পাশাপাশি এবিসি রেডিওতে সপ্তাহের প্রতি শনিবার রাত ৯টা থেকে ১১টা পর্যন্ত 'লাভ স্ট্রাক বাই সাফা কবির' নামের একটি অনুষ্ঠানে জকি হিসেবে কাজ করছেন সাফা কবির। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, 'খুব উপভোগ করছি। আমি মনে করি, যত কাজ করব, তত মানুষ পর্যন্ত পৌঁছাবে। ভক্তরাও চায় আমার সঙ্গে যুক্ত হতে। এই কাজের মাধ্যমে সেটা পারছে। তারা আমাকে খুদেবার্তা পাঠায়। আমার সম্পর্কে জানতে পারছে। আমি তাদের সঙ্গে কথা বলতে পারছি। এর মাধ্যমে বুঝতে পারছি দিন দিন আমার কাজের দর্শক বাড়ছে।'

সবশেষে সাফা জানালেন, চলতি বছরের তার কিছু পরিকল্পনার কথা। বললেন, 'এ বছরে নিজেকে আরও ভাঙতে চাই। চলচ্চিত্রে অভিনয়ের একটা সম্ভাবনা আছে। অবশ্যই চলচ্চিত্রে কাজ করার ইচ্ছে আছে। যখন মনের মতো গল্প পাব এবং অনেক মেধাবী, গুণী একজন পরিচালকের নির্দেশনায় কাজ করার সুযোগ মিলবে, তখনই চলচ্চিত্রে কাজ করব। তবে গল্পটা হতে হবে একেবারেই নতুন। চাই চরিত্রনির্ভর ভিন্ন ধারার চলচ্চিত্র।'
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে