logo
শুক্রবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

  তারার মেলা রিপোর্ট   ২৮ নভেম্বর ২০১৯, ০০:০০  

দেশি তারকাদের বিদেশি কনসার্ট

দেশি তারকাদের বিদেশি কনসার্ট
কোনাল
রেডিও-টেলিভিশনের বাইরে সারা বছর দেশের বিভিন্ন এলাকায় কনসার্ট নিয়ে ব্যস্ত থাকেন শিল্পীরা। নাচে, গানে মাতিয়ে তোলেন দর্শক-শ্রোতাদের। কিছু কিছু শিল্পীর উপস্থাপনার মুগ্ধতার রেশ ছড়িয়ে পড়ে দেশের বাইরেও। ডাক পড়ে বিদেশের মঞ্চে। সুরের মূর্ছনায় উত্তেজিত করে প্রবাসী ও বিদেশি দর্শকের মন। শুধু কণ্ঠশিল্পীই নন, অভিনয় শিল্পীদেরও উপস্থাপনা দেখতে মুখিয়ে থাকেন প্রবাসী দর্শক। দেশি তারকাদের অনেকেই বিদেশি কনসার্টে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন।

সম্প্রতি ১৮ দিনের অস্ট্রেলিয়া সফর শেষে দেশে ফিরেছেন এ সময়ের আলোচিত সংগীত তারকা নাজমুন মুনিরা ন্যান্সি। এই সফরে বেশ কয়েকটি শোতে অংশ নিয়েছেন তিনি। সিডনি, ব্রিসবেন ও মেলবোর্নে কনসার্ট করেছেন এ গায়িকা। সুরে সুরে মাতিয়েছেন দর্শকদের। তার সঙ্গে গিয়েছে ন্যান্সির বড় মেয়ে রোদেলাও। ন্যান্সি বলেন, '১৮ দিনের সফর ছিল। আমার সঙ্গে এবার প্রথম কোনো বিদেশ সফরে রোদেলাকে নিয়ে গিয়েছিলাম। মা-মেয়ে মিলে গান করেছি। একসঙ্গে ঘুরে বেড়িয়েছি। অন্যরকম একটা সময় পার করেছি আমরা। আর তিনটি কনসার্টই খুব ভালো হয়েছে। দর্শক সমাগমও ছিল যথেষ্ট। অস্ট্রেলিয়ায় প্রবাসী শ্রোতাদের ভালোবাসায় মুগ্ধ হয়েছি।'

ভারত-বাংলাদেশ ছেড়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে দর্শক মাতিয়েছেন সারেগামাপা খ্যাত সংগীতশিল্পী মাঈনুল আহসান নোবেল। গত ১৫ সেপ্টেম্বর নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটস মেতে উঠেছিল নোবেলের সংগীত মূর্ছনায়। বেলাজিনো পার্টি হলে নোবেলের একক কনসার্টে ছিল শ্রোতা দর্শকদের উপচে পড়া ভিড়। 'সারেগামাপা'-এর প্রধান সংগীত সমন্বয়কারী শুভম মৈত্রকে নিয়ে রাত ৮টা ৪৫ মিনিটে মঞ্চে ওঠেন নোবেল। 'আকাশ ভরা সূর্য তারা' গানের মাধ্যমে তিনি তার পরিবেশনা শুরু করেন। একে একে তিনি বিভিন্ন জনপ্রিয় শিল্পীর গাওয়া 'মা', 'বাবা',

