logo
  • Mon, 19 Nov, 2018

  যাযাদি ডেস্ক   ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০  

সিরিয়ার গৃহযুদ্ধ

ইদলিবে বিরামহীন বোমা হামলা রাশিয়া ও বাশার বাহিনীর

৯ শহরে ৭০ বোমায় নিহত ৩০৪, পালাচ্ছে হাজার হাজার অধিবাসী

সিরিয়ার বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত সবের্শষ ঘঁাটি ইদলিব নিয়ন্ত্রণে নিতে বিমান হামলা অব্যাহত রেখেছে রাশিয়া ও সরকারি বাহিনী। মঙ্গলবার বিদ্রোহী অধ্যুষিত বিভিন্ন শহরে বিরামহীন বিমান হামলা চালায় রুশ ও সরকারি বাহিনী। এদিন ৯টি শহরকে টাগের্ট করে প্রায় ৭০টি ব্যারেল বোমা ফেলেছে। এ হামলায় এখন পযর্ন্ত ৩০৪ জন নিহত হয়েছেন। জীবন বঁাচাতে এলাকা ছেড়ে পালাচ্ছে হাজার হাজার অধিবাসী। সংবাদসূত্র : রয়টাসর্, এএফপি অনলাইন

গত সোমবার জাতিসংঘ জানিয়েছে, নতুন করে অভিযান শুরুর পর ইদলিব থেকে ৩০ হাজারের বেশি বাসিন্দা পালিয়ে গেছে। সেই সঙ্গে এ অভিযান অব্যাহত থাকলে আরও আট লাখ বেসামরিক বাসিন্দা পালিয়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে জাতিসংঘের মানবিক বিষয়ক সমন্বয় দপ্তর (ওসিএইচএ)। এতে একুশ শতকের সবচেয়ে ‘শোচনীয় মানবিক বিপযের্য়র ঝুঁকি’ তৈরি হতে পারে বলে সতকর্ করেছেন ওসিএইচএ’র প্রধান মাকর্ লোকক। ওসিএইচএ’র মুখপাত্র ডেভিড সোয়ানসন জানিয়েছেন, রোববার পযর্ন্ত ৩০ হাজার ৫৪২ জন বাস্তুচ্যুত হয়ে ইদলিবের অন্যান্য এলাকায় আশ্রয় নিয়েছে।

গত শুক্রবার ইদলিবে অস্ত্রবিরতি নিয়ে শুক্রবার তুরস্ক, ইরান ও রাশিয়ার প্রেসিডেন্টদের এক বৈঠক ব্যথর্ হয়। এরপর সিরিয়া ও রাশিয়ার যুদ্ধবিমানগুলো ফের প্রদেশটিতে বিমান হামলা শুরু করে।

পরিবারসহ পালাচ্ছিলেন ইদলিবের অধিবাসী আবু জসিম। পথে বাতার্ সংস্থা ‘এএফপি’কে তিনি বলেন, খান শেইখৌন শহর থেকে পালিয়ে বঁাচার চেষ্টা করছে তার পরিবার। তিনি বলেন, ‘তারা আমাদের এলাকায় রকেট হামলা চালাচ্ছে। তাই দল বেঁধে পালিয়ে যাচ্ছি আমরা।’ একজন বলেন, ‘ইদলিবে এই মুহ‚তের্ কেবল হামলা, পাল্টা হামলা আর ধ্বংসযজ্ঞ চলছে, যা ভাষায় প্রকাশ সম্ভব নয়। খুবই অস্বাভাবিক একটি পরিস্থিতি বিরাজ করছে সেখানে।’ আরেকজন বলেন, ‘জীবন বঁাচাতে আমাদের পালানো ছাড়া কোনো উপায় নেই। তারা যখন তখন বেসামরিক নাগরিকদের অবস্থানে হামলা চালাচ্ছে।’

উল্লেখ্য, বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত ইদলিব ও সংলগ্ন লাতাকিয়া, হামা ও আলেপ্পো প্রদেশের ছোট কয়েকটি অংশে প্রায় ৩০ লাখ মানুষের বাস। এদের অধের্কই সিরিয়ার অন্যান্য অংশ থেকে বাস্তুচ্যুত হয়ে সেখানে গিয়ে আশ্রয় নিয়েছে। সিরিয়ার সরকারি ও মিত্র বাহিনীগুলো নতুন করে অভিযান শুরুর পর ইদলিবের এসব বাসিন্দারা পালাতে শুরু করে বলে ওই এলাকায় ত্রাণ উদ্যোগের সমন্বয়রত জাতিসংঘের একটি সংস্থা জানিয়েছে।

বেসামরিক নাগরিকদের প্রাণহানি

এড়ানোর আহŸান গুতেরেসের

এদিকে, ইদলিবে যেকোনো মূল্যে বেসামরিক নাগরিকদের প্রাণহানি এড়ানোর আহŸান জানিয়েছেন জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস। বিদ্রোহী দমনে বিকল্প উপায় খুঁজে বের করতে রাশিয়া, ইরান এবং তুরস্কের প্রতিও আহŸান জানান তিনি। সোমবার নিউইয়কের্ সংস্থার সদর দপ্তরে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, যেকোনো মূল্যে ইদলিবে রক্তপাত বন্ধের পাশপাশি বেসামরিক নাগরিকদের প্রাণহানি এড়াতে কাযর্কর পদক্ষেপ নিতে হবে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
অাইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে