logo
শনিবার ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১ পৌষ ১৪২৫

  টাঙ্গাইল প্রতিনিধি   ০৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০  

টাঙ্গাইল-৪ আসন

নৌকার বিরুদ্ধে লতিফ সিদ্দিকী

নৌকার বিরুদ্ধে লতিফ সিদ্দিকী
লতিফ সিদ্দিকী হাছান ইমান

টাঙ্গাইল-৪ আসনে এবার স্বতন্ত্রপ্রাথীর্ হিসেবে নিবার্চন করছেন আওয়ামী লীগের সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য ও মন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকী। অন্যদিকে দলীয় মনোনয়ন নিয়ে নৌকা প্রতীকে প্রতিদ্ব›িদ্বতা করবেন বতর্মান এমপি মোহাম্মদ হাছান ইমাম খঁান। জানাগেছে, মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক আবদুল লতিফ সিদ্দিকী কালিহাতী থেকে ১৯৭০ সালের ঐতিহাসিক নিবার্চনে আওয়ামী লীগের প্রাথীর্ হিসেবে প্রাদেশিক পরিষদের সদস্য, ১৯৭৩, ১৯৯৬ ও ২০০৮ সালের নিবার্চনে বিজয়ী হয়ে মন্ত্রিত্ব লাভ করেন। সবের্শষ ২০১৪ সালের দশম জাতীয় সংসদ নিবার্চনে তিনি বিনা প্রতিদ্ব›িদ্বতায় এমপি নিবাির্চত হন। ওই বছরের ২৯ সেপ্টেম্বর নিউ ইয়কের্ টাঙ্গাইল সমিতি আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে হজ ও তাবলিগ জামাত নিয়ে বক্তব্য দেয়ায় সমালোচনার ঝড় ওঠে। একপযাের্য় তিনি মন্ত্রিত্ব হারান এবং দল থেকে তাকে বহিষ্কার করা হয়। লতিফ সিদ্দিকী টাঙ্গাইলের কালিহাতী সদরে তার নিজ বাসায় সংবাদ সম্মেলন করে বলেছেন, তিনি স্বতন্ত্র প্রতীকে নিবার্চন করবেন। নিজেকে বঙ্গবন্ধুর আদশের্র সৈনিক উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আমি আওয়ামী লীগের বাইরের কেউ নই। জননেত্রী শেখ হাসিনাকে এই আসনটি উপহার দেয়ার জন্যই নিবার্চনে লড়ব। ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বরে আবদুল লতিফ সিদ্দিকী সংসদ থেকে পদত্যাগ করলে উপনিবার্চনে ওই আসনে এমপি নিবাির্চত হন মোহাম্মদ হাছান ইমাম খঁান। অপরদিকে, কালিহাতী উপজেলা আওয়ামী লীগ থেকে দলীয় মনোনয়নের জন্য উপজেলা আ’লীগের সভাপতিসহ তিন নেতার নাম প্রস্তাব করে কেন্দ্রে পাঠানো হয়। বতর্মান সংসদ সদস্য মোহাম্মদ হাছান ইমাম খঁানের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে ধরে তাকে ছাড়া অন্য কাউকে মনোনয়ন দেয়ার জন্য লিখিতভাবে অনুরোধ করা হয়। তৃণমূলের অনুরোধ উপেক্ষা করে এমপি মোহাম্মদ হাছান ইমাম খঁানকে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন দেয়া হয়। এতে কালিহাতী উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতা ও তৃণমূলের কমীর্রা চরমভাবে হতাশ হন। উপজেলা আ’লীগের সহসভাপতি ইঞ্জিনিয়ার মো. লিয়াকত আলী ক্ষুব্ধ হয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রণ্টের মনোনয়ন পাওয়ার প্রত্যাশায় যোগদান করে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের হয়ে মনোনয়নপত্র জমা দেন। উপজেলা আ’লীগের সভাপতি মোজহারুল ইসলাম তালুকদার ও জেলা আ’লীগের নেতা আবু নাসের স্বতন্ত্র প্রাথীর্ প্রাজ্ঞ রাজনীতিক আবদুল লতিফ সিদ্দিকীর প্রতি মৌন সমথর্ন জ্ঞাপন করেছেন। এ কারণে ৫-৭ জন ব্যতীত উপজেলা, দুইটি পৌরসভা ও ১৩টি ইউনিয়নের অধিকাংশ নেতাকমীর্ স্বতন্ত্রপ্রাথীর্ আবদুল লতিফ সিদ্দিকীর পক্ষে অবস্থান নিয়েছেন। ফলে টাঙ্গাইল-৪(কালিহাতী) সংসদীয় আসনে নৌকা প্রতীকের বিরুদ্ধে উপজেলা আওয়ামী লীগের অবস্থান দিন দিন স্পষ্ট হচ্ছে। তৃণমূলের বিভিন্ন ইউনিয়নের নেতারা বলেন, ‘আমরা আওয়ামী লীগ করি, লতিফ সিদ্দিকীও আওয়ামী লীগই করেন; তাই লতিফ সিদ্দিকীকে বিজয়ী করতে কাজ করছি’।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
অাইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে