logo
  • Wed, 26 Sep, 2018

  যাযাদি ডেস্ক   ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০  

আবারও বৈঠকে বসতে ট্রাম্পকে চিঠি লিখেছেন কিম

আবারও বৈঠকে বসতে ট্রাম্পকে চিঠি লিখেছেন কিম
সিঙ্গাপুরে কিম জং-উন ও ডোনাল্ড ট্রাম্প Ñফাইল ছবি
নতুন আরেকটি শীষর্ বৈঠকের অনুরোধ জানিয়ে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উন মাকির্ন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে চিঠি লিখেছেন। যুক্তরাষ্ট্র বলেছে, দুই নেতার বৈঠকের দিনক্ষণ ঠিক করতে এরই মধ্যে কাজও শুরু হয়েছে। চলতি বছরের জুনে সিঙ্গাপুরে বৈরি এই দেশ দুটির দুই শীষর্ নেতা প্রথমবারের মতো ঐতিহাসিক বৈঠকে মিলিত হয়েছিলেন। এরই ধারাবাহিকতায় নতুন শীষর্ বৈঠকের অনুরোধ করা হয়েছে। হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র সারাহ স্যান্ডাসর্ মন্তব্য করেছেন, উত্তর কোরিয়ার ‘হৃদ্যতাপূণর্’ এই চিঠি ‘পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণে পিয়ংইয়ংয়ের প্রতিশ্রæতির ধারাবাহিকতার’ প্রকাশ। সংবাদসূত্র : বিবিসি, এএফপি অনলাইন

সিঙ্গাপুরে ট্রাম্প-কিমের ঐতিহাসিক সম্মেলনের পর থেকেই কোরীয় উপদ্বীপের পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণের আলোচনা ধীরে ধীরে থিতিয়ে আসছিল। এর মধ্যেই উত্তর কোরিয়ার শীষর্ নেতার এই আমন্ত্রণ নিরস্ত্রীকরণের বিষয়ে আশা ধরে রাখলো।

হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র সারাহ স্যান্ডাসর্ বলেন, ‘চিঠির প্রাথমিক উদ্দেশ্যই হচ্ছে প্রেসিডেন্টের (ট্রাম্প) সঙ্গে আরেকটি বৈঠকের অনুরোধ ও এর দিনক্ষণ ঠিক করা। এরই মধ্যে আমরা কাজ শুরু করেছি, এ নিয়ে সমন্বয়ও চলছে।’ দুই নেতার সম্ভাব্য বৈঠকটি কবে অনুষ্ঠিত হবে, সে সম্পকের্ কোনো ধারণা দেননি হোয়াইট হাউসের এই মুখপাত্র।

সিঙ্গাপুরে ট্রাম্প ও কিম নিরস্ত্রীকরণ বিষয়ে একটি অস্পষ্ট চুক্তি স্বাক্ষর করেন। ওই চুক্তি স্বাক্ষরের পর থেকে এ ক্ষেত্রে তেমন কোনো অগ্রগতি না হওয়ায় ট্রাম্প গত মাসের শেষের দিকে মাকির্ন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও’র পিয়ংইয়ং সফরের পরিকল্পনা হঠাৎ বাতিল করেন। কয়েক সপ্তাহের অচলাবস্থা সত্তে¡ও বতর্মানে এটা নিয়ে আলোচনা চলছে, নতুন এই চিঠি থেকে এমন ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে। উল্লেখ্য, গত রোববার উত্তর কোরিয়ার ৭০তম প্রতিষ্ঠাবাষির্কী জঁাকজমকভাবে পালনকালে আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র প্রদশর্ন করা থেকে পিয়ংইয়ং বিরত থাকে। ট্রাম্প এটিকে একটি ইতিবাচক পদক্ষেপ হিসেবে অভিহিত করেন।

এদিকে, ট্রাম্পকে কিমের চিঠি লেখার খবরে উচ্ছ¡সিত প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে-ইনও। তিনি বলেছেন, ‘কোরীয় উপদ্বীপের পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণ এমন একটি বিষয়, যার মৌলিক সমাধান যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ার মধ্যে আলোচনার মাধ্যমেই হওয়া উচিত।’ তিনি মঙ্গলবার মন্ত্রিপরিষদের বৈঠকে উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক অস্ত্র নিরস্ত্রীকরণের ব্যাপারে মাকির্ন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও পিয়ংইয়ংয়ের নেতা কিম জং-উনকে ‘বলিষ্ঠ সিদ্ধান্ত’ নেয়ারও আহŸান জানিয়েছেন।

মুন বলেন, ‘তবে যতক্ষণ পযর্ন্ত উত্তর কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে আরও সক্রিয় আলোচনা ও যোগাযোগ না হবে, ততক্ষণ পযর্ন্ত আমরা তাদের মধ্যে মধ্যস্থতা করতে না পারলেও কাজ করতে পারি।’ তিনি জানান, ‘এ ব্যাপারে আমাকে ভ‚মিকা রাখতে অনুরোধ জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ও চেয়ারম্যান কিম।’ মুন বলেন, ‘উত্তর কোরিয়ার হাতে থাকা পারমাণবিক অস্ত্র ধ্বংসে উচ্চপযাের্য়র আলোচনা এগিয়ে নিতে পিয়ংইয়ং ও মাকির্ন নেতার বড় ধরনের দূরদশির্তা এবং বলিষ্ঠ সিদ্ধান্ত প্রয়োজন।’ উল্লেখ্য, সিঙ্গাপুরে ট্রাম্প-কিমের শীষর্ সম্মেলন আয়োজনেও মুনের গুরুত্বপূণর্ ভ‚মিকা ছিল। কিমের সঙ্গে কয়েক মাসের মধ্যে তৃতীয় দফা মুখোমুখি বৈঠকে অংশ নিতে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট আগামী সপ্তাহেই পিয়ংইয়ং যাচ্ছেন।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
অাইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

উপরে