'বৃদ্ধাশ্রম', 'বাংলাদেশ', 'যেখানে সীমান্ত তোমার'সহ প্রায় ২০টি গান পরিবেশন করেন।

গত জুলাই মাসে নিউইয়র্কের ব্রঙ্কসে গোল্ডেন প্যালেসে এক মেগা কনসার্টের আয়োজন করা হয়েছিল। ফুলকলি ফাউন্ডেশন নিউইয়র্ক এ কনসার্টের আয়োজন করে। কনসার্টে বাংলাদেশের চলচ্চিত্র অঙ্গনের নায়ক-নায়িকা জুটি ওমর সানি ও মৌসুমী পারর্ফম করেন। অতিথি দম্পতি মৌসুমী-ওমর সানি দর্শকদের উদ্দেশে প্রিয় গানের সঙ্গে অভিনয় করে দেখিয়েছেন। প্রবাসীরা মৌসুমী ও ওমর সানির উপস্থাপনায় উচ্ছ্বসিত হন। অনুষ্ঠানে ব্যাপক দর্শক উপস্থিতি সামাল দিতে আয়োজকদের হিমশিম খেতে হয়। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের বস্নাক ডায়মন্ড খ্যাত কণ্ঠশিল্পী বেবি নাজনীনের পারফর্ম করার কথা থাকলেও তিনি ছিলেন অনুপস্থিত। তবে এই প্রখ্যাত কণ্ঠশিল্পী সারা বছর দেশের চেয়ে বিদেশেই বেশি পারফর্ম করেন।

বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব ডেনমার্ক এবং ফেস মিডিয়া ইভেন্টের আয়োজনে 'জেমস নাইট' নামের দুটি কনসার্ট করেন জেমস। ২৮ জুন সুইডেনের স্টকহোমে এবং ২৯ জুন ডেনমার্কের কোপেনহেগেনে কনসার্ট করেন এই রকস্টার। এর আগে গত মে মাসে শ্রমিক সংহতি দিবস উপলক্ষে মালয়েশিয়ায় প্রবাসী শ্রমিকদের জন্য গান করেন ব্যান্ড তারকা জেমস ও নগর বাউল। কুয়ালালামপুরের ইন্টিগ্রিটেড কমার্শিয়াল কমপেস্নক্সের (আইসিসি) গ্র্যান্ড বলরুমে এ অনুষ্ঠান চলে।

ঢালিউড কুইনখ্যাত চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস ইদানীং স্টেজ প্রোগ্রাম নিয়েই বেশি ব্যস্ত থাকেন। চলচ্চিত্রে ব্যস্ততা না থাকায় দেশে ও বিদেশে মঞ্চ প্রোগ্রাম করছেন। চলতি মাসেও ভারতের আসামে মঞ্চ মাতিয়েছেন অপু। আসামের বরপেটা জেলার সুরুপেটা চাউলিয়াবাড়ী একটি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে পারফর্ম করেন। অপু জানান, 'মঞ্চে পারফর্ম করতে আমার ভালো লাগে। দেশ-বিদেশের অনেক স্টেজ শো করেছি। আসামের অনুষ্ঠানটি দর্শকরাও বেশ ভালোভাবেই উপভোগ করেছে।' ১৬ সেপ্টেম্বর মালয়েশিয়ার একটি অনুষ্ঠানে সংগীত পরিবেশন করেন আঁখি আলমগীর, ফকির শাহাবুদ্দিন। সেখানেও ছিলেন অপু বিশ্বাস।

কণ্ঠশিল্পী কুমার বিশ্বজিৎ বহু আগে থেকেই গান করছেন বিদেশের মাটিতে। প্রবাসীদের আয়োজনে প্রতি বছরই নানা কনসার্ট করেন। চলতি বছরও বেশ কিছু কনসার্ট করেছেন বিভিন্ন দেশে। এর মধ্যে উলেস্নখ্যযোগ্য গত জুলাইয়ের মেলবোর্নের কনসার্ট। প্রায় দুই/আড়াই ঘণ্টা গেয়ে যান তিনি। এর আগে কুমার বিশ্বজিৎ, অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে প্রোগ্রাম করে মেলবোর্নে আসেন।

২৯-৩০ মার্চ ব্রম্ননাইয়ে দুটি কনসার্ট করেন কণ্ঠশিল্পী কোনাল। মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশি হাইকমিশনের আমন্ত্রণে সেখানে বসবাসরত প্রবাসীদের গান শোনানোর উদ্দেশ্যেই ছিল সেই আয়োজন। এর আগে আমেরিকা, যুক্তরাজ্য, ইউরোপের বিভিন্ন দেশ, সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া, কাতার, ওমান, দুবাইসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে গিয়েছেন কোনাল। সবগুলো দেশে গিয়েছিলেন প্রবাসীদের গান শোনাতে। তিনি বলেন, আমি নিজে ছোটবেলা থেকে বড় হয়েছি কুয়েতে। তখন আমি নিজেই ছিলাম প্রবাসী। তাই আমি নিজে বুঝি প্রবাসীরা এসব অনুষ্ঠান নিয়ে কতটা উদগ্রীব থাকেন। তাদের মুখে হাসি ফোটানো এবং কিছুটা আনন্দ ভাগাভাগির মধ্যে অন্যরকম প্রশান্তি কাজ করছে।

সময়ের কণ্ঠশিল্পী ইমরান মাহমুদুল। বিদেশি কনসার্টে তার দারুণ ব্যস্ততা। বছরের শুরু থেকেই বিভিন্ন দেশে কনসার্ট করে চলছেন। চলতি বছরে মার্কিন মুলুক, মধ্যপ্রাচ্য, এশিয়ার বিভিন্ন দেশসহ ইউরোপের ফ্রান্স, সুইজারল্যান্ড ও সুইডেনে কনসার্ট করেছেন তিনি। ইমরানের ভাষায়, প্রতিটি কনসার্ট ছিল সফল। প্রবাসের বাঙালিরা সবগুলো কনসার্ট উপভোগ করেছিলেন। গত জুন মাসে ব্যতিক্রমী কনসার্ট করেন ইমরান। লন্ডনের টাওয়ার হ্যামলেটসের ব্রিটিশ মেয়রের আমন্ত্রণে ইমরান

\হ

ও তার ব্যান্ডদল 'আই কিংস' কনসার্ট করেন সেখানে। এই গায়ক জানান, ৩০ জুন বিকেলে টাওয়ার হ্যামলেটে ৫০ হাজারের বেশি দর্শক সরাসরি ভেনু্যতে এসে কনসার্ট উপভোগ করেন। লন্ডনে এত দর্শকের উপস্থিতি অবিশ্বাস্য মনে হলেও তাই হয়েছে। খুব জমজমাট ছিল কনসার্টটি। ইমরান ও তার ব্যান্ডদল 'আই কিংস' টানা ১ ঘণ্টা গান করার পর দর্শক স্টেজ ত্যাগ করতে দিচ্ছিলেন না। মনে হচ্ছিল লন্ডনের মাটিতেও এ আমার 'এক টুকরো বাংলাদেশ'। ইমরান বলেন, আমার জীবনের অন্যতম সেরা একটি কনসার্ট এটি। লন্ডনের সবচেয়ে বড় বৈশাখী মেলা এটি। আয়োজনে ছিলেন স্থানীয় ব্রিটিশ মেয়র। শুধু প্রবাসী বাঙালিরাই নন, সেখানকার স্থানীয়রাও আমার সংগীত পরিবেশনায় মুগ্ধ হন। ওই সময়েই লন্ডন মাতিয়ে এবার কানাডায় যান শিল্পী ইমরান।

গত জুলাই মাসে প্রবাসী বাংলাদেশিদের আয়োজনে 'দুবাই গালা-২০১৯' অনুষ্ঠিত হয় সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইতে। সাংস্কৃতিক বিনোদনের খোরাক জোগাতে দুবাই মাতিয়েছেন ইমরান চ্যানেল আই সেরাকণ্ঠ তারকা ঝিলিক, ক্লোজ আপ তারকা সেফালী।

গত কোরবানির ঈদের পর ছুটিতে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে গিয়েছিলেন অভিনেতা ও সংগীতশিল্পী তাহসান খান। সে সময়ে তিনি একাধিক কনসার্টে গান পরিবেশন করেন। সেখান থেকে ফিরে আসার পর ফের একমাসের জন্য নিউইয়র্কে কনসার্ট করতে গেছেন এ তারকা।

সংযুক্ত আরব আমিরাতে ক্রিকেটের নতুন ফরম্যাটে টি-টেন লিগ শুরু হয়েছে সম্প্রতি। টি-টেন ক্রিকেট লিগের প্রতি বছরেই জমকালো অনুষ্ঠান। যেখানে অংশ নেন উপমহাদেশের কিংবদন্তি তারকারা। এ আসরে উপমহাদেশের সব তারকার সঙ্গে মঞ্চ মাতিয়েছেন বাংলাদেশের নায়ক শাকিব খান।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে